ঢাকা, রবিবার, ২ আষাঢ় ১৪২৬, ১৬ জুন ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ওয়ানডের সেরা তারা, কিন্তু জিততে পারেননি বিশ্বকাপ

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৫-২৫ ৪:০১:৩৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৫-২৫ ৪:২১:৪৬ পিএম
Walton AC 10% Discount

ক্রীড়া ডেস্ক: বিশ্বকাপের ট্রফি জয় মোটেও সহজ কথা নয়। শচীন টেন্ডুলকারের কথাই একবার ভাবুন। ক্যারিয়ারের পাঁচটি বিশ্বকাপ খেলার পরও টেন্ডুলকার ছিলেন ট্রফিশূণ্য। অবশেষে ঘরের মাঠে ২০১১ সালে টেন্ডুলকার জেতেন স্বপ্নের শিরোপা। ক্যারিয়ারে একশটি আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরি করেছেন ভারতের ব্যাটিং ঈশ্বর। কিন্তু তার কাছে বিশ্বকাপের থেকে বড় কিছু নেই।

এমন ১০জন খেলোয়াড় আছেন যারা ওয়ানডে ক্রিকেটে সেরাদের সেরা। রঙিণ পোশাকে তাদের ব্যাট-বলের উত্তাপ একাধিকবার দেখেছে ক্রিকেট বিশ্ব। কিন্তু তাদের হাতে একবারও উঠেনি শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট। সেই ১০ জনকে নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করেছে রাইজিংবিডি’র ক্রীড়া বিভাগ।  আজ পড়ুন প্রথম পর্ব।

গ্রাহাম গুচ
ইংল্যান্ড এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপ জিততে পারেনি। পারেননি গ্রাহাম গুচও। হয়তো বিশ্বমঞ্চে এমন কোনো পারফরম্যান্স করতে পারেননি বলেই গুচ জিততে পারেনি শিরোপা। তিনটি ফাইনাল খেলার পরও গুচের আক্ষেপ হয়ে থাকবে বিশ্বকাপের শিরোপা। সবশেষ খেলেছিলেন ১৯৯২ বিশ্বকাপ। সেখানে ছিল পাকিস্তানের দাপট। ১৯৮৭’র বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে সেমিফাইনালে সেঞ্চুরি করেছিলেন। যা ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদের অন্যতম বিশ্বকাপের সেরা ইনিংস।কিন্তু ফাইনালে হাসতে পারেনি গুচ।লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে তার ২২,২১১ রান জ্বলজ্বল করে জ্বলছে। ৫০ ওভারের ফরম্যাটে তার থেকে বেশি রান করতে পারেননি কেউ। কিন্তু তার নামের পাশে নেই শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট। তার ২৪ বছরের ক্রিকেট ক্যারিয়ারে এটাই হয়তো সবথেকে বড় আক্ষেপ।

ইয়ান বোথাম
ইয়ান বোথাম ইংল্যান্ডের হয়ে দুটি বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলেছে। কিন্তু বোথাম জিততে পারেননি একটি বিশ্বকাপও। তার অলরাউন্ড নৈপুণ্য দিয়েও ইংল্যান্ড পায়নি শিরোপা। বোলিং ছিল তার সবথেকে শক্তির জায়গা। ৯২’র বিশ্বকাপে ১০ ম্যাচে ১৬ উইকেট নিয়ে রীতিমত আলোড়ণ সৃষ্টি করেছিলেন। দলকে তুলেছিলেন ফাইনালে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে বোথামের স্বপ্ন ভাঙে। ব্যাটিংয়ে লোয়ার অর্ডারে বোথাম যথটা কার্যকরী ছিলেন তার থেকে বেশি কার্যকরী ছিলেন টপ অর্ডারে। কিন্তু ওই পজিশনে ব্যাটিংয়ের সুযোগ কমই পেয়েছিলেন। তার যুগের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার ছিলেন বোথাম। কিন্ত একটি শিরোপার আক্ষেপ তার রয়েই গেছে।

ওয়াকার ইউনিস
আহ ইনজুরি!তাতেই সর্বনাশ। ক্রিকেট ইতিহাসের সর্বকালের সেরা ফাস্ট বোলারের একজন ওয়াকার ইউনিস। তার দল পাকিস্তান ১৯৯২ এর বিশ্বকাপ জিতেছিল। ওয়াকার ইউনিসের সুযোগ ছিল ওই দলে থাকার। কিন্তু ইনজুরির কারণে তার সুযোগটি হাতছাড়া হয়। এর থেকে বড় আফসোসের বিষয় আর কি হতে পারে। তার দায়িত্ব সামলে নেন ওয়াসিম আকরাম। দুজনের যুগলবন্দীতে পাকিস্তান ছিল ভয়ংকর। কিন্তু ওয়াকারের অভাব বুঝতে দেননি ওয়াসিম। সেবার সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী হয়ে শেষ করেছিলেন বিশ্বকাপ। ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ পাঁচ উইকেটের রেকর্ডটি তার দখলে। বোলিংয়ে তার বৈচিত্র্যের কমতি ছিল না। ডেডলি ইয়র্কার আর রিভার্স সুইংয়ে ওয়াকার ছিলেন অনন্য। কিন্তু ধ্রুপদী বোলিংও তাকে শিরোপা দিতে পারেননি। ১৯৯৯ বিশ্বকাপ ও ২০০৩ বিশ্বকাপেও ছিলেন ওয়াকার। উনবিংশ শতাব্দীর শেষ বিশ্বকাপে ফাইনালেই শিরোপা হারিয়েছিল পাকিস্তান। ২০০৩ সালের সেমিফাইনালে ভারতের কাছে হেরেছিল পাকিস্তান। হেরেছিল ওয়াকার। সেটাই ছিল তার ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ।

সৌরভ গাঙ্গুলী
১৯৯৯ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত তিনটি বিশ্বকাপ খেলেছেন সৌরভ গাঙ্গুলী। ২০০৭ সালে বাংলাদেশের কাছে হেরে গাঙ্গুলীরা তো বিদায় নিয়েছিল গ্রুপ পর্ব থেকে। ২০০৩ সালে তার হাত ধরেই ভারত খেলেছিল ফাইনাল।  সেবার তিন সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন গাঙ্গুলী। অধিনায়ক হিসেবে যা এখনও রেকর্ডবুকের শীর্ষে। কিন্তু অতসব অর্জনের ভেতরে গাঙ্গুলী হারিয়েছেন সবথেকে বড় ট্রফি। জোহানেসবার্গের ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার দাপটে স্রেফ উড়ে গিয়েছিল গাঙ্গুলীরে শিরোপার স্বপ্ন। বিশ্বকাপে ২২ ম্যাচে ৫৫.৮৮ গড়ে ১০০৬ রান করা গাঙ্গুলীর শিরোপা আক্ষেপ হয়তো থেকে যাবে আজীবন।

ব্রায়ান লারা
ক্রিকেটের বরপুত্র ব্রায়ান লারার টেস্ট রেকর্ডের কথা তো সবারই জানা। আর ওয়ানডের কথা যদি বলতে হয় তাহলে বলা যায়, ওয়ানডেতে লারা ছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের এক ও অনন্য পারফরর্মার। ওয়ানডেতে এখনও  সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকদের তালিকায় রয়েছে লারার নাম। ক্রিকেট বিশ্বের খুব কম খেলোয়াড় তার আগে রঙিণ পোশাকে তুলেছে ১০ হাজার রান।  ২৯৯ ওয়ানডেতে ১৫০ রানের বেশি ইনিংস খেলেছেন তিনটি। ব্যক্তিগত অর্জনের ঝুলি পুরো টইটুম্বুর। কিন্ত বিশ্বকাপ তার কাছে থেকে গেছে অধোরা।  ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম দুই আসরের পর শিরোপার স্বাদ পায়নি।  লারা পাঁচটি বিশ্বকাপে মোট ম্যাচ খেলেছেন ৩৪টি।  ৪২.২৪ গড়ে রান করেছেন ১২২৫।  বিশ্বমঞ্চে তার পারফরম্যান্স ততোটা উজ্জ্বল হয়নি বলেই শিরোপার স্বাদ পাওয়া হয়নি।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৫ মে ২০১৯/ইয়াসিন

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge