ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ কার্তিক ১৪২৫, ১৬ অক্টোবর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

মৃত্যু ভয় দেখিয়ে বিপাকে জ্যোতিষী

শাহিদুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৭-১১-০৮ ৭:৫২:৪৯ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১১-০৮ ১২:৩০:২৭ পিএম

শাহিদুল ইসলাম: পূর্ব ফ্রান্সের বাসিন্দা ম্যাগালি। পঁয়ত্রিশ বছর বয়সি এই নারীর দিন কাটছিলো বেশ সুখে-শান্তিতে। কিন্তু গত জুলাই মাস থেকে তার জীবন হয়ে উঠেছে নরকময়। তার প্রতিটি দিন কাটছে অসহ্য মানসিক যন্ত্রণায়।

জুলাইয়ের এক পড়ন্ত বিকেলে বেজে ওঠে ম্যাগালির বাসার টেলিফোন। ব্যস্ত হয়ে ফোন ধরেন তিনি। কিন্তু ফোন ধরে যা শুনলেন তার জন্য মোটেও প্রস্তুত ছিলেন না। প্রচণ্ড ভয় পান তিনি। নিজেকে জ্যোতিষী পরিচয় দিয়ে ফোনের অপরপ্রান্ত থেকে এক নারী ম্যাগালিকে বলেন, কিছুদিন পূর্বে আপনি পাকস্থলী এবং বুকের জন্য যে পরীক্ষা করিয়েছেন তা ত্রুটিপূর্ণ। আপনার হার্টে মারাত্মক সমস্যা আছে। আগামী ছয় মাসের মধ্যে আপনি মারা যাবেন। এরপর অপরপ্রান্ত থেকে লাইন কেটে দেওয়া হয়।

ভীতসন্ত্রস্ত ম্যাগালি ছুটে যান চিকিৎসকের কাছে। আরো ভালোভাবে পরীক্ষা করান। কিন্তু পরীক্ষায় আগের মতোই বলা হয়, তার হার্টে কোনো সমস্যা নেই এবং তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ আছেন। দ্বিতীয়বার পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়ার পর ম্যাগালি আবারো ফোন করেন জ্যোতিষীকে। কিন্তু জ্যোতিষী তার আগের কথাতেই অনড় থাকেন এবং বলেন আপনি আগামী ছয় মাসের মধ্যেই মারা যাবেন।

এরপর থেকে একটু একটু করে নিজের ওপর বিশ্বাস হারাতে থাকেন ম্যাগালি। ধীরে ধীরে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন। মানসিক চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন তিনি। চিকিৎসা নেওয়ার পর এখন অনেকটা সুস্থ আছেন ম্যাগালি। তিনি ওই জ্যোতিষীর বিরুদ্ধে মামলা করার কথা ভাবছেন।

এ বিষয়ে মতামত জানতে চাওয়া হলে ফ্রান্স প্যারানরমাল ইন্সটিটিউটের সভাপতি স্থানীয় একটি পত্রিকায় বলেন, ‘এ রকম অভিযোগ আমরা প্রায়ই পেয়ে থাকি। কোনো জ্যোতিষীর অন্য কারোর মৃত্যুর আগাম বার্তা দেওয়ার অধিকার নেই। এটা আমাদের নিয়মের পরিপন্থী।’



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৮ নভেম্বর ২০১৭/মারুফ/তারা

Walton Laptop
 
     
Walton