ঢাকা, বুধবার, ১৩ বৈশাখ ১৪২৪, ২৬ এপ্রিল ২০১৭
Risingbd
Risingbd
সর্বশেষ:

রাখাইনে অভিযান বন্ধের ঘোষণা মিয়ানমারের

রাসেল পারভেজ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০২-১৬ ২:০৬:৪০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০২-২০ ৯:৫৩:৫২ এএম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : রোহিঙ্গা অধ্যুষিত রাখাইন রাজ্যে তথাকথিত সন্ত্রাসবিরোধী সেনা অভিযান শেষ করার ঘোষণা দিয়েছে মিয়ানমার সরকার।

দি গার্ডিয়ান অনলাইনের এক খবরে বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রায় চার মাস ধরে চলা এ অভিযানের সময় মিয়ানমারের বাহিনীর বিরুদ্ধে মানবাধিকার হরণের অভিযোগ তোলে জাতিসংঘসহ বিশ্বের অন্যান্য মানবাধিকার সংস্থা। হত্যা, নিপীড়ন, নির্যাতন, ধর্ষণ, গণধর্ষণের অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে।

মুসলিম রোহিঙ্গা সম্প্রদায়কে নিধনের উদ্দেশ্যে এ সেনা অভিযান চালানো হয় বলে অভিযোগ করে রোহিঙ্গারা। জাতিসংঘের হিসাব মতে, প্রাণ বাঁচাতে প্রায় ৬৯ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।

৯ অক্টোবর বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী পোস্টে সন্ত্রাসী হামলায় নয় নিরাপত্তাকর্মী নিহত হওয়ার পর রাখাইন রাজ্যে সেনা অভিযান শুরু করে মিয়ানমার সেনাবাহিন। এ সময়ে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সহিংসতা চললেও এ বিষয়ে নীবর থাকায় নোবেল জয়ী অং সান সু চির সমালোচনা হয় বিশ্বজুড়ে। মুসলিম সংখ্যালঘুদের বাঁচাতে চোখে পড়ার মতো কোনো পদক্ষেপ তার ছিল না।

মিয়ানমার সরকার রাখাইন রাজ্যে হত্যা, গণ-ধর্ষণসহ মুসলিম রোহিঙ্গা নির্যাতনের প্রায় সব অভিযোগ অস্বীকার করে। তাদের দাবি, আইনসম্মতভাবে সন্ত্রাসীবিরোধী অভিযান চালিয়েছে তারা।

মিয়ানমারের নতুন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা থায়ুং তান এক বিবৃতিতে বুধবার রাতে বলেছেন, ‘উত্তরাঞ্চলীয় রাখাইন রাজ্যের পরিস্থিতি এখন স্থিতিশীল। সেনাবাহিনীর শুদ্ধি অভিযান শেষ হয়েছে, কারফিউ তুলে নেওয়া হয়েছে এবং শান্তি বজায় রাখতে শুধু পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে সেখানে।’ বিবৃতিটি রাষ্ট্রীয় পরামর্শক অং সান সু চির কার্যালয় থেকে প্রকাশ করা হয়েছে।

বিবৃতি অনুযায়ী একদল কূটনীতিক ও জাতিসংঘ প্রতিনিধিদের তিনি বলেছেন, বাহুল্য শক্তি প্রয়োগ, মৌলিক মানবাধিকারের হরণ ও মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের কোনো ক্ষমা হতে পারে না। আমরা দেখিয়েছি, যেখানে অপব্যবহারের স্পষ্ট প্রমাণ রয়েছে, তার বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা নিতে প্রস্তুত।’

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭/রাসেল পারভেজ

Walton Laptop