ঢাকা, শুক্রবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৫ মে ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

ভিয়েতনামের পথে : ২১তম পর্ব

ফেরদৌস জামান: ঝরনার নিচে ছোট্ট পুকুর, তার পাড়েই সুবৃহৎ পাথর খণ্ড। পাশ দিয়ে দুরন্ত বেগে নেমে যাচ্ছে মে ইয়েনের ঠান্ডা পানির ধারা।

ভিয়েতনামের পথে : ২০তম পর্ব

ফেরদৌস জামান : কারেন বসতিতে মনকে বেশিক্ষণ টেকানো গেল না। যতক্ষণ অবস্থান করলাম তার সম্পূর্ণটাই ছিল ভিষণ নিস্প্রাণ।

ভিয়েতনামের পথে: ১৯তম পর্ব

ফেরদৌস জামান : ওয়াট মে ইয়েনের সদর দরজা দিয়ে বেরিয়ে একই পথে অনেকটা পেছন দিকে আসতে হলো।

ওয়াট মে ইয়েনে একবেলা

(ভিয়েতনামের পথে: ১৮তম পর্ব)

ফেরদৌস জামান: পথ চিনতে আর কোনো অসুবিধা হবার কথা নয় কারণ ঐ সবুজ পাহাড়, আর ঠিক তার মাঝ থেকে সাদা মূর্তির ডান পাশটা এখন আমাদের সামনে স্পষ্ট দৃশ্যমান।

লন্ড্রিতে কাপড় ধোলাই হয় কেজি হিসেবে!

(ভিয়েতনামের পথে: ১৭তম পর্ব)
ফেরদৌস জামান : আগের রাতে আগেই শুয়ে পরেছিলাম, তাই ঘুম ভেঙেছে ভোরে।

ভিয়েতনামের পথে: ১৬তম পর্ব

ফেরদৌস জামান: পাই ক্যানিয়নকে বিদায় জানিয়ে এখনই ফিরতি পথ না ধরতে পারলে বিপদ হয়ে যাবে। তবে কোনো অপঘাতের আশঙ্কা নেই।

গিরিখাদে বিপদ

(ভিয়েতনামের পথে: ১৫ তম পর্ব)
ফেরদৌস জামান : পাই ক্যানিয়ন থাইল্যান্ডের অন্যতম এক গিরিখাত। এখানে এসে এই গিরিখাত না দেখে ফিরে যাওয়া পর্যটকের সংখ্যা একেবারেই শূন্য।

পামবোক ঝরনায় জুতা হারানোর যন্ত্রণা

(ভিয়েতনামের পথে: ১৪ তম পর্ব)
ফেরদৌস জামান : এই পথ নিয়ে যাবে পেমবোক ঝরনায়। বেলা বাড়ার সাথে সাথে স্কুটির সংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে। মজা করতে করতে এগিযে যাচ্ছে সবাই ঝরনার টানে।

এক জেলায় পাঁচ সাগর

মোস্তাফিজুর রহমান: উত্তর বঙ্গের অন্যতম জেলা দিনাজপুর। ইতিহাস, ঐতিহ্য ও শিক্ষায় অনেকটা এগিয়ে।

এবার তবে লাংকাউয়ি: শেষ কিস্তি

হাসান জ্যোতি : এরই মধ্যে বৃষ্টি নেমেছে। সুইমিং করব তাই চলে এলাম সুইমিং পুলে। ঘণ্টাখানেক সুইমিং করে উঠে এলাম।

এবার তবে লাংকাউয়ি

হাসান জ্যোতি : মানুষের আকাশ ছোঁয়ার ইচ্ছে বহুদিনের। আর আকাশের বুকে স্থির কিংবা চলমান অবস্থায় আপেক্ষিক স্থির পৃথিবীকে দেখা অদ্ভুত সুন্দর!

রেশমপথের শহর উরুমছিতে || শান্তা মারিয়া

চীন আমার অতি প্রিয় এক দেশ। সত্যি কথা বলতে গেলে চীনে আমি যতটা সাচ্ছন্দ্য বোধ করি সেটা আর কোন দেশে হয় না।

পশুপাখি যা ছিল সব পালিয়ে বাঁচল

(ভিয়েতনামের পথে: ১৩ তম পর্ব)

ফেরদৌস জামান: মে হং সনে কেনা কলার প্রায় অনেকটাই অবশিষ্ট ছিল। সাথে আগের রাতে কেনা মাখন ও পাউরুটি।

হায় হায় একি করলাম!

(ভিয়েতনামের পথে: ১২তম পর্ব)

ফেরদৌস জামান: কাঠ ও ইট-পাথরে নির্মিত কোর্ট ভবন। ক্ষুদ্র ভবন এবং চত্বরে জনাকয়েক মানুষের আনাগোনা। হাতে গুনলে পাঁচ থেকে সাত জনের অধিক হবে না।

বুঝতে পারলাম বেছে বেছে আমার পাসপোর্ট দেখার হেতু

(ভিয়েতনামের পথে: ১১তম পর্ব)

ফেরদৌস জামান: কাউন্টারে রাখা ব্যাগ ফেরত নিয়ে গাড়ির খোঁজ করে জানতে পারলাম, বড় বা মিনিবাস নয়, এই পথে মাইক্রোবাসে যাত্রী পরিবহণ হয়ে থাকে।