ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

কারামুক্ত হলেন শহিদুল আলম

মামুন খান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-১১-২০ ৯:২২:০৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১১-২২ ৯:৩২:২৩ এএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রায় সাড়ে তিন মাস কারাগারে থাকার পর অবশেষে মুক্তি পেলেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন আলোকচিত্রী শহিদুল আলম।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ছাড়া পান তিনি।

এ সময় কারাগারের বাইরে অপেক্ষায় ছিলেন শহিদুল আলমের স্ত্রী রেহনুমা আহমেদ, আইনজীবী ব্যারিস্টার জ্যোর্তিময় বড়ুয়া, সারাহ হোসেন ও তার স্বজনরা।

শহিদুল আলমের আইনজীবী জায়েদুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গত ১৫ নভেম্বর হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ এ খ্যাতিমান আলোকচিত্রীর জামিন মঞ্জুর করে সিএমএম আদালতে জামিননামা দাখিলের আদেশ দেন। গতকাল সোমবার বিকেল ৫টার দিকে হাইকোর্টের জামিনের আদেশ সিএমএম আদালতে আসে। ওই দিন আদালতের কর্মঘণ্টার পর আদেশ পৌঁছানোয় আইনজীবীরা জামিননামা দাখিল করতে পারেননি।

মঙ্গলবার দুপুরের দিকে ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম কায়সারুল ইসলাম ১০ হাজার টাকা মুচলেকায় জামিননামা গ্রহণ করেন। এরপর জামিননামা কারাগারে পাঠানো হয়। কিন্তু জামিননামায় আসামির ঠিকানা ভুল থাকায় কারা কর্তৃপক্ষ বেলা সাড়ে ৩টার দিকে তা আদালতে ফেরত পাঠায়। এরপর আদালত থেকে অনুমতি নিয়ে তা সংশোধন করা হয়। বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ওই জামিননামা ঢাকা সিএমএম আদালত থেকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

উল্লেখ্য, গত আগস্টে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনের সময় শহিদুল আলম এ বিষয়ে একটি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমকে সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন। ওই সাক্ষাৎকারে মিথ্যা তথ্য দিয়ে রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করা হয়েছে, এ অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা করে পুলিশ।

মামলার আগে ৪ আগস্ট রাতে ধানমন্ডির বাসা থেকে ডিবি পরিচয়ে একদল লোক শহিদুল আলমকে অপহরণ করে বলে অভিযোগ করেন তার স্ত্রী রেহনুমা আহমেদ।

৬ আগস্ট এ আসামির জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন সিএমএম আদালত। এরপর গত ১২ আগস্ট রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানো হয়। পরে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতও গত ১১ সেপ্টেম্বর জামিন নামঞ্জুর করেন। ওই আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করা হয়।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২০ নভেম্বর ২০১৮/মামুন খান/রফিক

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC