ঢাকা, সোমবার, ৯ শ্রাবণ ১৪২৪, ২৪ জুলাই ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

ইকুয়েটি ইনভেস্টমেন্ট সুবিধা বৃদ্ধির আহ্বান

নাসির উদ্দিন : রাইজিংবিডি ডট কম
প্রকাশ: ২০১৭-০১-১২ ৪:২৬:৪৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০১-১২ ৪:২৬:৪৩ পিএম

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : কৃষিখাতের ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের আর্থিক সহায়তার লক্ষ্যে ইকুয়েটি ইনভেস্টমেন্ট সুবিধা বৃদ্ধির আহ্বান জানানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) ভবনে এগ্রি বিজনেস বোস্টার বাংলাদেশের সহায়তায় ডিসিসিআই এবং ইউএসএআইডি এগ্রিকালচার ভ্যালু চেইন প্রোগ্রাম (ডাই) যৌথভাবে আয়োজিত ‘কৃষিখাতের ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তা উন্নয়নে ঋণসহায়তা প্রদানে প্রতিবন্ধকতা ও সমাধান’ শীর্ষক ওয়ার্কশপে এ আহ্বান জানান বক্তারা।

বক্তারা বলেন, পর্যাপ্ত কোল্ড স্টোরেজ সুবিধা না থাকার কারণে বাংলাদেশে প্রতিবছর বিপুল পরিমাণ কৃষিপণ্য নষ্ট হচ্ছে। তাই এ খাতের উদ্যোক্তাদের আর্থিক সহায়তা উন্নয়নের লক্ষ্যে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ইকুয়েটি ফান্ড গঠনের পাশাপাশি কৃষিপণ্য বহুমুখীকরণ করা প্রয়োজন।

এ সময় ডিসিসিআই সহ-সভাপতি হোসেন এ সিকদার বলেন, বাংলাদেশের কৃষিখাতের ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাবৃন্দ প্রাকৃতিক দুর্যোগের মতো নানাবিধ সমস্যায় জর্জরিত এবং এ খাতের উদ্যোক্তাদের সময়মতো ও প্রয়োজনীয় আর্থিক সহায়তা প্রদানের বিষয়টি এখনও নিশ্চিত করা সম্ভব হয়নি।

তিনি বলেন, প্রথাগত ঋণসহায়তা প্রাপ্তি নিশ্চিত না করার ফলে দেশের কৃষিখাত এখনও কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারেনি। এ খাতের উদ্যোক্তাদের নগদ লেনদেনের মাধ্যমে কৃষকদের উৎপাদিত পণ্য ক্রয় করে ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালনা করতে হয়, যার ফলে উদ্যোক্তাদের আর্থিক সহায়তা বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

এ সময় তিনি কৃষিখাতের উদ্যোক্তাদের বিকাশের লক্ষ্যে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ও প্রাইভেট ইকুয়েটি ফান্ড গঠনেরও আহ্বান জানান।

ডিসিসিআই সমন্বয়কারী পরিচালক ইমরান আহমেদ বলেন, কৃষিসহ অন্যান্য খাতের ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের আর্থিক সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে ভেঞ্চার ক্যাপিটালের মাধ্যমে বেসরকারি খাতকে এগিয়ে আসতে হবে।

ইন্টারচার্চ অর্গানাইজেশন ফর ডেভেলপমেন্ট কোঅপারেশন (আইসিসিও) বাংলাদেশের কান্ট্রি রিপ্রেজেনটেটিভ টিসা সেমেলজার বলেন, বাংলাদেশের কৃষিখাতের ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের চাহিদামাফিক আর্থিক সহায়তা নিশ্চিত করা হলে এ খাতের উন্নয়নের পাশাপাশি বাংলাদেশের অর্থনীতির অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে কৃষিখাত আরো কার্যকর ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে।

ওয়ার্কশপে এগ্রি বিজনেস বোস্টার বাংলাদেশের লিড প্রতিনিধি নাবা নাশিত তারেক মূল প্রবন্ধে  বলেন, এগ্রি বিজনেস বোস্টার বাংলাদেশ এদেশের উদীয়মান কৃষি উদ্যোক্তাদের বিভিন্ন মেয়াদে ইকুয়েটি ইনভেস্টমেন্ট ও ভেঞ্চার ক্যাপিটালের মাধ্যমে আর্থিক সহায়তা প্রদানের আগ্রহী।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি, দারিদ্র্য বিমোচন এবং খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে একটি সফল কৃষি ব্যবস্থপনা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ জানুয়ারি ২০১৭/নাসির/মুশফিক

Walton Laptop