ঢাকা, সোমবার, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২০ নভেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

রিটার্ন দাখিলের সময় বাড়বে না, শেষ দিন ৩০ নভেম্বর

এম এ রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-১০-১৪ ৪:৩৭:০১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১০-২৪ ৬:৫১:৫২ পিএম

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : বিগত বছরের ধারাবাহিকতায় আয়কর রিটার্ন দাখিলের সময় আর বাড়নো হচ্ছে না। কোম্পানি ব্যতীত অন্যান্য সব করদাতার জন্য ২০১৭-১৮ অর্থবছরের আয়কর রিটার্ন দাখিলের শেষ দিন ৩০ নভেম্বর।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা সৈয়দ এ মু’মেন রাইজিংবিডিকে এ তথ্য জানিয়ে বলেন, বিগত বছরের ধারাবাহিকতায় রিটার্ন দাখিলের সময় আর বাড়বে না। শেষদিকে রিটার্ন দাখিলে অনেক ভিড় হয়, ফলে করসেবা পেতেও অসুবিধা হয়। ভিড় এড়ানোর জন্য আগেভাগেই করদাতাদের বলব রিটার্ন দাখিল করে সঙ্গে সঙ্গে রিটার্নের প্রাপ্তি স্বীকারপত্রটি বুঝে নিতে।

এ বিষয়ে এনবিআর থেকে আরো জানানো হয়েছে, দেশের উন্নয়নের জন্য যে রাজস্ব প্রয়োজন তার বড় অংশ আসে আয়কর থেকে। সে হিসেবে একজন করদাতা দেশের উন্নয়নের গর্বিত অংশীদার। কোম্পানি ব্যতীত অন্য সব করদাতার জন্য এ বছরের আয়কর রিটার্ন দাখিলের শেষ দিন ৩০ নভেম্বর । বিগত বছরের ধারাবাহিকতায় রিটার্ন দাখিলের সময় আর বাড়বে না।

৩০ নভেম্বরের মধ্যে রিটার্ন দাখিল না করলে জরিমানা ও বিলম্ব সুদ আরোপযোগ্য হবে। রিটার্ন দাখিলে আইনি বাধ্যবাধকতা রয়েছে এমন কেউ রিটার্ন দাখিলে ব্যর্থ হলে কর আইন ভঙ্গ হবে।

১৯৮৪ সালের আয়কর অধ্যাদেশ ১২৪ ধারায় বলা হয়েছে, কোনো করদাতা যদি কোনো কারণ ছাড়াই নির্দিষ্ট সময়ে রিটার্ন দাখিল না করেন, আবার এজন্য অনুমোদনও না নেন, সেজন্য তার পূর্ববর্তী বছর প্রদেয় করের ১০ শতাংশ বা ১ হাজার টাকার মধ্যে যেটি বড় অংক- ওই পরিমাণ অর্থ জরিমানা হবে। সেই সঙ্গে যতদিন দেরি হবে, প্রতিদিনের জন্য ৫০ টাকা হারে বাড়তি জারিমানা গুনতে হবে। এমনকি এক বছর পর্যন্ত জেল অথবা অর্থদণ্ড অথবা উভয় শাস্তির বিধান রয়েছে।

এনবিআরের সর্বশেষ হিসেবে ইলেক্ট্রনিক কর শনাক্তকরণ নম্বরধারী (ই-টিআইএন) করদাতার সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে গেছে। যার মধ্যে মাত্র ১২ লাখ করদাতা আয়কর রিটার্ন দাখিল করেন।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৪ অক্টোবর ২০১৭/এম এ রহমান/মুশফিক

Walton
 
   
Marcel