ঢাকা, শুক্রবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৫ মে ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

বাণিজ্য মেলায় ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিনে ৭ শতাংশ ছাড়

নাসির উদ্দিন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০১-১৪ ৮:৩৮:২৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০১-১৫ ১১:০৪:০৯ এএম

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : বলা হয়ে থাকে- আগে দর্শনধারী, পরে গুণবিচারি। এই দর্শন বা দেখার ক্ষেত্রে একজন মানুষের ব্যক্তিত্ব ফুটে ওঠে তার পোশাকে। অতএব পরণের কাপড়টি হওয়া চাই পরিষ্কার এবং পরিপাটি।

কিন্তু কর্মব্যস্ততার কারণে নিয়মিত কাপড় ধোয়া সবার পক্ষে সব সময় সম্ভব হয় না। কাপড় ধোয়া এবং শুকানো অনেকেরই কাছে যেমন বিরক্তিকর, তেমনই কাজটি সময়সাপেক্ষ।

তাই কর্মব্যস্ততার মধ্যেও পোশাকের যত্ন নেওয়ার ক্ষেত্রে সহজ সমাধান হলো ওয়াশিং মেশিন।

উন্নত বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে দেশেই তৈরি হচ্ছে বিশ্বমানের ওয়াশিং মেশিন। সাশ্রয়ী মূল্যে উচ্চ গুণগত মানের ওয়াশিং মেশিন তৈরি করছে দেশের শীর্ষস্থানীয় ইলেকট্রনিক্স, ইলেকট্রিক্যাল ও হোম অ্যাপ্লায়েন্স পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন। প্রতিষ্ঠানটি দেশের আবহাওয়া উপযোগী, টেকসই এবং দেশের মানুষের রুচি-পছন্দের বিষয়টি বিবেচনা করে ওয়াশিং মেশিন প্রস্তুত করছে।

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা হচ্ছে ক্রেতা ও দর্শনার্থীদের মিলন মেলা। এ মেলা উপলক্ষে ক্রেতাদের চাহিদা বিবেচনায় ওয়ালটন সকল মডেলের ওয়াশিং মেশিনের ওপর ৭ শতাংশ মূল্যছাড় দিচ্ছে। এছাড়াও রয়েছে লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার অফার।



ওয়ালটনের স্মল অ্যাপ্লায়েন্সেসের প্রোডাক্ট ম্যানেজার মাশরুর হাসান বলেন, ওয়ালটন বর্তমানে ফুল অটো টপ লোডিং, ফুল অটো ফ্রন্ট লোডিং ও সেমি অটো মডেলের ওয়াশিং মেশিন বাজারজাত করছে।

ফুল অটো টপ লোডিং মডেলের মধ্যে রয়েছে- WWM-WA85S, WWM-Q80 ও WWM-X70। যা সর্বনিম্ন ৬ থেকে সর্বোচ্চ ৮ কেজি ধারণক্ষমতা সম্পন্ন। এসব ওয়াশিং মেশিন যথাক্রমে ২০ হাজার ৫০০ টাকা, ২৬ হাজার টাকা এবং ২৩ হাজার ৫০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। প্রতিটি মডেলের সাথে ৭ শতাংশ মূল্যছাড় পাচ্ছেন ক্রেতারা।

ফুল অটো ফ্রন্ট লোডিং মডেলের মধ্যে রয়েছে- WWM-S70F ও WWM-S80F। এসবের দাম যথাক্রমে ৩৪ হাজার ও ৪৫ হাজার টাকা। এসব ওয়াশিং মেশিন ৭ থেকে ৮ কেজি ধারণক্ষমতা সম্পন্ন।

সেমি অটো মডেলের মধ্যে রয়েছে- WWM-WA85S ও WWM-SK65S। সাড়ে ৬ থেকে সাড়ে ৭ কেজি ধারণক্ষমতা সম্পন্ন এসব ওয়াশিং মেশিনের দাম ১৫ ও ১৪ হাজার টাকা।

মাশরুর হাসান বলেন, বাজারের অন্যান্য ওয়াশিং মেশিনের প্রচলিত সব সুবিধার বাইরেও ওয়ালটনের অটোমেটিক ওয়াশিং মেশিনের বেশ কিছু বিশেষ সুবিধা আছে। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো এর অটো ব্যালেন্স ফাংশন। ওয়াশিং মেশিন স্থাপনের সময় বা কাপড় ধোয়ার সময় যদি ভারসাম্য ঠিক না থাকে, তবে সেটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভারসাম্য ঠিক করে নেয়। যদি সেটা না হয়, হবে অ্যালার্ম বেজে ওঠে, যাতে ব্যবহারকারী মেশিনটি সঠিকভাবে বসাতে পারেন। মেশিনে রয়েছে ফাজি লজিক সুবিধা। অর্থাৎ কাপড়ের পরিমাণ অনুযায়ী কতটুকু পানি লাগবে, কত সময় ধরে চলতে হবে ইত্যাদি বিষয়গুলো নিজেই সেট করে নেয়। এতে আছে কুইক ওয়াশ ফিচার অপশন। ব্যবহারকারীর তাড়া থাকলে বা কম সময়ে কাপড় ধুতে চাইলে তিনি কুইক ওয়াশ ফিচার ব্যবহার করতে পারেন। এর মাধ্যমে তিনি স্বাভাবিকের চেয়ে অর্ধেক সময়ে কাপড় পরিষ্কার করতে পারবেন। মেশিন কাপড় ধোয়া শেষে পানি ঝরিয়ে কাপড় শুকিয়েও দেয়।



এদিকে সেমি অটোমেটিক মেশিনে কাপড় ধোয়ার সময় ব্যবহারকারীকে নির্দিষ্ট পরিমাণ পানি দিতে হয়। এই মেশিনও কাপড় ধোয়ার পর পানি ঝরিয়ে শুকিয়ে দেয়।

এছাড়া ওয়ালটনের সব মডেলের ওয়াশিং মেশিনের আছে আলাদা লিন্ট ফিল্টার অপশন। কাপড় থেকে সেসব তুলা বা সুতা ওঠে, সেটা লিন্ট ফিল্টার নামের একটি আলাদা বক্সে এসে জমা হয়। এর ফলে এসব অতিরিক্ত জিনিস পানি বের হওয়ার পাইপে আটকে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে না। লিন্ট ফিল্টারটি কিছুদিন পর পর পরিষ্কার করলেই হয়।

ওয়ালটনের সব ধরনের ওয়াশিং মেশিনের ওপরের ঢাকনায় টেম্পারড গ্লাস ব্যবহার করা হয়েছে। ফলে এই ঢাকনা অনেক বেশি টেকসই। তাছাড়া ব্যবহার করা হয়েছে ড্যাম্পিং ফাংশন। ফলে ওপর থেকে ঢাকনা ছেড়ে দিলে মেশিনের গায়ে আঘাত না করে ধীরে ধীরে নেমে আসে। যা ঢাকনা ও মেশিনের বডিকে দেয় দীর্ঘস্থায়িত্বের নিশ্চয়তা।

এদিকে মেলায় বিক্রি প্রসঙ্গে ওয়ালটন প্যাভিলিয়ন ইনচার্জ শফিকুল আলম বলেন, মেলার প্রথম থেকেই ওয়ালটনের প্যাভিলিয়ন ক্রেতাদের অনেক ভিড়। বিক্রয়ও হচ্ছে আশানুরূপ। ক্রেতাদের কাছ থেকে এবারের মেলায় অভাবনীয় সাড়া পেয়েছি। বিক্রির দিক থেকে এগিয়ে রয়েছে মোবাইল, ফ্রিজ, ওয়াশিং মেশিন, এলইডি টিভি, রুম হিটার, ল্যাপটপ ইত্যাদি।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৪ জানুয়ারি ২০১৮/নাসির/রফিক

Walton Laptop
 
   
Walton AC