ঢাকা, সোমবার, ৪ আষাঢ় ১৪২৬, ১৭ জুন ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ওয়ালটন কর্পোরেট অফিসে মে দিবস উদযাপন

অগাস্টিন সুজন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৫-০৪ ১০:২৫:১৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৫-০৪ ১০:৩৫:১৯ পিএম
Walton AC 10% Discount

নিজস্ব প্রতিবেদক : মহান মে দিবস। বিশ্বজুড়ে দিনটি পালিত হয় শ্রমিকের অধিকার আদায়ের দিন হিসেবে। মহান এই দিনটি নানা আয়োজনে উদযাপন করলো বাংলাদেশি মাল্টিন্যাশনাল ব্র্যান্ড ওয়ালটন।

শনিবার (৪ মে) সন্ধ্যায় রাজধানীর বসুন্ধরায় ওয়ালটন কর্পোরেট অফিসে অনুষ্ঠিত ওই আয়োজনের স্লোগান ছিল ‘উদ্দীপ্ত মোরা ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে’। আয়োজন করে ওয়ালটন কর্পোরেট ক্লাব। এতে গান, কবিতা, নাচ, কৌতুক, অভিনয় ইত্যাদি পরিবেশনার মাধ্যমে মে দিবসের ইতিহাস এবং তাৎপর্য তুলে ধরেন ওয়ালটন পরিবারের সদস্যরা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ওয়ালটন গ্রুপের পরিচালক এস এম মাহবুবুল আলম। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী পরিচালক এস এম জাহিদ হাসান, হুমায়ূন কবীর, শোয়েব হোসেন নোবেল, তানভীর রহমান, মোহাম্মদ রায়হান, গোলাম মুর্শেদ, অপারেটিভ ডিরেক্টর রবিউল আলম ভুঁইয়া, ইসাহাক রনি, অ্যাডিশনাল অপারেটিভ ডিরেক্টর খন্দকার শাহরিয়ার মুরশিদ, ডেপুটি অপারেটিভ ডিরেক্টর মফিজুর রহমান ও মুজাহিদুল ইসলাম।
 


চিত্রনায়ক আমিন খানের সঞ্চালনায় কর্পোরেট ক্লাবের সদস্যদের দলীয় সংগীতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়। সমবেত কণ্ঠে সবাই গেয়ে ওঠেন ‘তীর হারা এই ঢেউয়ের সাগর পাড়ি দেব রে...’।

এরপর একে একে কবিতা আবৃত্তি করেন সঞ্জয় চন্দ্র বণিক, নাচ পরিবেশন করেন মুক্তা ঘোষ, গান করেন হাবিবুর রহমান ইমন, থাই চি পারফরমেন্স করেন শামিরুর রহমান, কৌতুক পরিবেশন করেন তৌফিকুল ইসলাম, নাটিকা পরিবেশন করেন কল সেন্টারের সদস্যরা, মে দিবস শিরোনামে স্বরচিত কবিতা আবৃত্তি করেন বজলুর রহমান, গান করেন আল আমিন, ‘তেজ’ কবিতা আবৃত্তি করেন ফাতেমা খাতুন।

আরেকটি নাটিকার পর ‘ওয়ালটন পরিবার আমার প্রাণের অহংকার’ শিরোনামের ওয়ালটন পরিবারের দলীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মাধ্যমে মনোমুগ্ধকর এই আয়োজনের সমাপ্তি ঘটে।
 


সমাপনী বক্তব্যে ওয়ালটন গ্রুপের পরিচালক এস এম মাহবুবুল আলম বলেন, ‘আজকের এই অনুষ্ঠানের উদ্দেশ্য দুটি। মে দিবস এবং বিশ্ব হাসি দিবস। কাজ এবং বিনোদন দুটোই আমাদের জীবনে প্রয়োজন আছে। এখানে যেসব পরিবেশনা দেখলাম, তার সবই বাস্তবমুখী। মানুষ এখন হাসতে ভুলে যাচ্ছে। সময় ও পরিবেশ সব সময় হাসির অনুকূল থাকে না। কিন্তু হাসি আমাদের হৃদয়, মন ও শরীর চাঙা করে। এমন আয়োজন আমাদের প্রাণখুলে হাসার সুযোগ করে দেয়। আমাদের ভেতরের সুপ্ত প্রতিভা প্রকাশের জন্য কাজের ফাঁকে এমন আয়োজন খুবই প্রয়োজন।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের মুক্তির একটিই পথ। সেটি হলো শিক্ষা। মে দিবস আমাদের এই বার্তা দেয় যে, আমাদের শিক্ষিত হতে হবে। সেরা হতে হবে। আমরা সেভাবেই যেন নিজেদের গড়ে তুলি।’ কর্পোরেট জগতের ব্যস্ত শিডিউলের মাঝে এমন আয়োজন উপস্থিত সবাইকে আরো উজ্জীবিত করে তোলে বলে তিনি মত দেন।

সবশেষে অংশগ্রহণকারীদের পুরস্কৃত করা হয়। তাদের হাতে শুভেচ্ছা উপহার তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি এস এম মাহবুবুল আলম।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/৪ মে ২০১৯/অগাস্টিন/বকুল/শাহনেওয়াজ

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge