ঢাকা, রবিবার, ১০ আষাঢ় ১৪২৫, ২৪ জুন ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

গাজী গ্রুপকে হারিয়ে কলাবাগানের প্রথম জয়

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০২-১৭ ৫:৪৯:১৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০২-১৭ ৬:৪৯:১০ পিএম

ক্রীড়া প্রতিবেদক : পাকিস্তানের আকবর-উর-রেহমানের অলরাউন্ড নৈপূণ্যে প্রথম জয় পেয়েছে কলাবাগান ক্রীড়া চক্র।

ওয়ালটন ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের চতুর্থ রাউন্ডে এসে জয়ের স্বাদ পেল তারা। প্রথম তিন ম্যাচে ভালো পারফর্ম করলেও জয়ের স্বাদ পাচ্ছিলেন না মোহাম্মদ আশরাফুল, আবুল হাসানরা। অবশেষ ফতুল্লায় আজ হারের বৃত্ত থেকে বের হয়ে আসল কলাবাগান। ৫৫ রানে তারা হারিয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সকে। চতুর্থ ম্যাচে এটি গাজী গ্রুপের তৃতীয় পরাজয়।

টস হেরে গাজী গ্রুপের আমন্ত্রণে ব্যাটিংয়ে নেমে ৭ উইকেটে ২৩২ রান করে কলাবাগান। জবাবে ১৭৭ রানে গুটিয়ে যায় গাজী গ্রুপের ইনিংস। ব্যাট-বল হাতে পারফর্ম করে কলাবাগানকে জিতিয়েছেন পাকিস্তানের আকবর-উর-রেহমান। প্রথমে ব্যাট হাতে ৮০ রান পরবর্তীতে বল হাতে ৪ উইকেট নেন আকবর। দারুণ পারফরম্যান্সে প্রথমবারের মতো খেলতে নেমেই পেয়েছেন ম্যাচসেরার পুরস্কার।

কলাবাগানের ইনিংসকে একাই বড় করেন আকবর। তাকে চতুর্থ উইকেটে সঙ্গ দেন তাইবুর রহমান। এর আগে ২৩ রান তুলতেই ৩ উইকেট হারায় তারা। আগের রাউন্ডে সেঞ্চুরি তোলা মোহাম্মদ আশরাফুলের ব্যাট থেকে আসে ৮ রান। আকবর ও তাইবুর ১০১ রান করেন। এ সময়ে দুইজনই তুলে নেন ফিফটি। কিন্তু তাইবুর আটকে যান ওই রানেই। ৮২ বলে ৭ চার ও ২ ছক্কায় ৫০ রান করে মুমিনুলের বলে স্ট্যাম্পড হন তাইবুর।

পঞ্চম উইকেটে মাহমুদুল হাসান লিমন ও আকবর ৪০ রানের জুটি গড়েন। দারুণ ব্যাটিংয়ে সেঞ্চুরির পথেই ছিলেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান আকবর। কিন্তু ভারতীয় বোলার রজত ভাটিয়া তাকে আটকে দেন ৮০ রানে। ১১১ বলে ৭ চার ও ২ ছক্কায় ৮০ রানে বিদায় নেন আকবর। এরপর লিমনের ৩৪, মুক্তার আলী ও আবুল হাসানের ১৯ রানের দুই ইনিংসে ২৩২ রানের পুঁজি পায় কলাবাগান।

বল হাতে ২টি করে উইকেট নেন কামরুল ইসলাম রাব্বী, ডলার মাহমুদ ও রজত ভাটিয়া।

লড়াকু টার্গেটের বিপক্ষে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা মন্দ হয়নি গাজী গ্রুপের। দুই ওপেনার জহুরুল ইসলাম অমি ও ইমরুল কায়েস ৪০ রানের জুটি গড়েন। এ জুটি ভাঙেন সঞ্জীত সাহা। আশরাফুলের হাতে ক্যাচ দিয়ে গাজী গ্রুপের অধিনায়ক জহুরুল বিদায় নেন ১৭ রানে। এরপর দ্রুতই উইকেট হারায় তারা। মুমিনুল হক ৬ ও আসিফ আহমেদ ১৪ রানে বিদায় নেন।

তবে একপ্রান্ত আগলে ব্যাটিং চালিয়ে যান ইমরুল। ৩০তম ওভারে ৭৪ রান করা ইমরুল আউট হলে দ্রুতই ভেঙে যায় গাজী গ্রুপের ব্যাটিং অর্ডার। ৭৮ বলে ৫ চার ৫ ছক্কায় ৭৪ রানের ইনিংসটি সাজান ইমরুল। ৫৭ রান তুলতেই শেষ ৬ উইকেট হারিয়ে ১৭৭ রানে অলআউট গাজী গ্রুপ।

ডানহাতি মিডিয়াম পেসার আকবর ৩৫ রানে নেন ৪ উইকেট। ২টি করে উইকেট পান সঞ্জীত সাহা ও মাহমুদুল হাসান।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/ইয়াসিন

Walton Laptop
 
   
Walton AC