ঢাকা, রবিবার, ৭ কার্তিক ১৪২৪, ২২ অক্টোবর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

ইন্টার্ন চিকিৎসকদের হাতে নারী মেডিক্যাল অফিসার লাঞ্ছিত

আরিফ সাওন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৯-১৬ ৮:৫২:৪৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৯-১৬ ৮:৫২:৪৬ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ডিউটি রুমের দরজা বন্ধ করে নারী মেডিক্যাল অফিসারকে লাঞ্ছিত করেছে কয়েকজন ইন্টার্ন চিকিৎসক।

বৃহস্পতিবার সকালের দিকে এ ঘটনা ঘটে। পরে হাসপাতালের সহকারী পরিচালকের হস্তক্ষেপে লাঞ্ছিত মেডিক্যাল অফিসার মুক্তি পান। এ ঘটনার লাঞ্ছনাকারী ইন্টার্ন চিকিৎসকের বিচার চেয়ে লাঞ্ছিত নারী মেডিক্যাল অফিসার লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ১১টার দিকে মেডিক্যাল কলেজের দুই ইন্টার্ন চিকিৎসকের নেতৃত্বে ২০ থেকে ২৫ জন তার কাজে বাধা দেয় এবং উচ্চস্বরে বাকবিতণ্ডা শুরু করে। একপর্যায়ে ইন্টার্ন চিকিৎসকরা ডিউটি রুমের দরজা বন্ধ করে বৈদ্যুতিক বাতি নিভিয়ে দেয় এবং তাকে লাঞ্ছিত করে। তিনি বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। তিনি এ ঘটনায় দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

এ প্রসঙ্গে হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. কে এম মামুন মোর্শেদ বলেন, ঘটনার সময় তিনি একটি গুরুত্বপূর্ণ সভা করছিলেন। খবর পেয়ে তিনি ৪নং ওয়ার্ডে ছুটে যান। গিয়ে দেখেন ৪/৫ জন ইন্টার্ন চিকিৎসকসহ ১৫/২০ জন শিক্ষার্থী ওই নারী মেডিক্যাল অফিসারকে আটকে রেখেছে। যিনি অত্যন্ত কর্তব্যপরায়ণ চিকিৎসক এবং এই ইন্টার্নদের কোর্স কো-অর্ডিনেটর। পরে তিনি ওই অফিসারকে তার রুমে নিয়ে আসেন।

ডা. মামুন বলেন, কোনো শিক্ষার্থীর বা ইন্টার্ন চিকিৎসকের এ ধরনের আচরন মেনে নেওয়া যায় না। আমরা লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। শনিবার এ নিয়ে আলোচনা হয়েছে। রোববার এ বিষয়ে উচ্চ পর্যায়ের সভা করে তার বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭/সাওন/মুশফিক

Walton
 
   
Marcel