ঢাকা, বুধবার, ৫ আশ্বিন ১৪২৪, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

অমার্জনীয় অপরাধে কবুতর গ্রেপ্তার

মনিরুল হক ফিরোজ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৬-২৭ ৮:২৫:৪২ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৬-২৭ ১:২০:৪৭ পিএম

অন্য দুনিয়া ডেস্ক : ব্যাংক ডাকাতি, গয়নার দোকানে চুরি কিংবা মাদকদ্রব্য চোরাচালানের পরিকল্পনা যারা করেন তারা খুব ধুরন্ধর এবং সাহসী এতে সন্দেহ নেই। তারা এ জন্য কত রকমের বুদ্ধি যে খুঁজে বের করেন তার হিসেব নেই। পেটের মধ্যে লুকিয়ে মাদকদ্রব্য চোরাচালানের খবর আমরা শুনেছি। এ ছাড়াও জুতার হিলে, কৃত্রিম স্তনে, খাবারের মধ্যে, বইয়ের মধ্যে, ভাস্কর্যের মধ্যে... এই তালিকা লিখে শেষ করার মতো নয়। কিন্তু কখনো কি শুনেছেন যে, মাদক চোরাচালানের অভিযোগে কবুতর গ্রেপ্তার করা হয়েছে? উদ্ভিদ এবং প্রাণীও যে এ কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে এটাই তো অনেকের জানা ছিল না।

আল আরাবিয়া ইংরেজি কর্তৃক প্রকাশিত এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, কুয়েত কাস্টমস কর্তৃপক্ষ সম্প্রতি একটি কবুতর ধরেছে। কবুতরটি প্রায় ১৭৪টি এসটেসি ট্যাবলেট (মাদকজাতীয় ওষুধ) খুবই সতর্কতার সঙ্গে বহন করছিল। অতীতে কবুতরকে বার্তা প্রেরণ করার জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হতো। অথচ তখন কি কেউ ভেবেছিল যে, কবুতরকে এর পাশাপাশি একদিন মাদক পাচারে প্রশিক্ষিত করা হবে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কবুতরকে এখন মাদকদ্রব্য পাচারের প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন মাদক ব্যবসায়ীরা। কারণ কবুতর কোনো রকমের বিরতি ছাড়াই ১৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত উড়ে যেতে পারে এবং তাদের শরীরের ওজনের তুলনায় ১০ শতাংশ বেশি ওজন বহন করতে পারে। এ কারণে চোরাচালানকারীদের এখন প্রিয় পাখি কবুতর।

তবে এ ঘটনায় যে কবুতরটি ধরা পড়েছে তাকে কিন্তু পুলিশ গ্রেপ্তার দেখিয়ে খাঁচায় বন্দী করে রেখেছে। খোঁজা হচ্ছে এর মালিককে।

তথ্যসূত্র : স্কুপহুপ



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৭ জুন ২০১৭/ফিরোজ/তারা

Walton Laptop