ঢাকা, সোমবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২০ মে ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

নরসিংদীর বালক চট্টগ্রামে বিক্রি, ৮ মাস পর উদ্ধার

গাজী হানিফ মাহমুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৫-১৬ ১১:১১:২৩ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৫-১৬ ৩:৫৮:৪০ পিএম

নরসিংদী সংবাদদাতা: নরসিংদী থেকে ফুসলিয়ে নিয়ে চট্টগ্রামে বিক্রি করে দেওয়ার ৮ মাস পর উদ্ধার হয়েছে ফজর রহমান সাব্বির নামে এক বালক।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে রাঙ্গামাটি থেকে খোকন আলী (২৭) নামে এক আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত খোকন রাঙ্গামাটির বরকলের কুরকটিছড়ি গ্রামের মৃত আক্কাছ আলীর ছেলে। নরসিংদীর পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহমেদ এক সংবাদ সম্মেলনে বুধবার এ তথ্য জানান।

পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহমেদ জানান, ৮ মাস আগে রায়পুরা উপজেলার নলবাটা গ্রামের মৃত আলমগীর হোসেনের ছেলে, স্থানীয় একটি মাদ্রাসা ও এতিমখানার ছাত্র ফজর রহমান সাব্বিরকে প্রলোভন দেখিয়ে ট্রেনে উঠিয়ে চট্রগ্রাম নিয়ে যায় পাচারকারী দলের এক অজ্ঞাত সদস্য। সেখানে সাব্বিরকে নাজিম নামে একজনের কাছে হস্তান্তর করে। নাজিম পরদিন সাব্বিরকে খোকন আলীর নিকট বিক্রি করে দেয়।

পুলিশ সুপার জানান, খোকন আলী বরকলের কুসুমতলী এলাকায় সাব্বিরকে জোরপূর্বক মাছ ধরার কাজে নিয়োজিত করে। একাধিকবার সাব্বির সেখান থেকে পালানোর চেষ্টা করলে খোকন তাকে মারপিট করে এবং প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আটকে রেখে অন্যান্যদের সাথে মাছ ধরার কাজে নিয়োজিত রাখে। একমাস পর সাব্বির কৌশলে খোকন আলীর মোবাইল ফোন দিয়ে তার মা বিলকিস বেগমকে ফোন করে ঘটনা জানায়। পরে ওই নাম্বারে ফোন দিয়ে ছেলের খোঁজ জানতে চাইলে মা বিলকিস বেগমকে জানানো হয় সাব্বিরকে সে টাকার বিনিময়ে কিনে নিয়েছে এবং তাকে ফেরত দেয়া যাবে না।



এ ঘটনায় বিলকিস বেগম নরসিংদীর পুলিশ সুপারের নিকট লিখিত আবেদন জানালে গোয়েন্দা পুলিশের এসআই জাকারিয়ার নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে সাব্বিরকে উদ্ধার করে। গ্রেপ্তার হয় খোকন আলীও ।

খোকন পুলিশকে জানিয়েছে, মাছ ধরার মৌসুমে দালাল চক্রের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে অল্প বয়সী ছেলেদের নিয়ে বিভিন্ন নৌকায় মাছ ধরার কাজে নিয়োজিত করা হয়।



রাইজিংবিডি/ নরসিংদী/১৬ মে ২০১৯/গাজী হানিফ মাহমুদ/টিপু

Walton Laptop
     
Walton AC
Marcel Fridge