ঢাকা, শুক্রবার, ৫ কার্তিক ১৪২৪, ২০ অক্টোবর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

গাইবান্ধায় নদ-নদীর পানি বিপৎসীমার ওপরে

মোমেনুর রশিদ সাগর : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৮-১৩ ৩:৪০:২৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৮-১৩ ৩:৪০:২৫ পিএম

গাইবান্ধা প্রতিনিধি : টানা বৃষ্টি আর উজান থেকে নেমে আসা ঢলে গাইবান্ধায় ঘাঘট নদী ও ব্রক্ষপুত্র নদের পানি ফের বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

ফলে দ্বিতীয় দফা বন্যায় গাইবান্ধার সদর, ফুলছড়ি, সাঘাটা ও সুন্দরগঞ্জসহ চার উপজেলার নিম্নাঞ্চল ও চরাঞ্চলের অর্ধলক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন।

ওইসব এলাকার রাস্তাঘাটসহ তলিয়ে গেছে বিস্তীর্ণ এলাকার পাট, আমন বীজ তলাসহ ফসলি জমি। পানি ওঠায় ব্যাহত হচ্ছে বেশ কিছু বিদ্যালয়ের পাঠদান কার্যক্রম।

এদিকে পানির প্রবল চাপে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ফুলছড়ি উপজেলার সিংড়া-রতনপুর, বালাসীঘাটের কাইয়াঘাটসহ বেশ কয়েকটি পয়েন্ট ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। যেকোনো সময় বাঁধ ভেঙে নতুন করে আরো হাজার হাজার ঘরবাড়ি প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কায় রয়েছেন স্থানীয়রা।

পানিবন্দি এসব মানুষের মধ্যে অনেকে তাদের বাড়িঘর ছেড়ে শেষ সম্বল নিয়ে নিরাপদ আশ্রয়ে ছুটছেন। এসব মানুষ পরিবার-পরিজন নিয়ে রেলের জায়গা, বাঁধ ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আশ্রয় নিতে শুরু করেছেন।

 



গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহাবুবুর রহমান জানান, টানা বৃষ্টি আর উজানের ঢলে জেলার নদ-নদীর পানি হুহু করে বাড়ছে। রোববার সকাল পর্যন্ত ব্রক্ষপুত্র নদের পানি ফুলছড়ি পয়েন্টে বিপৎসীমার ২৯ সেন্টিমিটার ও ঘাঘট নদীর পানি ব্রিজ রোড পয়েন্টে ৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এভাবে পানি বৃদ্ধি অব্যহত থাকলে জেলায় আবারো বড় বন্যার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক গৌতম চন্দ্র পাল জানান, পরিস্থিতি মোকাবিলায় সার্বিক প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। বানভাসি মানুষদের ত্রাণ সহায়তাসহ তাদের খোঁজখবরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও উপজেলা প্রশাসন তদারকি করছে। বানভাসিদের তালিকা অনুযায়ী দ্রুত ত্রাণ সহায়তা দেওয়া হবে।



রাইজিংবিডি/ গাইবান্ধা/১৩ আগস্ট ২০১৭ / মোমেনুর রশিদ সাগর/রুহুল

Walton