ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৪, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

নরসিংদীতে সংঘর্ষে আহত যুবকের মৃত্যু

গাজী হানিফ মাহমুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৪-২১ ৮:৪৬:৩০ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৪-২১ ৮:৪৬:৩০ এএম

নরসিংদী প্রতিনিধি : নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলায় দুই দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে আহত আরেক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এই নিয়ে এই সংঘর্ষে দুইজন নিহত হলো। এই সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়েছে। হাসপাতালে মারা যাওয়া ব্যক্তির নাম মাসুদ মিয়া (২৬)। তিনি বাঁশগাড়ী ইউনিয়নের বীরকান্দী গ্রামের শরিফ মিয়ার ছেলে।

এদিকে, বৃহস্পতিবারও দুইপক্ষ টেঁটা ও অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়ানোর চেষ্টা করে। পুলিশ উভয়পক্ষকে সরিয়ে দিয়েছে। গত বুধবার দিনভর সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে শারফিন মিয়া (২০) নিহত হয়। তিনি ব্রা‏হ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার মুক্তারামপুর গ্রামের মজিবুর রহমানের ছেলে।

বাঁশগাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাফিজুর রহমান সাহেদ সরকার ও বিএনপি থেকে সদ্য আওয়ামী লীগে যোগ দেওয়া স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল হকের সমর্থকদের মধ্যে এই সংঘর্ষ হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, বিগত ইউপি নির্বাচনের সময় বাঁশগাড়ী ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছিলেন বাঁশগাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাফিজুর রহমান সাহেদ সরকার। কিন্তু নির্বাচনে সদ্য আওয়ামী লীগের যোগ দেওয়া সিরাজুল হক চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এরপর থেকে দুইপক্ষের মধ্যে বেশ কয়েকবার সংঘর্ষ হয়েছে। এ প্রেক্ষিতে হাফিজুর রহমান সাহেদ সরকারের কয়েকশত সমর্থক এলাকা ছাড়া হন। গত কয়েক দিন তারা এলাকায় ফেরার চেষ্টা করেন। কিন্তু সিরাজুল হকের পক্ষ বিষয়টি ভালোভাবে নেয়নি। এরই জের ধরে বুধবার সকাল থেকে তারা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। দিনভর সংঘর্ষে শারফিন মিয়া নিহত ও অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়। পরে স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ১৪৪ ধারা জারি করাসহ এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

বৃহস্পতিবার উভয়পক্ষ টেঁটা ও অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়ানোর চেষ্টা করে। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয়পক্ষকে সরিয়ে দেয়। তবে উভয়পক্ষ মুখোমুখি অবস্থান করায় যে কোনো সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা রয়েছে।

সংঘর্ষে আহত মাসুদ বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। তিনি সিরাজুল হকের সমর্থক হিসেবে পরিচিত। নিহতের লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে সন্ধ্যায় স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। নিহতের খবরে বাঁশগাড়ীতে ফের উত্তেজনা দেখা দিয়েছে।

রায়পুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মাজহারুল ইসলাম বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় এখন পর্যন্ত দুইজন নিহত হয়েছে। তবে হতাহতের ঘটনায় কোনোপক্ষই মামলা করেনি। উভয়পক্ষ আবার হামলা ও সংঘর্ষে জড়ানোর চেষ্টা করছে। অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাজ করে যাচ্ছে।



রাইজিংবিডি/নরসিংদী/২১ এপ্রিল ২০১৭/গাজী হানিফ মাহমুদ/বকুল

Walton Laptop