ঢাকা, বুধবার, ৬ আষাঢ় ১৪২৫, ২০ জুন ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

‘এডিআর নিয়ে ব্যাংক খাতে অহেতুক প্যানিক’

নাসির উদ্দিন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০২-১৭ ৭:৫৬:০৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০২-১৭ ৭:৫৬:০৪ পিএম

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির বলেছেন, ‘ব্যাংকের ঋণ-আমানত অনুপাত বা এডিআর কমানোর কারণে ব্যাংক খাতে প্যানিক সৃষ্টি হয়েছে। এর কোনো কারণ আমি দেখছি না। এটি অত্যন্ত অমূলক আশঙ্কা।’

শনিবার রাজধানীর হোটেল লা মেরিডিয়ানে অগ্রণী ব্যাংকের বার্ষিক ব্যবসায়িক সম্মেলনে এ কথা বলেন গভর্নর।

গভর্নর বলেন, ‘এডিআর কমানোর কারণে এখন সামগ্রিক ব্যাংক খাতে ১১ হাজার কোটি টাকা অতিরিক্ত ঋণ আছে। এর মধ্যে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক, বেসিক ব্যাংক এবং ফার্মাস ব্যাংকের আছে প্রায় ৬ হাজার কোটি টাকা।’

তিনি বলেন, ‘অনেক বেসরকারি ব্যাংক আগ্রাসী ঋণ প্রদান করছিল এবং ন্যূনতম পরিমাণ ক্রেডিট ছিল না। এজন্য অ্যাডজাস্টমেন্ট করেছি। যাতে করে একটি ক্রেডিট নিয়মের মধ্যে নিয়ে আসা যায়।’

বেসরকারি ব্যাংকগুলো তথ্য লুকাচ্ছে উল্লেখ করে গভর্নর আরো বলেন, ‘এডিআর ৮৩ দশমিক ৫ শতাংশ হওয়ায় তারা বলছে ডিপোজিট অনেক বেশি ফল (হ্রাস) করছে। ডিপোজিট অনেক বেশি বাড়াতে হবে রেশিও ঠিক করার জন্য, সেটাও ঠিক নয়। কারণ ১১ হাজার কোটি টাকার মতো এডি রেশিওর ওপরে আছে। তাদের মধ্যে কৃষি ব্যাংক, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক, বেসিক ব্যাংক এবং ফার্মাস ব্যাংক এ চারটি প্রতিষ্ঠানের প্রায় ৬ হাজার কোটি টাকা।’

উল্লেখ্য, গত ৩০ জানুয়ারি ব্যাংকের ঋণ-আমানত অনুপাত বা এডিআর নির্ধারণ করে দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। প্রচলিত ধারার ব্যাংকের জন্য অগ্রীম-আমানত হার সর্বোচ্চ ৮৩ দশমিক ৫০ শতাংশ এবং ইসলামী শরিয়াহভিত্তিক ব্যাংক এবং প্রচলিত ধারার ব্যাংকের ইসলামী ব্যাংকিং কার্যক্রমের জন্য বিনিয়োগ-আমানত হার বা এডিআর সর্বোচ্চ ৮৯ শতাংশ নির্ধারণ করে দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/নাসির/সাইফুল

Walton Laptop