ঢাকা, শনিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৫ মে ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

বিশ্বের বিশাল সব বিমান

আহমেদ শরীফ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৪-২১ ৪:৩২:১৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৪-২১ ৪:৩৫:২৮ পিএম
স্ট্রাটোলঞ্চ
Walton AC

আহমেদ শরীফ : গত ১৩ তারিখ ক্যালিফোর্নিয়ায় পরীক্ষামূলক উড্ডয়ন হলো বিশ্বের সবচেয়ে বড় ডানা বিশিষ্ট এয়ারক্রাফট ‘স্ট্রাটোলঞ্চ’ এর। সেটির ডানার দৈর্ঘ্য ১১৭ মিটার। বিমানটির মোট দৈর্ঘ্য ৭৩ মিটার। এর ওজন ২ লাখ ২৫ হাজার কেজির বেশি। সর্বাধিক ৫৯০ মেট্রিকট্রন ওজন বহন করতে সক্ষম এটি। মহাকাশে ছোট স্যাটেলাইট বয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য এই বিমান তৈরি করা হয়েছে। এই এয়ারক্রাফটটি আকাশে উড়ে ৭১ বছর আগের এক রেকর্ড (স্প্রুস গ্রুজ বিমানের রেকর্ড) ভেঙে দিয়েছে। তবে এটি ছাড়াও বিশ্বে আরো কিছু বিশাল বিমান আছে। বিশ্বের বিশাল সব বিমান নিয়ে এ প্রতিবেদন।

হিউজেস এইচ-৪ হারকিউলিস (স্প্রুস গুজ) 



হিউজেস এইচ-৪ হারকিউলিস যা স্প্রুস গুজ নামে পরিচিত, বিমানটির দুই ডানার বিস্তৃতি ছিল ৯৭.৫৪ মিটার বা প্রায় ৩২০ ফুট। এর ওজন ছিল ১ লাখ ১৩ হাজার ৩৯৯ কেজি। ১৯৪৭ সালে বিশাল এই বিমানটি একবারই উড়েছিল। আর তা মাত্র ২৬ সেকেন্ডের জন্য (প্রায় দেড় কিলোমিটার পথ)। তবে এর মাধ্যমেই ‘স্প্রুস গুজ’ বিশ্বের সবচেয়ে বিশাল ডানাওয়ালা বিমানের খেতাব পেয়ে গিয়েছিল। এভিয়েশন টাইকুন হাওয়ার্ড হিউজেসের উদ্যোগে তৈরি করা কাঠের তৈরি এই বিমানটিতে আটটি ইঞ্জিন ছিল। এক কথায় এটি ছিল একটি দানবীয় উড়ন্ত নৌকা।

আন্তোনোভ এএন-২২৫ ম্রিয়া



ডানা ও ওজনের বিবেচনায় বিশ্বের সবচেয়ে বড় ডানাওয়ালা বিমান এবং ভারী বিমান আন্তোনোভ এএন-২২৫ ম্রিয়া। ১৯৮৮ সালে সোভিয়েত ইউনিয়ন বিশাল এই বিমানটি তৈরি করে। এর ওজন ছিল ২ লাখ ৮৫ হাজার কেজি। দৈর্ঘ্য ছিল ৮৪ মিটার, ডানার বিস্তার ছিল ৮৮.৪ মিটার। এই বিমান মাত্র একটি তৈরি করা হয়েছিল।

এয়ারবাস এ৩৮০-৮০০



যাত্রীসংখ্যা ধারনের দিক থেকে বিশ্বের সবচেয়ে বড় যাত্রীবাহী বিমান এয়ারবাস এ৩৮০-৮০০। এর দৈর্ঘ্য ৭২.৭২ মিটার। মোট ৮৫০ জন যাত্রী ধারণ ক্ষমতা আছে এই বিমানের। অবশ্য এসব বিমানের বেশিরভাগই ৪৫০-৫৫০ জন যাত্রী নিয়ে উড়ে চলে এখন। ২০০৫ সালে প্রথম এই বিমান আকাশে উড়ে। নেদারল্যান্ডস ভিত্তিক বিমান নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এয়ারবাস এই ধরনের বিমান তৈরি করে। বর্তমানে দুবাইয়ের এমিরেটস এয়ারলাইন্স এই ধরনের বেশিরভাগ বিমান ব্যবহার করছে।

বোয়িং ৭৪৭-৮



দৈর্ঘ্যের বিবেচনায় বিশ্বের সবচেয়ে বড় যাত্রীবাহী বিমান বোয়িং ৭৪৭-৮। এর দৈর্ঘ্য ৭৬.৩ মিটার। আমেরিকার বিমান বোয়িং ৭৪৭-৮ কয়েক দশক ধরেই বিশ্বজুড়ে আকাশে রাজত্ব করে আসছে। ২০১০ সালে আকাশে প্রথম উড়ে বিশ্বের সবচেয়ে বড় যাত্রীবাহী বিমান বোয়িং ৭৪৭-৮।

আন্তোনোভ এএন-১২৪



বিশ্বের সবচেয়ে বড় মিলিটারি ট্রান্সপোর্ট এয়ারক্রাফট রাশিয়ার আন্তোনোভ এএন-১২৪। এর দৈর্ঘ্য ৬৮.৯৬ মিটার। ১৯৮২ সালে প্রথম আকাশে উড়ে এই বিমান। এ ধরনের বিমান বর্তমানে রাশিয়ান এয়ারফোর্স ব্যবহার করছে। এছাড়া আমেরিকা ও ইউরোপিয়ান স্পেস প্রোগ্রামে এই ধরনের বিমান ব্যবহৃত হয়।

এইচএভি এয়ারল্যান্ডার ১০



বৃটিশ কোম্পানি হাইব্রিড এয়ার ভেহিক্যালস (এইচএভি) তৈরি করেছে বিমান ও এয়ারশিপের আদলে বিশাল এক এয়ারক্রাফট। ২০১২ সালে এটি প্রথম আকাশে উড়ে। এর দৈর্ঘ্য ৯২ মিটার। পর্যটকদের আকাশ ভ্রমণে বিলাসী অনুভূতি দিতেই ২০১৮ সালে আবারো নতুন করে সংস্কার করা হয় এই আকাশযানের।

সবচেয়ে বড় হেলিকপ্টার



বিশ্বে বর্তমানে সবচেয়ে বড় ও শক্তিশালী হেলিকপ্টার হিসেবে স্বীকৃত রাশিয়ার তৈরি মিল মি-২৬। পাখা সহ এর দৈর্ঘ্য ৪০ মিটার। এর ওজন ২৮ হাজার ২০০ কেজি। এটি ২০ টন কার্গো সরবরাহ করতে পারে। দুর্গম সব এলাকায় মালামাল সরবরাহ করতে পারে এই হেলিকপ্টার। ১৯৭৭ সাল থেকে এখন পর্যন্ত তৈরি হয়ে আসছে এই বিশাল হেলিকপ্টার।

তথ্যসূত্র: সিএনএন



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২১ এপ্রিল ২০১৯/ফিরোজ

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge