ঢাকা, শনিবার, ৬ কার্তিক ১৪২৪, ২১ অক্টোবর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

সূচকের উত্থানেও লেনদেন কমেছে গত সপ্তাহে

আশিক : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৮-১২ ৮:৪৬:৩৬ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৮-১২ ১০:৫৬:৫৮ এএম

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সমাপ্ত সপ্তাহে সব ধরনের মূল্য সূচক বাড়লেও কমেছে লেনদেন। আলোচ্য সপ্তাহে লেনদেন কমেছে ৪৪২ কোটি ৪৭ লাখ টাকার। তবে আলোচ্য সপ্তাহে ডিএসইতে সার্বিক মূল্য আয় অনুপাত (পিই রেশিও) বেড়েছে।

জানা গেছে, গত সপ্তাহে ৪ হাজার ৮৭৯ কোটি ৪৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। যা এর আগের সপ্তাহে ছিল ৫ হাজার ৩২১ কোটি ৯২ লাখ টাকার শেয়ার। সেই হিসাবে গত সপ্তাহে লেনদেন কমেছে ৪৪২ কোটি ৪৭ লাখ টাকার বা ৮ দশমিক ৩১ শতাংশ।

গত সপ্তাহের শেষ দিন বৃহস্পতিবার ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৫২ দশমিক ১০ শতাংশ কোম্পানির দর পতন হয়। তবুও বৃহস্পতিবার সর্বোচ্চ বাজার মূলধনের রেকর্ড গড়ে। দিন শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন ৩ লাখ ৯৭ হাজার ৩১৮ কোটি টাকা অতিক্রম করে। যা ২০১০ সালের অতিমূল্যায়িত্ব বাজারের মূলধনের তুলনায় ২৯ হাজার ২৪৬ কোটি টাকা বেশি।

সমাপ্ত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮৮ দশমিক ৯৫ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ৩ দশমিক ২০ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৬ দশমিক ৫৫ শতাংশ। ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন হয়েছে ১ দশমিক ৩১ শতাংশ।

ডিএসই ব্রড ইনডেক্স বা ডিএসইএক্স সূচক বেড়েছে দশমিক ৩৬ শতাংশ বা ২১ দশমিক ৩৬ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই৩০ সূচক বেড়েছে দশমিক ১২ শতাংশ বা ২ দশমিক ৬০ পয়েন্ট। অপরদিকে, শরিয়াহ বা ডিএসইএস সূচক বেড়েছে দশমিক ২২ শতাংশ বা ২ দশমিক ৯১ পয়েন্টে।

সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ৩৩৫টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১২৯টি কোম্পানির, কমেছে ১৮৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২০টির। আর লেনদেন হয়নি একটি কোম্পানির শেয়ার।

এদিকে, ডিএসইতে আগের সপ্তাহের চেয়ে পিই রেশিও বেড়েছে শূন্য দশমিক ৫০ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে ডিএসইতে পিই রেশিও অবস্থান করছে ১৬ দশমিক ২৩ পয়েন্টে। এর আগের সপ্তাহে ডিএসইর পিই রেশিও ছিল ১৬ দশমিক ১৫ পয়েন্ট। সে হিসাবে সাপ্তাহিক ব্যবধানে পিই রেশিও বেড়েছে শূন্য দশমিক ০৮ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৫০ শতাংশ।

বিশ্লেষণে দেখা যায়, ব্যাংক খাতের পিই রেশিও অবস্থান করছে ১০ দশমিক ৯৭  পয়েন্টে, আর্থিক খাতের ২১ দশমিক ১৪ শতাংশ,  প্রকৌশল খাতের ২৩ দশমিক ৩৬ পয়েন্টে, খাদ্য ও আনুষাঙ্গিক খাতের ২৪ দশমিক ৬০ পয়েন্টে, জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে ১৩ দশমিক ৯৭ পয়েন্টে, পাট খাতের পিই রেশিও ৩০৮ দশমিক ৭৫ পয়েন্টে, বস্ত্র খাতের ২০ দশমিক ১৩ পয়েন্টে, ওষুধ ও রসায়ন খাতের ২০ দশমিক ০২ পয়েন্টে, কাগজ খাতের মাইনাস ৭০ দশমিক ৪২ পয়েন্টে, ভ্রমণ ও অবকাশ খাতের ২৯ দশমিক ৩৭ পয়েন্ট, সেবা ও আবাসন খাতের ১৪ দশমিক ২৬ পয়েন্টে, সিমেন্ট খাতের ৩৭ দশমিক ৩৩ পয়েন্টে, তথ্য ও প্রযুক্তি খাতে ৩০ দশমিক ৭৬ পয়েন্টে, চামড়া খাতের ২৬ দশমিক ০৯ পয়েন্টে, সিরামিক খাতের ২৩ দশমিক ৫৩ পয়েন্টে, সাধারণ বিমা খাতে ১৬ দশমিক ৫৭ পয়েন্টে, বিবিধ খাতের ২৮ দশমিক ৮৮ পয়েন্টে, টেলিযোগাযোগ খাতে ১৮ দশমিক ২৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

দেশের অপর শেয়ার বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সেচঞ্জে (সিএসই) গত সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ২৯৩ কোটি ২৬ লাখ টাকার শেয়ার। তবে সার্বিক সূচক বেড়েছে দশমিক ৩৯ শতাংশ।

সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ২৮৭টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১০৬টি কোম্পানির, কমেছে ১৭০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১১টির।

 

 



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ আগস্ট ২০১৭/আশিক/এসএন

Walton
 
   
Marcel