ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২১ নভেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

জাবিতে ফের ৪ জালিয়াত আটক

তহিদুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-১১-১৪ ৬:৪২:২৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১১-১৪ ৬:৪২:২৫ পিএম

জাবি সংবাদদাতা : জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির আশ্রয় নেওয়া চার ভর্তিচ্ছুকে আটক করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

মঙ্গলবার ‘সি’ ইউনিটের সাক্ষাৎকার চলাকালে উত্তরপত্রের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে হাতের লেখার মিল না পাওয়ায় তাদের আটক করা হয়। পরে তাদের আশুলিয়া থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

আটকৃতরা হলেন, ইয়াছিন আরাফাত, শেখ পারভেজ আহমেদ, রাকিব হোসেন ও আবু রায়হান।

প্রক্টর অফিস সূত্রে জানা যায়, ময়মনসিংহ জেলার চর বরভিলা গ্রামের নুর মোহাম্মদের ছেলে ইয়াছিন আরাফাত ‘সি’ ইউনিটে মেধা তালিকায় ৫ম স্থান অধিকার করে। তার ভর্তি রোল ৩৪৬৩২০।

গাজীপুর জেলার শ্রীপুর থানার শ্রীপুর গ্রামের শেখ কামালের ছেলে শেখ পারভেজ আহমেদ ‘সি’ ইউনিটে মেধা তালিকায় ১১৫তম স্থান অধিকার করে। তার ভর্তি রোল ৩৫১৪১০।

মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর কামারগাঁও গ্রামের আহমেদ আলীর ছেলে রাকিব হাসান ‘সি’ ইউনিটে মেধা তালিকায় ৫৮তম স্থান অধিকার করে। তার ভর্তি রোল ৩৯৬৩০০।

নাটোরের লালপুর থানার অমরপুর গ্রামের আবু বকর সিদ্দিকের ছেলে আবু রায়হান ‘সি’ ইউনিটে মেধা তালিকায় ১৩তম স্থান অধিকার করে। তার ভর্তি রোল ৩৪৭৬৪০।

জিজ্ঞাসাবাদে পারভেজ, রাকিব ও রায়হান স্বীকার করেছে যথাক্রমে চার লাখ, আড়াই লাখ ও দুই লাখ টাকার বিনিময়ে প্রক্সি দেওয়ায় তারা চান্স পেয়েছে। তবে হাতের লেখা ভিন্ন হয়েছে স্বীকার করলেও প্রক্সির কথা অস্বীকার করেছে আরাফাত। সে দাবি করে, তার পরীক্ষা সে নিজেই দিয়েছে।

এ বিষয়ে প্রক্টর অধ্যাপক তপন কুমার সাহা বলেন, ‘আটককৃতরা জালিয়াতির সঙ্গে যুক্ত বলেই তাদের আটক করা হয়। তবে চারজনের মধ্যে একজন টাকা লেনদেনের বিষয়টি স্বীকার করেনি। তবে নিশ্চিত হওয়া গেছে তারা জালিয়াতির সঙ্গে যুক্ত। আমরা তাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা শাখার কাছে হস্তান্তর করেছি। তারা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়েছে।’




রাইজিংবিডি/জাবি/১৪ নভেম্বর ২০১৭/তহিদুল ইসলাম/মুশফিক

Walton
 
   
Marcel