ঢাকা, শনিবার, ৬ শ্রাবণ ১৪২৫, ২১ জুলাই ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

প্রতারণার দায়ে গ্রীণ ডেল্টা হাউজিংয়ের এমডিকে কারাদণ্ড

সুজাউদ্দিন রুবেল : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৭-১২ ৪:১৯:৪৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৭-১২ ৪:৪০:৫৭ পিএম

কক্সবাজার প্রতিনিধি : ফ্ল্যাট বিক্রির নামে গ্রাহকের নিকট থেকে ‘মোটা অংকের টাকা আদায় এবং চুক্তির শর্তভঙ্গ করে অর্থ আত্মসাতের মাধ্যমে প্রতারণার’ দায়ে গ্রীণ ডেল্টা হাউজিং এন্ড ডেভেলমেন্ট (প্রা:) লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালককে ছয় মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন কক্সবাজারের একটি আদালত।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কক্সবাজারের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক তামান্না ফারাহ এ রায় দেন বলে জানান বাদীপক্ষের আইনজীবী অরূপ বড়ুয়া তপু।

তবে রায় ঘোষণার সময় আসামি গ্রীণ ডেল্টা হাউজিং এন্ড ডেভেলমেন্ট (প্রা:) লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বেলাল হোসেন আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মামলার এজাহারের উদ্ধৃতি দিয়ে আইনজীবী তপু বলেন, কক্সবাজার শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে একাধিক এ্যাপার্টমেন্টে ফ্ল্যাট বিক্রি করা হবে অবহিত করে বিগত ২০১১ সালের নভেম্বর মাসে স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকায় বিজ্ঞাপন প্রচার করে গ্রীণ ডেল্টা হাউজিং এন্ড ডেভেলমেন্ট (প্রা:) লিমিটেড। ওই বিজ্ঞাপনের সূত্র ধরে ‘গ্রীণ ডেল্টা সাগরিকা’ প্রকল্পের ফ্ল্যাট ক্রয়ের জন্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে গত ২০১১ সালের ২৭ নভেম্বর ‘এ্যাপার্টমেন্ট বিক্রয় চুক্তিপত্র’ সম্পাদন করেন কক্সবাজার শহরের গোলদিঘীর পাড়া এলাকার বাসিন্দা অমলেন্দ পালের ছেলে বিশ্বজিত পাল।

বাদীর আইনজীবী বলেন, ফ্ল্যাট বিক্রির চুক্তিতে ১১২৮ বর্গফুটের ফ্ল্যাটের মূল্য নির্ধারণ করা হয় ৪১ লাখ ৪৮ হাজার টাকা। এ্যাপার্টমেন্টটির নির্মাণকাজ ২০১৫ সালের জুন মাসের মধ্যে শেষ করে গ্রাহকের নিকট ফ্ল্যাট হস্তান্তর করার শর্ত ছিল। নির্ধারিত মেয়াদপূর্তির পরও যদি গ্রীণ ডেল্টা হাউজিং প্রতিষ্ঠানটি ফ্ল্যাট হস্তান্তর করতে ব্যর্থ হয়, তবে পরিশোধ করা সমুদয় অর্থের উপর ১০ শতাংশ হারে গ্রাহককে ক্ষতিপূরণ প্রদান করবে।

“ফ্ল্যাট ক্রয়ের বুকিং মানিসহ ১২টি কিস্তিতে পরিশোধ করার শর্তে সম্পাদিত চুক্তি মোতাবেক আইএফআইসি ব্যাংক কক্সবাজার শাখায় গ্রাহকের নিজস্ব একাউন্ট থেকে এবং নগদে প্রতিষ্ঠানের কাছে ১৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা প্রদান করেন। কিন্তু গ্রাহকের নিকট ফ্ল্যাট হস্তান্তরের মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও প্রতিষ্ঠান এ্যাপার্টমেন্ট নির্মাণকাজও শুরু করেনি। অদ্যাবধি পর্যন্ত শুরু করা হয়নি প্রতিষ্ঠানের এ্যাপার্টমেন্ট নির্মাণকাজ।”

এ নিয়ে গ্রীণ ডেল্টা হাউজিং এন্ড ডেভেলমেন্ট (প্রা:) লিমিটেডের সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে গ্রাহক একাধিকবার যোগযোগ করে সদুত্তর না পাওয়ায় গত ২০১৪ সালে কক্সবাজার সদর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয় বলে জানান বাদী পক্ষের আইনজীবী।

তপু বলেন, “এ ব্যাপারে কক্সবাজার সদর থানায় গ্রীণ ডেল্টা হাউজিং এন্ড ডেভেলমেন্ট (প্রা:) লিমিটেডের কক্সবাজার অফিসের ইনচার্জ-১ জহিরুল ইসলাম চৌধুরী গ্রাহকের সঙ্গে ৩০০ টাকা মূল্যের জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে ‘বিরোধ নিষ্পত্তিপত্র’ সম্পাদন করেন। এতে ৩টি কিস্তির মাধ্যমে পরিশোধ করা সমুদয় অর্থের বিপরীতে ক্ষতিপূরণসহ গ্রাহকের ফেরত দেওয়ার শর্ত ছিল।”

প্রতিষ্ঠানটির সংশ্লিষ্টরা ‘বিরোধ নিষ্পত্তিপত্রের’ শর্তও ভঙ্গ করে দীর্ঘদিন ধরে টাকা আত্মসাত করায় গ্রাহক বিশ্বজিত পাল গত ২০১৫ সালের ২০ জুলাই কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-৪ এর নিকট নালিশী দরখাস্ত করেন বলে জানান বাদীর এ আইনজীবী।

এ নিয়ে ৩ বছর ধরে দীর্ঘ বিচারিক প্রক্রিয়া শেষে সাক্ষ্য-প্রমাণসহ আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হয়।

 

 

 

 

রাইজিংবিডি/কক্সবাজার/১২ জুলাই ২০১৮/সুজাউদ্দিন রুবেল/বকুল

Walton Laptop
 
     
Walton