ঢাকা, সোমবার, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৭ মে ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

চোকার্স ট্যাগ দলের উপর কোনো প্রভাব ফেলবে না : এনগিদি

আমিনুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০২-০৭ ৪:৩৭:০১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০২-০৭ ৪:৪২:৪৪ পিএম
Walton AC

ক্রীড়া ডেস্ক : বিশ্বকাপের নকআউট পর্ব থেকে বার বার স্বপ্নভঙ্গের হতাশা নিয়ে দেশে ফিরেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। নকআউট পর্বে বার বার হেরে যাওয়ায় তাদের ‘চোকার্স’ ট্যাগ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এই প্রজন্মের তরুণ তুর্কি প্রোটিয়া পেসার লুঙ্গি এনগিদি মনে করছেন আসন্ন বিশ্বকাপে এই চোকার্স ট্যাগ তাদের দলগত পারফরম্যান্সে কোনো প্রভাব ফেলবে না।

‘দল হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকাকে কিন্তু চোকার্স মনে হচ্ছে না। প্রত্যেক দলই নির্দিষ্ট দিনে ভালো ক্রিকেট খেলতে চায়। প্রত্যেকটা আন্তর্জাতিক দলই কিন্তু ভালো ক্রিকেট খেলে ম্যাচ জেতার লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামে। কেউ-ই সেমিফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে হারতে চায় না। সেমিফাইনালের মতো ম্যাচ জেতা অবশ্যই কঠিন কাজ। যদিও আমরা অতীতে সেমিফাইনাল জিততে পারিনি। কিন্তু এবার আর সেটা হবে না। আমাদের কিন্তু আমরা চোকার্স বলি না। মানুষ বলে। সুতরাং আমি বলব এই ট্যাগ আমাদের উপর কোনো প্রভাব ফেলবে না।’

যেহেতু দক্ষিণ আফ্রিকা আগে কখনো ফাইনাল খেলেনি, তাই এনগিদি জানিয়েছেন তারা ফাইনাল খেলতে মুখিয়ে আছেন। এক বিশ্বকাপে ভালো পারফরম্যান্স করতে পারলে মানুষ তাদের আর চোকার্স বলবে না। পরবর্তী প্রজন্মও অনেক আত্মবিশ্বাস পাবে, ‘আমাদের ক্রিকেট দল আগে কখনো বিশ্বকাপ জিততে পারেনি। সুতরাং আমরা ক্লিন শিট নিয়েই বিশ্বকাপে খেলতে যাব। আমাদের হারানোর কিছু নেই। কিন্তু পাওয়ার আছে অনেক কিছু।’

২০০৩ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বকাপের আয়োজ ছিল (সহ-আয়োজক জিম্বাবুয়ে ও কেনিয়া)। তখন এনগিদি ছিলেন গ্রেড-১ এর ছাত্র। সে সময় মাখায়া এনটিনি ও শন পলকদের বোলিং তাকে মুগ্ধ করতো। আন্দ্রে নেলের আগ্রসন তাকে বিমোহিত করতো। এবার তিনিই খেলতে যাচ্ছেন বিশ্বকাপে। বিশ্বকাপের মতো বড় মঞ্চে তিনি এমন কিছু করতে চান যেটা তার দেশের পরবর্তী প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে। তাদের বোঝাতে সক্ষম হবে যে কোনো কিছুই অসম্ভব নয়।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯/আমিনুল

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge