ঢাকা, সোমবার, ১০ বৈশাখ ১৪২৫, ২৩ এপ্রিল ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

স্মরণ : সত্যজিৎ রায়

শাহ মতিন টিপু : সত্যজিৎ রায়ের বড় পরিচয় হচ্ছে তিনি বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি নির্মাতা।অসাধারণ সব চলচ্চিত্র নির্মাণের মধ্য দিয়ে বাংলা চলচ্চিত্রকে তুলে ধরেছেন বিশ্ব মানচিত্রে।

বিস্ময়কর সহোদর কাহিনি (শেষ পর্ব)

মাহমুদুল হাসান আসিফ : নিজেই নিজের যমজকে জন্ম দেয়া থেকে শুরু করে জন্মের সময় বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার মতো ঘটনা চারপাশে অহরহ ঘটে চলেছে।

তিন বিঘা জমিতে একটি আমগাছের রাজত্ব!

আমিনুর রহমান হৃদয় : আনুমানিক ২১০ বছরেরও বেশি একটি পুরোনো আমগাছ। সূর্যাপুরী জাতের এই আমগাছটি তার ডালপালা ছড়িয়ে-ছিটিয়ে প্রায় তিন বিঘা জমি দখল করে নিয়েছে।

বিস্ময়কর সহোদর কাহিনি (প্রথম পর্ব)

মাহমুদুল হাসান আসিফ : নিজেই নিজের যমজকে জন্ম দেয়া থেকে শুরু করে জন্মের সময় বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার মতো ঘটনা চারপাশে অহরহ ঘটে চলেছে।

স্মরণ : বীরশ্রেষ্ঠ সিপাহী মোস্তফা কামাল

শাহ মতিন টিপু : বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অসামান্য বীরত্বের জন্য বীরশ্রেষ্ঠ উপাধিতে ভূষিত সাত জনের অন্যতম একজন সিপাহী মোস্তফা কামাল।

বিশ্ব ঐতিহ্য দিবস: বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহ্যস্থল

অধ্যাপক ড. আহমদ কামরুজ্জমান মজুমদার এবং আব্দুল্লাহ আল নাঈম : ‘ইন্টারন্যাশনাল কাউন্সিল ফর মনুমেন্টস অ্যান্ড সাইটস (ICOMOS)’ ১৯৮২ সালে তিউনিশিয়ায় একটি আলোচনা সভায় ১৮ এপ্রিলকে ‘ইন্টারন্যাশনাল ডে ফর মনুমেন্টস অ্যান্ড সাইটস’ হিসেবে পালনের সিদ্ধান্ত নেয়।

একনজরে মুজিবনগর সরকার

শাহ মতিন টিপু : ১৯৭১ সালের ১৭ এপ্রিল স্বাধীন বাংলাদেশের ইতিহাসে অবিস্মরণীয় দিন। একাত্তরের এই দিনে বাঙালি জাতি নতুন করে আবার জেগে ওঠে, মুছে দেয় পরাজয়ের গ্লানি।

৪৭ বছরেও স্বীকৃতি মিলেনি

আমিনুর রহমান হৃদয় : মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীকে প্রতিরোধ করার জন্য বাঙালিদের সংগঠিত করার কাজ করতেন ঠাকুরগাঁও জেলার ডা. সুজাউদ্দিন আহমদ।

হাইব্রিড বাঙালির পান্তাপ্রীতি

অরুণ কুমার বিশ্বাস : ফুল ফুটুক না ফুটুক আজ বসন্ত, থুক্কু পহেলা বৈশাখ। আমের মুকুল বড় হয়ে এখন আম্রশাখে দোদুল্যমান গাঢ় সবুজ আম।

বাংলা সন ও পঞ্জিকা কীভাবে এলো

ইঞ্জি. সাইদ আহমেদ : বাংলা সন কে প্রবর্তন করেছেন বা কার সময়ে প্রবর্তিত হয়েছে, এ প্রসঙ্গে তিনজন নৃপতির নাম উঠে আসে-  গৌড়ের রাজা শশাঙ্ক, ভারত-সম্রাট আকবর এবং বঙ্গের সুলতান হোসেন শাহ।

চৈত্রসংক্রান্তি : নিম্নবর্ণের উৎসব

|| রওশন জাহিদ ||

বঙ্গাব্দের শেষ দিন অর্থাৎ বাংলা হিসেবে বছর গণনার শেষ দিনকে ‘ক্রান্তি’ বলা হয়ে থাকে। আর যেহেতু এটি চৈত্র মাসের শেষ দিন তাই এটি ‘চৈত্রসংক্রান্তি’ হিসেবে পরিচিত।

ফুল দিয়ে বৈশাখ বরণে প্রস্তুত শাহবাগ

ছাইফুল ইসলাম মাছুম : বাঙালি জাতির সর্বজনীন উৎসব পয়লা বৈশাখ। পয়লা বৈশাখকে ঘিরে শহরজুড়ে তৈরি হয় অন্য রকম আনন্দঘন আবহ।

লোকজীবনের ঐতিহ্য নিয়ে মঙ্গল শোভাযাত্রা

ছাইফুল ইসলাম মাছুম : ‘প্রতি বছর অপেক্ষায় থাকি, কবে পয়লা বৈশাখ আসবে। কবে শুরু হবে মঙ্গল শোভাযাত্রার প্রস্তুতি পর্ব।

বাঙালির তাম্বুলবিলাস

কাজী জাহিদুল হক : বাঙালি সমাজে পান গুরুত্বপূর্ণ মর্যাদা দখল করেছিল। খাওয়ার শেষে এক খিলি পান মুখে দেওয়া চাই-ই চাই।

লালখাতায় হালখাতা

ছাইফুল ইসলাম মাছুম : ‘আগে হালখাতায় অনেক আনন্দ হতো। দোকানে দোকানে প্লেটে করে মিষ্টি বিতরণ করা হতো।