ঢাকা, রবিবার, ৮ মাঘ ১৪২৪, ২১ জানুয়ারি ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

কোচিংয়ের প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা: শিক্ষককে চাকরিচ্যুতির সুপারিশ

আলী আকবর টুটুল : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-১২-১৩ ৮:৩৫:৪৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১২-১৪ ৮:৪৬:০৪ এএম

বাগেরহাট সংবাদদাতা : বাগেরহাট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক শেখ মো. বেল্লাল হোসেনের বিরুদ্ধে বার্ষিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ ওঠার পর তদন্ত কমিটি তদন্ত শেষ করে প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন।

বুধবার বিকেলে তদন্ত কমিটির প্রধান বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক শেখ আমজাদ হোসেন প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল মতিন হাওলাদারের কাছে তাদের প্রতিবেদন জমা দেন। নির্ধারিত সময়ের একদিন আগেই প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন।

বাগেরহাট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীর একটি বিষয়ে কোচিং সেন্টারে মডেল টেস্টে নেওয়া প্রশ্নপত্রেই বার্ষিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠার পর মঙ্গলবার পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে তাদের দুই কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

তদন্ত কমিটির প্রধান বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক শেখ আমজাদ হোসেন বলেন, ‘‘বিদ্যালয়ের খণ্ডকালীন আইসিটি বিষয়ের শিক্ষক শেখ মো. বেল্লাল হোসেনের বিরুদ্ধে প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ পেয়ে আমরা তদন্ত শুরু করি। তদন্তে ওই শিক্ষক যে প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গে জড়িত তা বেরিয়ে এসেছে। স্কুলের সুনাম, শিক্ষারমান সমুন্নত রাখতে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে সুপারিশ করেছি।’’

প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল মতিন হাওলাদার বলেন, তদন্ত প্রতিবেদন হাতে পেয়ে স্কুলের শিক্ষক কাউন্সিল কমিটির জরুরি সভা আহ্বান করা হয়। ওই সভা থেকেও সকল শিক্ষক খণ্ডকালীন আইসিটি বিষয়ের শিক্ষক শেখ মো. বেল্লাল হোসেনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে জোর দাবি তুলেছেন। তদন্ত প্রতিবেদন এবং শিক্ষক কাউন্সিল কমিটির রেজুলেশন অনুযায়ী শিক্ষক বেল্লাল হোসেনের চাকরিচ্যুতির জন্য স্কুল ব্যবস্থাপনা পর্ষদের সভাপতি বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক তপন কুমার বিশ্বাসের কাছে সুপারিশ করা হয়েছে। তিনিই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন।

অভিযোগের বিষয়ে কথা বলতে প্রভাতী শাখার খণ্ডকালীন শিক্ষক শেখ মো. বেল্লাল হোসেনের সঙ্গে মোবাইল ফোনে বারবার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।



রাইজিংবিডি/বাগেরহাট/১৩ ডিসেম্বর ২০১৭/আলী আকবর টুটুল/বকুল

Walton
 
   
Marcel