ঢাকা, সোমবার, ১০ আশ্বিন ১৪২৪, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

বন্যা : সাজেকে ২ শতাধিক পর্যটক আটকা

রেজাউল করিম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৮-১৩ ১২:১০:০০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৮-১৫ ৪:৩৮:১১ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম : বন্যার পানি ও পাহাড়ি ঢলে সড়ক তলিয়ে যাওয়ায় খাগড়াছড়ির সঙ্গে পর্যটন এলাকা সাজেকের সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। এতে সাজেকে আটকা পড়েছেন ২ শতাধিক পর্যটক।

গত তিনদিনের টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে খাগড়াছড়ির বাঘাইছড়ি উপজেলার বাঘাইহাট ও কাচালং এলাকায় বন্যার পানিতে সড়ক তলিয়ে যাওয়ায় সাজেকের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। সড়ক যোগাযোগ বন্ধ থাকায় সাজেকে খাবার পানি ও খাদ্য সঙ্কট দেখা দিয়েছে। তিনদিন ধরে জেলা শহর থেকে সাজেকে কোনো খাদ্য পৌঁছাতে না পারায় পর্যটকরা থাকার জায়গা পেলেও পর্যাপ্ত পানি ও খাবার পাচ্ছেন না। তবে পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পর্যটকদের সব রকম সহায়তা করা হচ্ছে। বৃষ্টির পানি দিয়ে খাবার পানির সঙ্কট মোকাবিলা করা হচ্ছে।

বাঘাইহাট বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মো. নাজিম উদ্দিন জানান, বাঘাইহাট এলাকা এবং সীমানাছড়া ব্রিজ এলাকা তলিয়ে যাওয়ায় সাজেকের সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

সাজেক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নেলশন চাকমা নয়ন জানান, কাচালংসহ বাঘাইহাট এলাকার প্রায় ১৫০ পরিবার পানিবন্দি রয়েছে। এ ছাড়া সাজেকে আটকে রয়েছে ঢাকা-চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্নস্থান থেকে আসা দুই শতাধিক পর্যটক।

সাজেকের স্থানীয় হেডম্যান এল. থাঙা লুসাই জানান, যোগাযোগ সমস্যার কারণে পর্যটকদের খাবার ও পানি সঙ্কট প্রকট আকার ধারণ করেছে। বৃষ্টির পানি থাকায় তা কিছুটা সামাল দেওয়া যাচ্ছে। তবে যোগাযোগ ব্যবস্থা কয়েক দিনের মধ্যে স্বাভাবিক না হলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে।

সাজেক থানার ওসি নুরুল আনোয়ার জানান, পর্যটকদের প্রয়োজনীয় পানি এবং খাবারসহ অন্যান্য চাহিদা মেটাতে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তাজুল ইসলাম জানান, পর্যটকদের সমস্যা বিবেচনায় রেখে সার্বিক সহযোগিতার চেষ্টা করা হচ্ছে।



রাইজিংবিডি/চট্টগ্রাম/১৩ আগস্ট ২০১৭/রেজাউল/উজ্জল

Walton Laptop