ঢাকা, শুক্রবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

জিয়ার ব্যাটে জয়ে ফিরল শেখ জামাল

আবু হোসেন পরাগ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০২-১৯ ৭:০৯:০৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০২-১৯ ৭:৪৫:৩৬ পিএম
শেখ জামালকে জিতিয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন জিয়াউর রহমান

ক্রীড়া প্রতিবেদক : প্রথম তিন ম্যাচে রান পাননি। তিন ম্যাচের সম্মিলিত রান ২৬। আজ এক ম্যাচেই এর দিগুণের বেশি রান করলেন জিয়াউর রহমান। তার ব্যাটে চড়ে জয়ে ফিরল শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব।

ওয়ালটন ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে আজ প্রাইম ব্যাংককে ৫ উইকেটে হারিয়েছে শেখ জামাল। আগে ব্যাট করতে নেমে প্রাইম ব্যাংক শেষ বলে অলআউট হয়েছিল ২২৭ রানে। শেখ জামাল সেটি পেরিয়ে গেছে ৩২ বল বাকি থাকতেই।

চতুর্থ ম্যাচে এটি শেখ জামালের তৃতীয় জয়। প্রথম দুই ম্যাচে টানা জয়ের পর তৃতীয়টিতে হেরেছিল তারা। আর প্রাইম ব্যাংক জয় দিয়ে লিগ শুরুর পর হারল টানা তিন ম্যাচ, মানে হারের হ্যাটট্রিক!



জয়ে ফেরার আশায় ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট করতে নেমেছিল প্রাইম ব্যাংক। শুরুটাও তাদের ভালোই হয়েছিল। ৪৯ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েছিলেন মেহেদী মারুফ ও শাহনাজ আহমেদ।

কিন্তু ভালো শুরুটা ধরে রাখতে পারেনি প্রাইম ব্যাংক। একটা পর্যায়ে ১৫৫ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে দুইশ’র আগেই অলআউট হওয়ার শঙ্কাতেও পড়েছিল। লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যানদের দৃঢ়তায় শেষ বলে অলআউট হওয়ার আগে কোনোমতে ২২৭ রান করতে পারে তারা।

প্রাইম ব্যাংকের ইনিংসে প্রথম ৯ ব্যাটসম্যানই দুই অঙ্ক ছুঁয়েছেন। প্রথম তিন ব্যাটসম্যান উইকেটে থিতু হয়েও ইনিংস বড় করতে পারেননি। ইনিংসে নেই কোনো ফিফটি। সর্বোচ্চ ৪১ রান ওপেনার মেহেদী মারুফের। আট ও নয় নম্বরে নামা সাজ্জাদুল হোসেন ৩৫ ও দেলোয়ার হোসেন করেন ২৬ রান। জাকির হাসানের ব্যাট থেকে আসে ২৭ রান।



৩৪ রানে ৩ উইকেট নিয়ে শেখ জামালের সেরা বোলার রবিউল হক। আগের দিন সিলেটে জাতীয় দলের হয়ে অভিষেক হওয়া আবু জায়েদ রাহী ৬১ রানে নিয়েছেন ২ উইকেট। ইলিয়াস সানীও নিয়েছেন ২ উইকেট, ৩৪ রানে। একটি করে উইকেট পেয়েছেন নাজমুল ইসলাম ও সোহাগ গাজী। জিয়া ৪ ওভারে ২৫ রান দিয়ে কোনো উইকেট পাননি।

বোলিংয়ের ব্যর্থতা ব্যাটিংয়ে পুষিয়ে দিয়েছেন জিয়া। সৈকত আলীকে সঙ্গে নিয়ে তিনি গড়েন ৭০ রানের উদ্বোধনী জুটি। সৈকত ৪৪ বলে ৬ চার ও এক ছক্কায় ৩৯ করে ফিরলেও জিয়া তুলে নেন ফিফটি, পুরো ম্যাচেরই একমাত্র ফিফটি।

দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে ফেরার আগে ৭৬ বলে ৮ চার ও এক ছক্কায় ৬৭ রানের দারুণ ইনিংস খেলেন জিয়া। পরপর দুই ওভারে জিয়া ও রাকিন আহমেদের (১৮) উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছিল প্রাইম ব্যাংক।



তবে দিকবিজয় রঙ্গি, নুরুল হাসান সোহানরা সেটি হতে দেননি। ৪০ বলে ৩ চার ও ২ ছক্কায় ৩৯ রান করেন রঙ্গি। আর সোহান ২১ বলে ২ চার ও এক ছক্কায় ২৮ রানে অপরাজিত ছিলেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

প্রাইম ব্যাংক: ৫০ ওভারে ২২৭ (মারুফ ৪১, শাহনাজ ১৪, জাকির ২৭, চান্দিলা ১২, আল-আমিন ২৬, আরিফুল ১২, নাহিদুল ১৫, সাজ্জাদুল ৩৫, দেলোয়ার ২৬, মনির ৫*, রুবেল ৬; রবিউল ৩/৩৪, ইলিয়াস সানী ২/৩৪, আবু জায়েদ ২/৬১)

শেখ জামাল: ৪৪.৪ ওভারে ২২৯/৫ (সৈকত ৩৯, জিয়াউর ৬৭, রাকিন ১৮, রঙ্গি ৩৯, ইলিয়াস সানী ১৩, নুরুল ২৮* তানভীর ১২*; মনির ২/৩৮, দেলোয়ার ১/৩১, আরিফুল ১/৩৮, রুবেল ১/৫৬)

ফল: শেখ জামাল ৫ উইকেটে জয়ী

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: জিয়াউর রহমান।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/পরাগ

Walton Laptop
 
     
Walton