ঢাকা, শুক্রবার, ৮ চৈত্র ১৪২৫, ২২ মার্চ ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

আকাশ ছোঁয়ার স্বপ্ন ওদের

সাইফ বরকতুল্লাহ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৯-০১-১১ ১০:০৬:২৩ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০১-১১ ১০:১৬:০১ এএম
মণিপুরি লাইব্রেরির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা

সাইফ বরকতুল্লাহ : ঠিক সকাল নয়টা। দিনটি ছিল চার জানুয়ারি। প্রচণ্ড শীত। তাপমাত্রা ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এই শীতকে ঠেলে ওরা উপস্থিত। ওদের চোখে অনেক স্বপ্ন। কেউ হতে চায় অফিসার, কেউ ডাক্তার, কেউ ইঞ্জিনিয়ার, কেউ নার্স, কেউ আবার সাংবাদিক হওয়ার রঙিন স্বপ্ন দেখে। প্রাণোচ্ছ্বল এসব তরুণ-তরুণীদের চোখে চোখে নীল আকাশের স্বপ্ন।

দুচোখে ওদের স্বপ্ন আঁকা
ত্রিশ জন শিক্ষার্থী (অনার্স প্রথম বর্ষ থেকে মাস্টার্স-এ অধ্যায়নরত)। ওরা সবাই মণিপুরি। টিকরিয়া ও রামনগর মণিপুরি পাড়ায় ওদের জন্ম। বেড়ে ওঠাও এখানেই। থেঙ্গুজম আকাশ বললেন, ‘আমরা নতুন পৃথিবীর স্বপ্ন দেখি। অনেক কিছু জানতে চাই, শিখতে চাই।’ আশামনি দেবী বললেন, ‘ভালো মানুষ হতে চাই।’ থোঙাম ধীরাজ, নিঙোম্বন উজ্জল, সঞ্জয় সিংহ, সোরাইজম দীপা, লাইতোনজম মেলাইসহ সবার চোখে মানুষ হবার স্বপ্ন।

 


জাতিতাত্ত্বিক লোকায়ত জ্ঞান ও সংস্কৃতির বিশেষায়িত কর্মশালা ‘স্বরূপের সন্ধানে’
 

স্বরূপের সন্ধানে
মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে, রামনগর মণিপুরি পাড়া। এখানে  গ্রান্ড সেলিম রিসোর্টের অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় জাতিতাত্ত্বিক লোকায়ত জ্ঞান ও সংস্কৃতির বিশেষায়িত কর্মশালা ‘স্বরূপের সন্ধানে’। এতে অংশ নেন টিকরিয়া ও রামনগর মণিপুরি পাড়ার প্রায় ৩০ জন শিক্ষার্থী। কর্মশালা উদ্বোধন করেন উদীচি সিলেট শাখার সভাপতি, কবি ও গবেষক এ কে শেরাম। বিভিন্ন সেশনে বিষয়ভিত্তিক আলোচনায় অংশ নেন সাংবাদিক ও প্রাবন্ধিক সৈয়দ আমিরুজ্জামান, গবেষক ও প্রাবন্ধিক জুয়েল বিন জহির, কবি ও সাংবাদিক তুহিন তৌহিদ, কথাসাহিত্যিক সাইফ বরকতুল্লাহ, লেখক জাবেদ ভুঁইয়া। কর্মশালা সঞ্চালনা করেন কবি, সংগঠক ও মণিপুরি ভাষার অনুবাদ মাইবম সাধন। এছাড়া কর্মশালায় গান পরিবেশন করেন শিল্পী যাদু রিছিল। কর্মশালাটি আয়োজন করে মণিপুরি লাইব্রেরি।

নুংশিহিদাক এবং স্বরূপ
কর্মশালায় দুটি ছোট কাগজের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। একটি ‘স্বরূপ’। এটি সম্পাদনা করেছেন মাইবম সাধন। আরেকটি ‘নুংশিহিদাক’। মণিপুরি লাইব্রেরির সদস্যদের উদ্যোগে, তাদের নিজেদের লেখা ও সম্পাদনায় প্রকাশিত হয় ‘নুংশিহিদাক’। এই কাগজের বিশেষত্ব, এখানে স্থান পাওয়া লেখকদের লেখা পূর্বে কোথাও প্রকাশিত হয়নি। এখানেই তাদের প্রথম লেখা প্রকাশিত হয়। কাগজটিতে তারুণ্যের পাগলামি যেমন আছে, তেমনি লক্ষ্য করা যায় কাঁচা হাতের ছোঁয়া। কাগজটি সম্পাদনা করেছেন থেঙ্গুজম আকাশ। এছাড়া কর্মশালায় যেসব প্রবন্ধ ও বিষয় আলোচনা হয়েছে এর সবগুলো প্রবন্ধই ‘স্বরূপ’-এ প্রকাশিত হয়েছে। দুটি কাগজেরই প্রচ্ছদ করেছেন চিত্রশিল্পী জয়দেব রোয়াজা। এছাড়া জয়দেব রোয়াজার অসাধারণ স্কেচ, প্রকাশের ব্যতিক্রম ভঙ্গিমা পাঠকদের ভাবিত করে তুলবে নিঃসন্দেহে। সেই সাথে সংকলিত প্রবন্ধগুলো জোগাবে চিন্তার খোরাক।

 


ছোট কাগজ ‘নুংশিহিদাক’ এবং ‘স্বরূপ’ এর প্রচ্ছদ
 

মণিপুরি লাইব্রেরির পথচলা শুরু
কর্মশালা শেষে বইপ্রেমীদের জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয় মণিপুরি লাইব্রেরি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, সমাজ ও জাতি গঠনে পাঠাগারের গুরুত্ব সবচেয়ে বেশি। বিশেষ করে প্রান্তিক জাতিসত্তার ইতিহাস, সাহিত্য সংস্কৃতি, সংকট ও সম্ভাবনাকে বিকশিত করতে ব্যাপক পাঠ অভ্যাস গড়ে তোলা প্রয়োজন।

 


মণিপুরি লাইব্রেরির উদ্বোধন


উদ্যোক্তা মাইবম সাধন বলেন, লাইব্রেরির বীজ বপন করা হয়েছিল ২০১৮ সালের ১৫ জানুয়ারি। আর উদ্বোধন হলো আজ ৪ জানুয়ারি ২০১৯। মণিপুরি লাইব্রেরি অন্যান্য লাইব্রেরি থেকে আলাদা। এটি জাতিতাত্ত্বিক লোকায়ত জ্ঞান ও সংস্কৃতির বিশেষায়িত পাঠ কেন্দ্র। লাইব্রেরির নামে ‘মণিপুরি’ শব্দ থাকলেও এটি শুধু যে মণিপুরিদের লাইব্রেরি-তা নয়। এটি সবার জন্য উন্মুক্ত। সকল জাতিসত্তার জন্য এখানে নিয়মিত পাঠের আয়োজন করা হবে। লাইব্রেরিতে আমরা সব ধরনের বই রেখেছি। প্রাথমিক অবস্থায় মনিপুরি ভাষার বইয়ের সংখ্যা একটু বেশি হলেও ধীরে ধীরে অন্যান্য   গ্রন্থের সংখ্যাও বাড়ানো হবে। এখন শুক্র ও শনিবার খোলা থাকলেও শিঘ্রই সপ্তাহের সাত দিনই খোলা রাখার ব্যবস্থা করা হবে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১১ জানুয়ারি ২০১৯/সাইফ

Walton Laptop
 
     
Walton AC