ঢাকা, সোমবার, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

জঙ্গি ইস্যুতে দিল্লিতে কাল বাংলাদেশ-ভারত বৈঠক

: রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৬-০৭-২৭ ৯:৪৮:২৭ এএম     ||     আপডেট: ২০১৬-০৭-২৭ ১:২০:১২ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক: জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে বৃহস্পতিবার নয়াদিল্লিতে বাংলাদেশ-ভারত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক শুরু হচ্ছে।

 

আলোচনায় স্থান পাবে নিরাপত্তা এবং পারস্পরিক সহযোগিতার বিষয়। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে এ বিষয়ে জানা গেছে।

 

বৈঠকে যোগ দিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল আজ সকাল ১০টার দিকে ভারতের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন তার এপিএস মো. আলী।

 

তিনি আট সদস্যের একটি প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। ভারতীয় প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেবেন সে দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং।

 

বৈঠকে সর্বোচ্চ প্রাধান্য দেওয়া হবে নিরাপত্তার ইস্যুকে। এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘বৈঠকে দুই দেশের নিরাপত্তা সহযোগিতা নিয়ে বিশেষ আলোচনা ও সিদ্ধান্ত হবে। কারণ গুলশানে জঙ্গি হামলার পর উভয় দেশই জঙ্গিবাদ প্রতিরোধের বিষয়ে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে।

 

প্রতিনিধিদলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব ড. মোজাম্মেল হক খান ছাড়াও থাকছেন পুলিশের আইজি এ কে এম শহীদুল হক, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদ, কোস্টগার্ডের প্রধান রিয়ার এডমিরাল আওরঙ্গজেব চৌধুরী, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক খন্দকার রকিবুর রহমান প্রমুখ।

 

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে, সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে ভারত বরাবরই বাংলাদেশকে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে আসছে। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশে জঙ্গিবাদ এতটাই মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে যে, দ্বিপক্ষীয় বিষয়ে ভারত বাংলাদেশের নিরাপত্তা ব্যবস্থা এবং আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতিতে খুব বিবেচনায় রেখেছে।

 

এই অবস্থায়, জঙ্গি ইস্যুতে বাংলাদেশের অবস্থান এবং সরকারের দৃষ্টিভঙ্গি জানতে চায় ভারত। এর ভিত্তিতে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

 

ভিন্ন প্রেক্ষাপটে এবারের বৈঠকে দুই দেশের মধ্যে গোয়েন্দা তথ্য আদান-প্রদান নিয়ে প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামো তৈরি ও বন্দিবিনিময় চুক্তি সংশোধনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। দুই দেশের মধ্যে সহজে অপরাধী হস্তান্তরের লক্ষ্যে এই সংশোধন করা হতে পারে।

 

এখন অপরাধী হস্তান্তরের ক্ষেত্রে আদালতের রায়ের জন্য অপেক্ষা করতে হয়। তবে বন্দিবিনিময় চুক্তি সংশোধন হলে আদালতের রায়ের জন্য আর অপেক্ষা করতে হবে না। খুব দ্রুত দুই দেশ বন্দিবিনিময় করতে পারবে।

 

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৭ জুলাই ২০১৬/আশরাফ/হাসান/এএন

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC