ঢাকা, শুক্রবার, ৬ বৈশাখ ১৪২৬, ১৯ এপ্রিল ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

শ্রীলঙ্কা ম্যাচের ঘটনায় বিসিবির দুঃখ প্রকাশ

আবু হোসেন পরাগ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৩-১৭ ৯:৩৭:১৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৩-১৮ ৮:৫১:০৪ এএম
সেই উত্তপ্ত মুহূর্তের একটি দৃশ্য

ক্রীড়া প্রতিবেদক : শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচে একটি ‘নো’ বলকে কেন্দ্র করে ঘটে যাওয়া ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

ঘটনার সূত্রপাত নিদাহাস ট্রফিতে শুক্রবার সেমিফাইনালে পরিণত হওয়া বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচের শেষ ওভারে। জয়ের জন্য শেষ ওভারে বাংলাদেশের প্রয়োজন ছিল ১২ রান। ইসুরু উদানা প্রথম দুই বলই দেন বাউন্সার। এর মধ্যে দ্বিতীয় বলে রান আউট হয়ে যান মুস্তাফিজুর রহমান। টি-টোয়েন্টিতে একটির বেশি বাউন্সার দিলে নো বল। ক্রিজে থাকা মাহমুদউল্লাহ স্কয়ার লেগ আম্পায়ারের দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি নো বলের ইঙ্গিত দেন। কিন্তু মূল আম্পায়ারের সঙ্গে আলোচনা করে তা তুলে নেন। এ নিয়েই যত বিপত্তি।

ম্যাচের এ রকম টান টান উত্তেজনার মুহূর্তে আম্পায়ার নো বল না দেওয়ায় প্রতিবাদী হয়ে ওঠেন মাহমুদউল্লাহ। সীমানার কাছে এসে উত্তেজিত হয়ে পড়েন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। মাঠ থেকে ব্যাটসম্যানদের চলে আসার ইঙ্গিতও দেন সাকিব। একাদশের বাইরে থাকা নুরুল হাসান সোহান শ্রীলঙ্কার বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়ের সঙ্গে ঝগড়ায় জড়িয়ে পড়েন। পরে টিম ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ পরিস্থিতি শান্ত করেন। উদানার পরের তিন বলে ১২ রান নিয়ে বাংলাদেশকে অবিস্মরণীয় এক জয় উপহার দেন মাহমুদউল্লাহ।

উত্তেজনার ওই মুহূর্ত নিয়ে বিসিবি শনিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলেছে, ‘শুক্রবার বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার ম্যাচে ঘটে যাওয়া দুর্ভাগ্যজনক ঘটনার জন্য বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড দুঃখ প্রকাশ করছে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে বাংলাদেশ দলের আচরণ ক্রিকেট মাঠে অগ্রহণযোগ্য ছিল বলে মনে করছে বোর্ড। আমরা বুঝতে পারছি, ম্যাচের গুরুত্ব ও চাপের কারণেই ঘটনাগুলো এমনভাবে প্রকাশ পেয়েছে। তবে ম্যাচের এমন টান টান উত্তেজনার সময় পেশাদারিত্বের প্রত্যাশিত মাত্রা প্রদর্শিত হয়নি। ক্রিকেটের চেতনা ধরে রাখতে বাংলাদেশ দলের সদস্যদের সব সময় তাদের দায়িত্ব মনে করিয়ে দেওয়া হয়।’

বিবৃতিতে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে সুসম্পর্কের কথাও তুলে ধরা হয়েছে, ‘বিসিবি ও শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের (এসএলসি) মধ্যে একটা সুদৃঢ় বন্ধন রয়েছে। দুই দলের খেলোয়াড়রা সমর্থন ও সহযোগিতা দিয়ে চমৎকার সম্পর্কটা বজায় রাখবে, যেটি দিনকে দিন আরো মজবুত হবে।’

নিদাহাস ট্রফির অংশ হতে পেরে বাংলাদেশ গর্বিত বলেও জানানো হয়েছে, ‘নিদাহাস ট্রফি দারুণভাবে শেষ হওয়ার অপেক্ষায় আছি আমরা। এটি চমৎকারভাবে আয়োজিত একটি টুর্নামেন্ট। খুবই প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ এবং বিশ্বজুড়ে ক্রিকেট সমর্থকরা তা ভালোভাবে গ্রহণ করেছে। এসএলসি প্রশংসা পাওয়ার দাবিদার। এই প্রতিযোগিতার অংশ হতে পেরে বাংলাদেশ দল গর্বিত।’

শ্রীলঙ্কার স্বাধীনতা ও শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের ৭০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজন করা হয়েছে নিদাহাস ট্রফি। রোববার ত্রিদেশীয় এই টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের ফাইনালে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও ভারত।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৭ মার্চ ২০১৮/পরাগ

Walton Laptop
     
Walton AC
Marcel Fridge