ঢাকা, বুধবার, ৫ চৈত্র ১৪২৫, ২০ মার্চ ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

আজ আন্তর্জাতিক ওজোন দিবস

শাহ মতিন টিপু : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৯-১৬ ১:৫২:২২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৯-১৬ ১:৫২:২২ পিএম

ডেস্ক রিপোর্ট: মানুষের জীবনযাপন পদ্ধতি ও অতিরিক্ত কার্বন ব্যবহারের কারণে ওজোন ক্ষতিগ্রস্ত হতে শুরু করেছে। ওজোন স্তর ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার কারণে সূর্য থেকে ক্ষতিকর অতিবেগুনী রশ্মি পৃথিবীতে আসছে।

ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে মানুষসহ সব প্রাণী। মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে ত্বকের ক্যানসারসহ নানা কঠিন ও জটিল রোগে। রেফ্রিজারেটর, এয়ারকন্ডিশনারসহ এরকম বিভিন্ন বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি থেকে নিঃসরিত সিএফসি বা ক্লোরোফ্লোরো কার্বনের কারণে ওজোন স্তর ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

বিশ্বজুড়ে ক্লোরোফ্লোরো কার্বনের পরিমাণ বৃদ্ধি, বনভূমির পরিমাণ কমে আসা, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত বৈশ্বিক উষ্ণায়ন উন্নত ও উন্নয়নশীল সব দেশকেই ভাবিয়ে তুলেছে। এমন এক অবস্থার মধ্যেই আজ পালিত হচ্ছে ‘আন্তর্জাতিক ওজোন দিবস’।

১৯৮৭ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর বায়ুমণ্ডলের ওজোনস্তর ক্ষয়ের জন্য দায়ী দ্রব্যগুলোর ব্যবহার নিষিদ্ধ বা সীমিত করার জন্য ভিয়েনা কনভেনশনের আওতায় ওজোনস্তর ধ্বংসকারী পদার্থের ওপর মন্ট্রিল প্রটোকল গৃহীত হয়। প্রটোকল অনুযায়ী সদস্যদেশগুলো একে একে ওজোন ধ্বংসকারী রাসায়নিক ক্লোরোফ্লোরোকার্বন, হ্যালন, কার্বন টেট্রাক্লোরাইড, মিথাইল ক্লোরোফর্ম, মিথাইল ব্রোমাইড, হাইড্রোব্রোমোফ্লোরোকার্বন, হাইড্রোফ্লোরোকার্বন ইত্যাদির উৎপাদন, ব্যবহার সীমিত ও নিষিদ্ধ করতে সম্মত হয়। বাংলাদেশ ১৯৯০ সালে এই মন্ট্রিল প্রটোকলে স্বাক্ষর করে। এরপর থেকে বাংলাদেশেও দিবসটি পালন করা হয়।

এবারে দিবসটির প্রতিপাদ্য ‘শীতল থাকার পরিবেশবান্ধব কৌশল, মেনে চলি মন্ট্রি প্রটোকল’। দিবসটি উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন।

দেওয়া বাণীতে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বলেন, ‘বিশ্বের সকল দেশের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় মন্ট্রিল প্রটোকল বাস্তবায়নের মাধ্যমে শুধু যে ওজোনস্তরই রক্ষা পাচ্ছে তা নয় বরং জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায়ও তা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।’

তিনি আগামী প্রজন্মের জন্য বাসযোগ্য একটি পৃথিবী গড়তে পরিবেশ সুরক্ষায় সচেতন থাকার জন্য সকলের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান।

দেওয়া বাণীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় জ্বালানি সাশ্রয়ী পরিবেশবান্ধব শীতলীকরণ বিকল্প গ্যাস ও যন্ত্র ব্যবহারে সকলে আরো সচেতন হবে।’

এদিকে ওজোন স্তরের ক্ষয়রোধ এবং বৈশ্বিক উষ্ণতা নিয়ন্ত্রণে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ইনভার্টার প্রযুক্তির পণ্য উৎপাদন ও ব্যবহারের প্রতি গুরুত্বারোপ করেছেন বিশেষজ্ঞরা। দিবসটি উপলক্ষ্যে শনিবার রাজধানীতে ওয়ালটন করপোরেট অফিসের সম্মেলন কক্ষে পরিবেশ অধিদপ্তর এবং ওয়ালটন হাইটেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড যৌথ সেমিনারে বিশেষজ্ঞরা এই অভিমত ব্যক্ত করেন।

সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব আবদুল্লাহ আল মোহসীন চৌধুরী। সেমিনারে স্বাগত বক্তব্যে ওয়ালটন করপোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এসএম মাহবুবুল আলম জানান, ওয়ালটন অনেক আগে থেকেই ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ইনর্ভার্টার প্রযুক্তির ফ্রিজ ও এসি তৈরি করছে। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে এখনও রেফ্রিজারেটর এবং এয়ারকন্ডিশনারের স্টার রেটিং চালু হয়নি। তাই নিম্নমানের এবং পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর অনেক রেফ্রিজারেটর ও এসি বাজারে আসছে। এতে ব্যাপক পরিমানে বিদ্যুৎ অপচয় হচ্ছে। পরিবেশের ক্ষতি হচ্ছে।’ তিনি অতি দ্রুত স্টার রেটিং পদ্ধতি চালুর আহবান জানান।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮/শাহ মতিন টিপু

Walton Laptop
 
     
Walton AC