ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

আয়কর মেলায় ৩ দিনে হাজার কোটি টাকার বেশি আদায়

এম এ রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-১১-১৫ ৮:২১:৫২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১১-১৫ ৮:২৫:১০ পিএম

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলার প্রথম তিন দিনে ১ হাজার ১৪ কোটি ৪০ লাখ ৬৭ হাজার ২৭৯ টাকা আদায় হয়েছে। যা ২০১৭ সালের আয়কর মেলার একই সময়ের চেয়ে ৩.০২ শতাংশ বেশি।

মেলায় এ পর্যন্ত সেবা নিয়েছেন ৬ লাখ ১১ হাজার ৬০৯ জন। গত বছর প্রথম তিন দিনে ৩ লাখ ৯৬ হাজার ৬৩১ জন সেবা নিয়েছিলেন। এক্ষেত্রে প্রবৃদ্ধি ৫৪.২০ শতাংশ। রিটার্ন দাখিল করেছেন ১ লাখ ৮৫ হাজার ৪৯৪ জন এবং ই-টিআইএন দাখিল করেছেন ১৫ হাজার ৭৬৪ জন।

তৃতীয় দিনে মোট আয়কর সংগ্রহ হয়েছে ২৪৪ কোটি ৮২ লাখ ২৬৯ হাজার ৮৩৩ টাকা। যা ২০১৭ সালের তৃতীয় দিনের তুলনায় ৪.৯০ শতাংশ বেশি। ২০১৭ সালের আয়কর মেলায় তৃতীয় দিন আদায় করা হয় ২৩৩ কোটি ৩৯ লাখ ৫৯ হাজার ৭১৪ টাকা।

মেলার দ্বিতীয় দিনে আয়কর আদায় হয় ৫৫১ কোটি ১৫ লাখ ২০ হাজার ৩৯৮ টাকা। প্রথম দিনে আদায় হয় ২১৮ কোটি ৪২ লাখ ৭৭ হাজার ৪৮ টাকা।

মেলার তৃতীয় দিনে সারা দেশে করদাতাদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ ও ব্যাপক সাড়া মিলেছে। আজ দেশের ৮টি বিভাগ, ৫১ টি জেলা এবং ১৮ টি উপজেলাসহ মোট ৭৭টি স্থানে আয়কর মেলা হয়েছে।

মেলার পরিধি গতবছরের চেয়ে কয়েক গুণ বৃদ্ধি করা হয়েছে। মেলা প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলবে। মেলায় আয়কর রিটার্ন দাখিল, ই-টিআইন গ্রহণ (নতুন ও পুরাতন), ই-পেমেন্ট, ই-ফাইলিং, ই-পেমেন্টের ব্যবস্থা রয়েছে। মেলায় আসা মুক্তিযোদ্ধা, নারী, প্রতিবন্ধী ও প্রবীণ করদাতাদের জন্য রয়েছে আলাদা বুথ। মেলায় করদাতাদের যাতায়াতের সুবিধার জন্য রাজধানীর টিএসসি, রামপুরা, বেইলি রোড, মতিঝিল, মিরপুর ও উত্তরা থেকে ১৫টি শাটল বাস নিয়োজিত রয়েছে।

আজ মেলায় বাড়তি আকর্ষণ যোগ করে শিক্ষার্থীদের নিয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠান কর শিক্ষণ ফোরাম। কর শিক্ষণ ফোরামের আওতায় বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা মেলা পরিদর্শন ও কর বিষয়ে ধারণা লাভ করেন। কর বিষয়ে ধারণা লাভের পর কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। এর অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার মেলার তৃতীয় দিন বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৬ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। তাদের নিয়ে কুইজ প্রতিযোগিতা হয়।

প্রতিযোগিতায় ১০ জন শিক্ষার্থীকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। কুইজে বিজয়ী প্রথম তিন শিক্ষার্থীকে পুরস্কার হিসেবে প্রাইজবন্ড, সনদপত্র ও বই দেওয়া হয়। এছাড়া, বিজয়ী ১০ শিক্ষার্থীকে সনদপত্র ও বই দেওয়া হয়। পাশাপাশি বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়কে সনদপত্র দেওয়া হয়। শিক্ষার্থীদের মাঝে সনদপত্র ও পুরস্কার বিতরণ করেন এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূইয়া।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কম্পট্রলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল মোহাম্মদ মুসলিম চৌধুরী ।

অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের রাষ্ট্রের সুনাগরিক ও ভবিষ্যৎ করদাতা, উল্লেখ করে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, কর প্রদান করা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। এর মাধমে সামাজিক ন্যায়বিচার ও সমতা প্রতিষ্ঠিত হয়। দেশের উন্নয়নের অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রা সচল রাখতে পর্যাপ্ত পরিমাণ রাজস্ব প্রয়োজন। এজন্য আমাদেরকে বেশি বেশি করে কর দিতে হবে। কর প্রদান করাটা একটা বড় গর্বের বিষয়, বড় আনন্দের বিষয়। এনবিআরের আয়কর মেলা যার উৎকৃষ্ট উদাহরণ।

অনুষ্ঠানে এনবিআর সদস্য (কর প্রশাসন ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা) জিয়া উদ্দিন মাহমুদসহ কর বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।     



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৫ নভেম্বর ২০১৮/এম এ রহমান/রফিক

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC