ঢাকা, সোমবার, ৩ পৌষ ১৪২৫, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

করসেবায় সন্তুষ্ট মুক্তিযোদ্ধা ও সিনিয়র সিটিজেনরা

এম এ রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-১১-১৫ ৪:২৪:২১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১১-১৫ ৪:২৪:২১ পিএম

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : দেশের উন্নয়নে সক্রিয়ভাবে অংশ নিতে এগিয়ে আসা বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সিনিয়র সিটিজেনরা আয়কর মেলায় করসেবা নিচ্ছেন অনেক স্বাচ্ছন্দ্যে।

আয়কর মেলায় অন্যান্য বুথে করদাতাদের দীর্ঘ লাইন চোখে পড়লেও মুক্তিযোদ্ধা ও সিনিয়র সিটিজেন বুথ ছিল অনেকটাই ফাঁকা। সাধারণ করদাতাদের মতো তারাও ব্যাপক উৎসাহ নিয়ে এসেছেন। মেলায় হয়রানিমুক্তভাবে সেবা পেয়ে তারা বেশ খুশি।

রাজধানীর অফিসার্স ক্লাবে নবম বারের মতো আয়োজিত আয়কর মেলার তৃতীয় দিনে মেলা প্রাঙ্গণে মুক্তিযোদ্ধা-সিনিয়র সিটিজেন বুথে এমন দৃশ্যই চোখে পড়ে। মুক্তিযোদ্ধা ও সিনিয়র সিটিজেনরা উৎসাহ নিয়ে কর দিচ্ছেন। কর দিতে পেরে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছেন।

কর দিতে আসা মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম বলেন, দেশের উন্নয়নের স্বার্থে আমরা আয়কর দিচ্ছি। একসময় যুদ্ধ করেছি, এখন দেশ গড়ার কাজে অংশ নিচ্ছি। দেশের উন্নয়নের স্বার্থে সবাইকে কর দেওয়ার আহ্বান জানাই।

এ বিষয়ে আয়কর মেলার আহ্বায়ক ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য (কর প্রশাসন ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা) জিয়া উদ্দিন মাহমুদ বলেন, ‘মেলায় আমরা মুক্তিযোদ্ধা ও সিনিয়র সিটিজেনদের জন্য আলাদা বুথের ব্যবস্থা রেখেছি। মেলায় এসে তারা উৎসাহ নিয়ে কর প্রদান করছে। মেলায় আয়কর রিটার্ন দাখিল, আয়কর গণনা, রিটার্নের প্রাপ্তি স্বীকারপত্র, ট্যাক্স জমা দেওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে।’

অপর মুক্তিযোদ্ধা মো. ইয়াকুব বলেন, স্বাচ্ছন্দ্যে কর দিতে পেরে বেশি ভালো লাগছে। এনবিআরকে ধন্যবাদ।

মুক্তিযোদ্ধা বুথের কর্মরত এনবিআরের কর্মকর্তা খান মো. জাহাঙ্গীর বাবুল বলেন, ‘আয়কর মেলার তৃতীয় দিনে দুপুর পর্যন্ত রিটার্ন দাখিল করেছেন পৌনে চার শ’র মতো মুক্তিযোদ্ধা করদাতা। তারা বেশ আনন্দের সঙ্গে কর দিয়েছেন।

কর দিতে আসা সিনিয়র সিটিজেন জামিল হোসেন বলেন, ‘প্রতিবারের মতো এবারও কর দিয়েছি। যতদিন বেঁচে আছি সরকারকে কর দেব। এটা আমার দায়িত্ব মনে করি।’

সিনিয়র সিটিজেন বুথে কর্মরত এনবিআরের কর্মকর্তা আবুল বাসার বলেন, ‘আয়কর মেলার দুই দিনে রিটার্ন দাখিল করেন চার শ’ সিনিয়র সিটিজেন। অবশ্য মেলার প্রথম দিন মঙ্গলবার রিটার্ন দাখিল করেছেন ১৫০ জন এবং বুধবার ২৮৩ জন।

এনবিআর জানায়, সাধারণ করদাতাদের আয়সীমা আড়াই লাখ টাকা। কিন্তু মুক্তিযোদ্ধাদের ক্ষেত্রে সেই সীমা ৪ লাখ ২৫ হাজার টাকা। সিনিয়র সিটিজেনদের (৬৫ বছরের ঊর্ধে)  আয়সীমা ৩ লাখ টাকা।

ঢাকাসহ বিভাগীয় শহর, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে গত মঙ্গলবার শুরু হয়েছে সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলা। এবার ১৭৪টি স্থানে আয়কর মেলা হচ্ছে। প্রতিদিন মেলা সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলবে।

রাজধানীর অফিসার্স ক্লাবে গত ১৩ নভেম্বর মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৫ নভেম্বর ২০১৮/এম এ রহমান/রফিক

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC