ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২১ নভেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

‘সমালোচনা করে শিক্ষার্থীদের নিরুৎসাহী করবেন না’

ইয়ামিন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০১-০২ ৮:৩০:৪০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০২-১২ ২:১০:৫৫ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : শিক্ষার মান নিয়ে সমালোচকদের উদ্দেশ্য করে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, ‘শিক্ষার মান নিয়ে সমালোচনা করে শিক্ষার্থীদের নিরুৎসাহিত করবেন না। যৌক্তিক কোনো পরামর্শ থাকলে সেটি সরকারকে জানাতে পারেন।’

 

সোমবার ঢাকায় হোটেল সোনারগাঁওয়ে নবম ও দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য ই-লার্নিং ও ই-ম্যানুয়েল কনটেন্ট উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। টিচিং কোয়ালিটি ইমপ্রুভমেন্ট-২ (টিকিউআই-২) প্রকল্পের উদ্যোগে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

 

মন্ত্রী বলেন, পরীক্ষা পদ্ধতি সংস্কার করে কম বিষয়ে পরীক্ষা নেওয়ার চিন্তাভাবনা চলছে। পরিবর্তনের এ প্রক্রিয়া এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে। পাঠদান পদ্ধতি আরো উন্নত ও সহজতর করার জন্য আমরা প্রযুক্তি ব্যবহার করছি। ডিজিটাল রিডিং মেটেরিয়েল দেওয়া হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের পাঠ্যপুস্তক ইন্টারঅ্যাকটিভ ই-বুকে রূপান্তর করা হয়েছে। এসব ই-লার্নিং রিসোর্স ও ই-ম্যানুয়েল প্রকাশের ফলে শিক্ষার্থীরা অনলাইনে পাঠ নিতে পারবে এবং শিক্ষকরাও পাঠদানের জন্য ডিজিটাল মাধ্যমে একটি গাইডলাইন পাবেন।

 

‘শিক্ষার গুণগত মান উন্নয়নের জন্য আমরা কাজ করছি। শিক্ষার মান রাতারাতি বাড়ানো সম্ভব নয়। শিক্ষার মান বাড়াতে নিবেদিতপ্রাণ শিক্ষক প্রয়োজন। পাঠদান পদ্ধতি উন্নত ও সহজ করা প্রয়োজন। পাঠ্যপুস্তক সহজবোধ্য ও সুখপাঠ্য করা এবং ক্লাসরুমের পরিবেশ আনন্দময় করাও প্রয়োজন।’

 

তিনি বলেন, ৪০ হাজারের বেশি বিদ্যালয়ে ইতোমধ্যে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম চালু করা হযেছে। যেসব স্কুলে গণিত ও ইংরেজিতে শিক্ষার্থীরা পাস করত না, সেসব স্কুলে সেকায়েপ প্রকল্পের মাধ্যমে অতিরিক্ত শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হয়েছিল। ফলে এসব স্কুলে পাসের হার বেড়েছে।

 

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. এসএম ওয়াহিদুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন, কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. আলমগীর, টিকিউআই প্রকল্পের সাবেক পরিচালক বনমালী ভৌমিক, এনসিটিবির চেয়ারম্যান প্রফেসর নারায়ণ চন্দ্র সাহা, টিকিউআই-২ এর প্রকল্প পরিচালক মো. জহির উদ্দিন বাবর, এডিবির সিনিয়র সোস্যাল সেক্টর অফিসার এসএম এবাদুর রহমান এবং ইএটিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এমএ মুবিন খান বক্তব্য রাখেন।

 

পরে শিক্ষামন্ত্রী আনুষ্ঠানিকভাবে ই-লার্নিং ও ই-ম্যানুয়েল উদ্বোধন করেন। এই ই-লার্নিং কনটেন্টে পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, জীববিজ্ঞান, সাধারণ গণিত, ইংরেজি ও হিসাববিজ্ঞান বিষয়ের অনুশীলনগুলো পাওয়া যাবে। এনসিটিবির ওয়েবসাইট www.nctb.gov.bd-এ বিষয়গুলোর ই-কনটেন্ট পাওয়া যাবে। জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) সার্বিক নির্দেশনা ও তত্ত্বাবধানে এথিকস অ্যাডভান্সড টেকনোলজি লিমিটেড (ইএটিএল) এই ডিজিটাল কনটেন্ট তৈরি করেছে।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/২ জানুয়ারি ২০১৬/ইয়ামিন/মুশফিক

Walton
 
   
Marcel