ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৪ মে ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

গোলাপ রাজ্যের সব গোলাপ শেষ!

সাফিউল ইসলাম সাকিব : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০২-১৩ ৪:১৩:৫১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০২-১৩ ৪:১৩:৫১ পিএম

সাফিউল ইসলাম সাকিব, সাভার : রাজধানীর পার্শ্ববর্তী সাভারের বিরুলিয়া গ্রামকে ডাকা হয় গোলাপ রাজ্য নামে। ঢাকার যেকোনো উৎসবে ফুলের সব চাহিদা মেটানো হয় এই রাজ্য থেকেই। কিন্তু পহেলা ফাল্গুন আর ভালবাসা দিবস উপলক্ষে এই গোলাপ রাজ্যের সব গোলাপই এখন শেষ।

ফুলের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় ইতোমধ্যে বাগানের সব গোলাপই তুলে নিয়ে নিয়েছেন চাষীরা। সোম আর মঙ্গলবার- এই দুদিনে শুধু বিরুলিয়ার চাষীরাই প্রায় ১ কোটি টাকার ফুল বিক্রি করেছেন রাজধানীর ফুল ব্যবসায়ীদের কাছে।

মঙ্গলবার বাগান থেকে তুলে বিরুলিয়াতেই একেকটি গোলাপ বিক্রি হচ্ছে ৪ টাকা থেকে ৫ টাকায়। ফুলের জাত একটু ভাল হলেই তা বিক্রি হচ্ছে ৮ টাকা পর্যন্ত।

মঙ্গলবার সন্ধ্যার হাটে আরও ভাল দাম পাওয়ার আশা করছেন চাষীরা। সেজন্য সকাল থেকেই বাগানের ফুল তুলে মজুদ করেছেন তারা। 

বিরুলিয়ার শ্যামপুর এলাকার ফুলচাষী হেলাল উদ্দিন এ বছর এক পাখি (৩০ শতাংশ) জমিতে ফুল চাষ করেছেন।  সেই ফুল আজ তিনি বিক্রি করেছেন ২১ হাজার টাকায়। তিনি জানান, এবার ফুলের ফলন ভাল নয়। অজ্ঞাত এক রোগে ফুলের ফলন কম হয়েছে। না হলে এক পাখি জমির ফুল অন্তত ৩০ হাজার টাকায় বিক্রি করা যেত।

বিরুলিয়ার  ৪০০ ফুল চাষী মিলে বিরুলিয়া ফুলচাষী মালিক কল্যাণ সমিতি নামে একটি সংগঠন গড়ে তুলেছেন। এই সংগঠনের সভাপতি আনসার আলীর মতে, পহেলা ফাল্গুনের আগের দিন এবং ভালবাসা দিবসের আগের দিন বিরুলিয়ায় ফুলের বেচাকেনা বেড়ে যায়। এ বছর এই দুদিনে আনুমানিক এক কোটি টাকার মতো ফুল বিক্রি হয়েছে।

আনসার আলীর অভিযোগ, এবার ফুল বাগানে অজ্ঞাত রোগ দেখা দেওয়ায় ফুলের ফলন কম হয়েছে। কিন্তু সময়মতো এই সমস্যার সমাধান পাওয়া যায়নি স্থানীয় কৃষি অফিস থেকে। সময়মতো সমাধান পেলে চাষীরা আরও লাভবান হতেন বলে দাবি করেন তিনি।



রাইজিংবিডি/সাভার/১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/সাফিউল ইসলাম সাকিব/মুশফিক

Walton Laptop
 
   
Walton AC