ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩ কার্তিক ১৪২৪, ১৯ অক্টোবর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

প্রস্তুতি ম্যাচেও বাংলাদেশের হতাশার ব্যাটিং

আবু হোসেন পরাগ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-১০-১২ ৬:২৭:৫৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১০-১২ ১০:৫৪:১৪ পিএম
ফিরেই দলের মান বাঁচিয়েছেন সাকিব আল হাসান (ফাইল ছবি)

ক্রীড়া প্রতিবেদক : দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে দুই টেস্টেই ব্যাটিং ব্যর্থতা ডুবিয়েছে বাংলাদেশকে। টেস্ট সিরিজ পেছনে ফেলে এলেও ব্যাটিং ব্যর্থতা বাংলাদেশের পিছু ছাড়েনি। ওয়ানডে সিরিজের আগে আজ ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা আমন্ত্রিত একাদশের বিপক্ষে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে পুরো ৫০ ওভারও ব্যাটিং করতে পারেনি সফরকারীরা। ১১ বল বাকি থাকতে অলআউট হয়েছে ২৫৫ রানে।

তবুও যে ২৫৫ রান হয়েছে, সেটা সাকিব আল হাসানের কল্যাণে। টেস্ট সিরিজে তিনি বিশ্রামে ছিলেন। খেলবেন রঙিন পোশাকের ক্রিকেটে। আজ দলের মান বাঁচিয়েছেন সাকিবই। ইনিংস সর্বোচ্চ ৬৮ রান এসেছে তার ব্যাট থেকেই। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫২ রান করেছেন সাব্বির রহমান। পঞ্চাশ ছুঁতে পারেননি আর কেউই!

দুই টেস্টেই টস জিতে বোলিং নিয়েছিলেন মুশফিকুর রহিম। এ নিয়ে সমালোচনাও কম হয়নি। ব্লুমফন্টেইনে আজ ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা অবশ্য ভুল করেননি, টস জিতে ব্যাটিংই বেছে নিয়েছেন। কিন্তু আবার ব্যর্থ বাংলাদেশের টপ অর্ডার। দ্বিতীয় টেস্টে ব্যর্থ সৌম্য সরকার হতাশ করেছেন প্রস্তুতি ম্যাচেও। বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ১৩ বলে করেছেন ৩ রান।

তামিম ইকবাল প্রস্ততি ম্যাচে খেলবেন না, এটা জানা গিয়েছিল আগেই। তার জায়গায় খেলা আরেক ওপেনার ইমরুল কায়েস শুরুটা করেছিলেন ভালোই। কিন্তু ইনিংস বড় করতে পারেননি। ৩১ বলে ৬ চারে করেছেন ২৭। অষ্টম ওভারে রবি ফ্রাইলিংকের পরপর দুই বলে ফিরেছেন সৌম্য-ইমরুল। বাংলাদেশের সংগ্রহ তখন ২ উইকেটে ৩১!

জোড়া ধাক্কার পর দলকে কিছুটা টেনে নিয়েছিলেন লিটন দাস ও মুশফিকুর রহিম। কিন্তু দলের স্কোর পঞ্চাশ পার হওয়ার পর আবার জোড়া ধাক্কা। পরপর দুই ওভারে ফিরে যান লিটন (৮) ও মুশফিক (২২)। ৬৩ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে তখন ভীষণ চাপে দল।

এরপর মাহমুদউল্লাহকে সঙ্গে নিয়ে দলের হাল ধরেন সাকিব। একশর আগে আর কোনো উইকেট পড়তে দেননি দুজন। দলের ১২০ রানে মাহমুদউল্লাহ এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন ব্যক্তিগত ২১ রানে।

এরপরই ইনিংস সর্বোচ্চ ৭৬ রানের জুটিটা এসেছে সাকিব ও সাব্বিরের ব্যাটে। দুজন যেভাবে খেলছিলেন তাতে এক সময় তিনশ দূরের পথ বলেও মনে হচ্ছিল না। কিন্তু সাকিবের বিদায়ে এ জুটি ভাঙার পরই আবার পথ হারায় বাংলাদেশ। ৫৯ রানে শেষ ৫ উইকেট হারিয়ে ৪৮.১ ওভারেই অলআউট হয়ে যায় সফরকারীরা।

দলে ফেরা নাসির হোসেন ২৩ বলে করেছেন ১২। অধিনায়ক মাশরাফি ১৩ বলে একটি করে চার ও ছক্কায় ১৭ না করলে বাংলাদেশের আড়াইশও হতো কি না সন্দেহে! পেস অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ১৩ রানে অপরাজিত ছিলেন।

সাকিব ৬৭ বলে ৯ চারে ৬৮ রানের ইনিংসটা সাজিয়েছেন। আর সাব্বিরের ৫৪ বলে ৫২ রানের ইনিংসে ২টি চারের সঙ্গে ছিল ৩টি ছক্কার মার। দক্ষিণ আফ্রিকা আমন্ত্রিত একাদশের হয়ে চারজন বোলার নিয়েছেন ২টি করে উইকেট।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ অক্টোবর ২০১৭/পরাগ

Walton
 
   
Marcel