ঢাকা, বুধবার, ১১ বৈশাখ ১৪২৬, ২৪ এপ্রিল ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

তের কেজি স্বর্ণালঙ্কার পরেন তিনি

শাহিদুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-১২-১৪ ২:৪৪:২৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১২-১৪ ২:৪৪:২৭ পিএম

শাহিদুল ইসলাম : স্বর্ণালঙ্কারের প্রতি আকর্ষণ মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি। তবে এ আকর্ষণ পুরুষের তুলনায় নারীদের মধ্যে অধিক হারে দেখা যায়। প্রতিটি নারীই নিজেকে স্বর্ণালঙ্কার দিয়ে সাজাতে ভালোবাসে। কিন্তু কোনো কোনো পুরুষের বেলায়ও এ আকর্ষণ দেখা যায়। ভিয়েতনামের ট্র্যান নুক পুক তেমনই একজন পুরুষ, যিনি সোনার গহনা পরায় ছাড়িয়ে গেছেন অনেক নারীকেও। বর্তমানে তিনি সর্বমোট তেরো কেজি সোনার অলঙ্কার পরেন।

ছত্রিশ বছর বয়সি ট্র্যানের বসবাস ভিয়েতনামের হো চি মিন সিটিতে। পেশায় তিনি তেল ব্যবসায়ী। পাঁচ বছর আগে একবার জ্যোতিষীর কাছে গিয়েছেন। ওই জ্যোতিষী তাকে বলেছিলেন তিনি যদি সোনার অলঙ্কার ব্যবহার করেন তবে তার ভাগ্য সুপ্রসন্ন হবে। মূলত তখন থেকেই তার স্বর্ণালঙ্কার ব্যবহার শুরু।  তবে জ্যোতিষী তাকে এত বেশি সোনার অলঙ্কার পরতে বলেননি। ট্র্যান নিজেই মনে করেন, যত বেশি অলঙ্কার পরবেন তত তার ভাগ্য সুপ্রসন্ন হবে। এমন ভাবনা থেকেই পাঁচ কেজি ওজনের সোনার চেইন, পাঁচ কেজি ওজনের একটি ব্রেসলেট এবং প্রতিটি পাঁচশত গ্রাম ওজনের দশটি আংটি পরা শুরু করেন তিনি। সব মিলিয়ে তার অলঙ্কারের ওজন এখন তের কেজি।

তিনি যেখানেই যান এই অলঙ্কার পরেন। আর এইসব অলঙ্কার পাহারা দেওয়ার কাজে নিয়োজিত থাকে পাঁচজন দেহরক্ষী। চলতি মাসে তারানের বেশ কয়েকটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এরপর তাকে নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। অবাক হয়ে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন কীভাবে একজন মানুষ এত বেশি সোনার অলঙ্কার পরে স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে পারেন। আবার কেউ কেউ একে নকল গহনা বলে অবিহিত করেছেন।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৪ ডিসেম্বর ২০১৮/মারুফ

Walton Laptop
     
Walton AC
Marcel Fridge