ঢাকা, সোমবার, ১১ বৈশাখ ১৪২৪, ২৪ এপ্রিল ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

আসছে ‘রাজস্ব নিরাপত্তা বাহিনী’

এম এ রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০১-১২ ৪:৫৩:২০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০১-১২ ৪:৫৩:২০ পিএম

বরিশাল থেকে এম এ রহমান : রাজস্ব কর্মকর্তাদের নিরাপত্তায় ‘রাজস্ব নিরাপত্তা বাহিনী’ গড়ে তোলার  পরিকল্পনা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান।

বৃহস্পতিবার বরিশাল হোটেল গ্র্যান্ড পার্ক মিশন কনফারেন্স রুমে ভ্যাট অনলাইন আয়োজিত প্রশিক্ষক প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও বরিশাল কর ভবনে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, পৃথিবীর অনেক দেশে রাজস্ব নিরাপত্তা বাহিনী গড়ে তোলার নজির আছে। এনবিআরও সে ধরনের পরিকল্পনা করছে। এ বিষয়ে সরকারের উচ্চ পর্যায়ে দিকনির্দেশনা আছে। যারা রাজস্ব সংগ্রহ করেন, তারা ঝুঁকির মধ্যে থাকেন। এ ক্ষেত্রে নিরাপত্তা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এনবিআরকে বিশেষভাবে সহায়তা করে।

দক্ষিণাঞ্চল সফরে করদাতাদের উপহার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বরিশাল বিভাগে পূর্ণাঙ্গ রাজস্ব অফিস নেই। আমি এখানে ঘোষণা দিতে চাই, বরিশালে শিগগিরই আয়কর, ভ্যাট ও শুল্ক বিভাগসহ পূর্ণাঙ্গ অফিস স্থাপন করা হবে। এটাই হবে আমার আন্তরিক উপহার।

নজিবুর রহমান বলেন, একসময় বলা হতো, জনগণ আয়কর দিতে চান না। সে অপবাদ মিথ্যা প্রমাণ করে গত নভেম্বরে জনগণ দেখিয়েছেন যে, তারা খুবই রাজস্বমনস্ক। জুন পর্যন্ত ই-টিআইএন নিবন্ধনের টার্গেট দেওয়া ছিল ২৫ লাখ। ইতিমধ্যে তা ২৭ লাখ ছুঁই ছুঁই করছে। সবার সহযোগিতায় বছর শেষে এ সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়ে যাবে।

সব বিভাগ ও জেলায় রাজস্ব ভবন হবে, জানিয়ে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, বর্তমানে এনবিআরের আয়কর, ভ্যাট ও শুল্ক বিভাগ সুসমন্বিতভাবে কাজ করছে। প্রতিটি বিভাগ ও জেলায় তিনটি উইংয়ের জন্য রাজস্ব ভবন হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে নজিবুর রহমান বলেন, এনবিআরের জনবল, যানবাহন আগের চেয়ে ১০০ গুণ বেড়েছে। ইতিমধ্যে ২০০৯-১০ অর্থবছরের তুলনায় শতভাগ জনবল বাড়ানো হচ্ছে। অচিরেই জনবল আরো বাড়বে। প্রশিক্ষণের ওপর জোর দেওয়া হচ্ছে। সেজন্য একাডেমিকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, এবার আমরা ভোলার প্রত্যন্ত অঞ্চল চর কুকরি-মুকরি  ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার উদ্বোধন করতে যাচ্ছি। আমরা প্রতিটি ইউনিয়ন তথ্য সেবা কেন্দ্রকে ব্যবহার করে কর সেবা দিচ্ছি। মিডিয়ায় ঘন ঘন বিজ্ঞাপন দিয়ে রাজস্ব বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। পুরো এনবিআরকে ডিজিটাল করা হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, এখন অনলাইনে আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়া, অনলাইন ভ্যাট প্রজেক্ট, কাস্টমসে এসাইকুডা ওয়ার্ল্ডের মাধ্যমে ব্যবসায়ীদের সেবা দেওয়াসহ এনবিআরকে ডিজিটাল সেবা দেওয়া হচ্ছে।  এতে জনগণের মধ্যে আর করভীতি থাকবে না।  হয়রানি বন্ধে আপিলাত ট্রাইব্যুনাল ক্রমান্বয়ে বাড়ানো হবে। আয়কর, শুল্কের পাশাপাশি ভ্যাট থেকে আহরিত রাজস্ব যাতে দিন দিন বৃদ্ধি পায়, সেজন্য এফবিসিসিআইয়ের সঙ্গে একটি সহযোগিতামূলক সম্পর্ক স্থাপনের মাধ্যমে সব বিভাগীয় শহরে এ ধরনের প্রশিক্ষক প্রশিক্ষণ কর্মসূচি করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

নতুন ভ্যাট আইন সম্পর্কে ব্যবসায়ীদের অবহিত করতে হবে। আপনারা যারা ব্যবসায়ীদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন, তারা এ বিষয়ে সচেতন করবেন। কারণ, উন্নয়নের অর্থায়নে রাজস্ব খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা এসব বিষয় নিয়ে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ব্যবসায়ী ও পেশাজীবী সংগঠনের সঙ্গে বহুপাক্ষিক রাজস্ব সংলাপ করছি।

'মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন, ২০১২ এর বিষয়ে ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদের মধ্য হতে প্রশিক্ষক সৃজনের লক্ষ্যে এ প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়।

এনবিআরের সদস্য ( শুল্ক ও ভ্যাট প্রশাসন) মো. রেজাউল হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন- এফবিসিআইয়ের পরিচালক ও বরিশাল চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি সাইদুর রহমান রিন্টু, এনবিআর সদস্য মো. ফরিদ উদ্দিন, কালিপদ হালদার, ব্যারিস্টার জাহাঙ্গীর হোসেন, পারভেজ ইকবাল ও সিআইসির মহাপরিচালক বেলাল উদ্দিন প্রমুখ।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ জানুয়ারি ২০১৭/এম এ রহমান/রফিক

Walton Laptop