ঢাকা, রবিবার, ১৭ বৈশাখ ১৪২৪, ৩০ এপ্রিল ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

রজনীগন্ধাপুর : দশম পর্ব

|| ইমদাদুল হক মিলন ||

সামনে হাতের ডানদিকে তিনচারটা তেঁতুল গাছ। বিশাল বিশাল গাছ। তেঁতুলের একেবারে বন হয়ে আছে। ঝিরঝিরে পাতা নাচছে হাওয়ায়। রোদে ঝলমল করছে মাথার ওপর।

সায়েন্স ফিকশন || সিনেস্থেশিয়া

|| দীপেন ভট্টাচার্য ||

১৯৮০-এর দশকের মাঝামাঝি রথখোলা মোড়ের কাছে নবাবপুর রোডের ওপর আমার একটা চেম্বার ছিল।

বই নিয়ে ছয়টি কথা

মুম রহমান : বিশ্বে বই নিয়ে কথাবার্তার কোন শেষ নেই। বই যে পড়ে না সে-ও বই নিয়ে দুইখান কথা বলে।

দুপুরে চরকায় || এনামুল রেজা

এই গল্প আমাদের বলা হয় দুপুর প্রসঙ্গে। গল্পটি চমকপ্রদ হলেও শর্ত থাকে যে আমরা কেবল এর বাহক হবো, কাউকে বলতে পারবো না- অবশেষে গল্পটি একদিন নিজেই বেরিয়ে আসবে এবং আমাদের হত্যা করবে। - প্রাচীন কেচ্ছা

হাওয়া হাওয়া ও হাওয়া খুশবু লুটাদে

|| মাহবুব ময়ূখ রিশাদ ||
পাঠক, আপনারা গল্পের শুরুতেই দেখতে পাবেন, রঞ্জু নামের একটি ছেলে ভিড়ের ভেতরে বিভ্রান্ত। আমি জানি, এমন মানুষ প্রায় দেখে থাকেন সবাই। কখনো হয়তো পাত্তা দিতে চান না অথবা সে সময় আপনাদের থাকে না।

কে জন্মায়, হে বৈশাখ || পিয়াস মজিদ

মনে পড়ে আমার বেড়ে ওঠার ছোট্ট শহর কুমিল্লার পথে হাঁটতে গিয়ে কানে ভেসে আসত কোনো আবৃত্তি সংগঠনের কর্মীদের কণ্ঠে উচ্চরিত জয় গোস্বামীর কবিতা ‘কে জন্মায়, হে বৈশাখ’।

১৪২৪ বঙ্গাব্দ: ভাবো, ভাবা প্রাকটিস করো || টোকন ঠাকুর

শব্দের মধ্যেই একরকম ধারণা উপস্থিত থাকে। শব্দ শুনেই শব্দের তাপমাত্রা, শীতলতা অনুভব করা যায়।

বাঙালির আত্মশক্তির উৎসব || সেলিনা হোসেন

বর্তমানে বিশ্বজুড়ে বাঙালির নববর্ষ ভিন্ন মাত্রা লাভ করেছে। বিশ্বের অনেক দেশের বিপুল সংখ্যক মানুষ বাঙালির এই উৎসব সম্পর্কে জানে এবং আগ্রহভরে প্রবাসী বাঙালিদের অনুষ্ঠানে আসে।

রবীন্দ্রনাথ ও বৈশাখ || আহমাদ মাযহার

ষড়ঋতুর বাংলাদেশে বাংলা বর্ষপরিক্রমার প্রথম মাস বৈশাখ। রবীন্দ্রনাথও জন্মেছিলেন বাংলা ১২৬৮ সালের সেই বৈশাখ মাসেই, ২৫ তারিখের রৌদ্রদগ্ধ দিনে।

এসো হে বৈশাখ || আহসান হাবীব

সেদিন আমার এক পুরোনো বন্ধু এলো আমার কাছে। বলল, তোর সাথে জরুরি কথা আছে।

বলে ফেল।

কথাটা বৈশাখ নিয়ে, পয়লা বৈশাখ।

কারাগারের দিনলিপি: অভিজ্ঞতার পাঠ ও ইতিহাস অনুসন্ধান

।। ড. তানভীর আহমেদ সিডনী ।।

শোষকের কোনো জাত নাই ধর্ম নাই। একই ধর্মের বিশ্বাসী লোকদেরও শোষণ করে চলেছে ছলে বলে কৌশলে। [পৃ. ১৮৭]

সাযযাদ কাদিরের গল্পে নারীর যৌনজাগরণ || মোজাফ্‌ফর হোসেন

ষাটের দশকের শেষের দিকে লিখতে শুরু করেন সাযযাদ কাদির। বাংলা সাহিত্যের পালাবদলের এই দশকে স্বকীয় স্বর নিয়ে তিনিও একটি বিকল্প পথে হাঁটার চেষ্টা করেছিলেন।

সন্‌জীদা খাতুন : আমাদের বাতিঘর

দীপংকর গৌতম : ‘চাকরি জীবনে স্বাধীনচেতা মানুষকে নানা দুর্ভোগের শিকার হতে হয়। পরাধীন দেশে বিড়ম্বনার তো কোনো শেষ নেই আবার!

রজনীগন্ধাপুর : নবম পর্ব

|| ইমদাদুল হক মিলন ||

সামনে হাতের ডানদিকে তিন চারটা তেঁতুল গাছ। বিশাল বিশাল গাছ। তেঁতুলের একেবারে বন হয়ে আছে। ঝিরঝিরে পাতা নাচছে হাওয়ায়।

কবিগান : প্রাচীন লোকসংগীতের অনন্য ধারা

বাংলার প্রাচীন লোকসংগীতের একটি অনন্য বা বিশিষ্ট ধারার নাম ‘কবিগান’। এই গান যারা পরিবেশন করেন, তাদের বলা হয় ‘কবিয়াল’।