ঢাকা, শনিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৫ মে ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

সুবলকুমার বণিক স্মরণে

তাপস রায় : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৪-২০ ১:১৮:২৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৪-২০ ১:২৪:৪৩ পিএম
Walton AC

সাহিত্য ডেস্ক: গত ৬ এপ্রিল পরলোকে পাড়ি জমিয়েছেন নিষ্ঠাবান সম্পাদক, লেখক সুবলকুমার বণিক। গতকাল বাংলা একাডেমির শামসুর রাহমান সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত হলো সুবলকুমার বণিকের স্মরণসভা। জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামানের সভাপতিত্বে সভার প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বিশেষ অতিথি ছিলেন চিত্রশিল্পী হাশেম খান, ফোকলোর গবেষক শামসুজ্জামান খান, শিশুসাহিত্যিক আলী ইমাম, কবি ফারুক মাহমুদ। সভায় সুবল বণিকের সহপাঠী, সহকর্মীসহ ঘনিষ্ঠজনেরা তার স্মৃতিচারণ করেন।

শুদ্ধ লেখায় সুবলকুমার বণিকের ছিল অতল পাণ্ডিত্য। শিশুদের মাসিক পত্রিকা ‘সাতরং’ এর নির্বাহী সম্পাদক ছিলেন তিনি। অসংখ্য বই সম্পাদনা করেছেন। আবুল মাল আবদুল মুহিত সুবল বণিকের সম্পাদনা গুণের কথা স্মরণ করে বলেন, ‘আমার একটি বই তিনি সম্পাদনা করেছেন। ফলে বইটি নির্ভুল এবং সুখপাঠ্য হয়েছিল। তার মৃত্যুতে দেশ হারাল এক বিদগ্ধ পণ্ডিতকে।’ আনিসুজ্জামান বলেন, ‘তিনি নিরহঙ্কার, সদালাপী, ভালো মনের মানুষ ছিলেন। অত্যন্ত যত্ন করে তিনি আমার বইগুলো আগাগোড়া পড়ে সংশোধন করে দিতেন। প্রকাশনাজগৎ বিশেষভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হলো সুবলকুমার বণিকের তিরোধানে।’

অনলাইন নিউজপোর্টাল রাইজিংবিডি ডটকমের প্রকাশক এস এম জাহিদ হাসান বলেন, ‘আমাদের কিশোরবেলার অনেকটা সময় সুবলদার সঙ্গে কেটেছে। তিনি রবীন্দ্র গবেষক ছিলেন, বাংলা ভাষা এবং সাহিত্যের খুঁটিনাটি অনেক কিছু আমরা তার কাছ থেকে শিখেছি, জেনেছি। তার অগাধ পাণ্ডিত্য ছিল, কিন্তু আমিত্ব ছিল না। নিরহঙ্কারী মানুষ ছিলেন। মুখ ফুটে কখনও কোনো বিষয়ে অসুবিধার কথা বলতেন না। সদা হাস্যোজ্জ্বল দাদার কাছ থেকে আমরা সব সময় স্নেহাশীষ পেয়েছি।’

কবি ফারুক মাহমুদ বলেন, ‘সুবল বণিকের মৃত্যুতে দেশ হারাল এক বিদগ্ধ পণ্ডিত, আমি হারালাম অকৃত্রিম বন্ধুকে। দেখা হলে, সুবল শোনাত আমার অনেক কবিতাংশ। অবাক হতাম- কতো  আগের কবিতা! আমি হয়ত ভুলে গেছি, সুবলের ঠিক মনে আছে! কতো শব্দের শুদ্ধ বানান যে তার কাছ থেকে জেনেছি!  সুবলের সম্পাদনার হাত ছিল স্বচ্ছ।’

চন্দ্রাবতী একাডেমির আয়োজনে এই স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২০ এপ্রিল ২০১৯/তারা

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge