ঢাকা, রবিবার, ৬ ফাল্গুন ১৪২৪, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
Risingbd
অমর একুশে
সর্বশেষ:

দিনভর অবরুদ্ধ রাবির ফোকলোর বিভাগের সভাপতি

মেহেদী হাসান ডালিম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০২-০৮ ৫:১৮:৪৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০২-০৮ ৫:১৮:৪৩ পিএম

রাবি সংবাদদাতা : শ্রেণিকক্ষ নিয়ে দুই বিভাগের শিক্ষার্থীদের দ্বন্দ্বের জেরে ফোকলোর বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. আখতার হোসেনকে অবরুদ্ধ করে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফোকলোর বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে বিভাগের সভাপতির কক্ষের সামনে তারা এ কর্মসূচি পালন করে শিক্ষার্থীরা। এ সময় তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের কাছে সভাপতির পদত্যাগ ও কক্ষ ফিরিয়ে দেওয়াসহ পাঁচ দফা দাবি করেন।

তাদের দাবিগুলো হলো- ফোকলোর বিভাগের সভাপতির পদত্যাগ, গ্যালারি রুম ফিরিয়ে দিতে হবে, শিক্ষক লাঞ্ছিতকারীদের শাস্তি দিতে হবে, বিভাগের ছাত্রীদের অপহরণের হুমকিদাতাদের এবং শিক্ষিকা ও ছাত্রীদের ইভটিজিংকারীদের শাস্তি দিতে হবে।

জানা যায়, সিরাজী ভবনের ১১৯ থেকে ১২২ নম্বর কক্ষগুলো ফোকলোর বিভাগের শিক্ষার্থীরা ব্যবহার করত। ২০০৮ সালের দিকে ১২১ নম্বর কক্ষটি প্রশাসন থেকে ইতিহাস বিভাগের জন্য বরাদ্দ করা হয়। গত বুধবার ওই কক্ষের সামনে বিশৃঙ্খলাকে কেন্দ্র করে ইতিহাস ও ফোকলোর বিভাগের শিক্ষার্থীদের মধ্যে উত্তেজনা ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এরপর ফোকলোর বিভাগের শিক্ষার্থীরা ইতিহাস বিভাগের কক্ষে তালা লাগিয়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস বর্জন কর্মসূচি ঘোষণা করে এবং ১২১ নম্বর কক্ষ তালা দিয়ে দেয়। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ফোকলোর বিভাগের সভাপতি ড. আখতার হোসেন ওই কক্ষের তালা খুলে দেন। এতে শিক্ষার্থীরা ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে তার কক্ষে অবরুদ্ধ করে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে। পরে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডি বিষয়টি সমাধানের জন্য সভাপতির সঙ্গে আলোচনা করতে এলে সাময়িকভাবে অফিস কক্ষ খুলে দেয় শিক্ষার্থীরা। পরে প্রক্টর বডির সদস্যরা চলে গেলে আবারো সভাপতিকে তালাবদ্ধ করে রাখেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় বিভাগের সভাপতি আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের বহিষ্কারের হুমকি দেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে শিক্ষার্থীরা বিভাগের সভাপতির পদত্যাগের দাবি করেন।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, পাঠদানের সময় শ্রেণিকক্ষে বিশৃঙ্খলার পাশাপাশি প্রায়ই ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থীরা তাদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করে। তবে ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থীরা জানান, কক্ষটি হস্তগত করতেই ফোকলোর বিভাগের শিক্ষার্থীরা উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে তাদের সঙ্গে প্রায়ই বাক-বিতণ্ডতায় জড়ায়। বিভাগের সভাপতি স্যার আমাদের বারবার বহিষ্কারের হুমকি দিচ্ছেন। এ থেকে স্পষ্টই বোঝা যায় তিনি ইতিহাসের সঙ্গে আঁতাত করেছেন। এজন্যই আমরা সভাপতির পদত্যাগ চাই।

জানতে চাইলে ফোকলোর বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. আখতার হোসেন বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা আমাকে সকাল থেকেই অবরুদ্ধ করে রেখেছে। আমাকে কারো সঙ্গে আলোচনা করতে দিচ্ছে না। শিক্ষার্থীরা চাইলে আমি পদত্যাগ করব, কিন্তু আমার পরে যে সভাপতি হবেন, তিনি কি তাদের দাবি পূরণ করতে পারবেন? যদি পূরণ করতে না পরে তাহলে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের বিভাগ থেকে বহিষ্কার করব।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মো. লুৎফর রহমান বলেন, ‘আমি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেছি। আমরা আজকে বিষয়টি সমাধানের জন্য প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলব।’



রাইজিংবিডি/রাবি/৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/মেহেদী হাসান/মুশফিক

Walton
 
   
Marcel