ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১২ ডিসেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

মহম্মদপুরে ২২দিন ধরে নিখোঁজ স্কুলছাত্রী

মো. আনোয়ার হোসেন শাহীন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৭-১৭ ৪:৩৮:২৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৭-১৭ ৪:৩৮:২৫ পিএম

মাগুরা প্রতিনিধি : মাগুরার  মহম্মদপুর উপজেলায় এক  স্কুলছাত্রী ২২ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নিখোঁজ শিক্ষার্থী হলো দীঘা ইন্তাজ মোল্যা  মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী বৃষ্টি বাড়ই (১২)। তার বাড়ি উপজেলার দীঘা ইউনিয়নের আউনাড়া গ্রামের পূর্বপাড়ার অরুন কুমার বাড়ইয়ের মেয়ে।

নিখোঁজ শিক্ষার্থীর পরিবারের দাবি, ২৫ জুন সকাল ৮টার দিকে বাড়ির বাইরে প্রাইভেট পড়তে গিয়ে আর বাড়ি ফেরেনি। এ ব্যাপারে শিক্ষার্থীর মা আশা লতা রানী বাড়ই  ২৮ জুন মহম্মদপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। নিখোঁজ শিক্ষার্থী স্কুলের গণিত শিক্ষক পান্নু মিয়ার  কাছে প্রাইভেট পড়ত।

শিক্ষক পান্নু মিয়া জানান,  স্কুলের একটি কক্ষে তিনি পড়ান। ঈদের আগের দিন হওয়ায় তিনি ওই দিন প্রাইভেট পড়াননি।

নিখোঁজ স্বর্ণার মা আশা লতা বলেন, ২৫ জুন সকাল ৮টার দিকে এক শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়ার উদ্দেশে বাড়ি থেকে বের হয় বৃষ্টি। এরপর সে আর বাড়ি ফিরে আসেনি। অনেক খোঁজাখুঁজির পরও মেয়েকে না পেয়ে মহম্মদপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছি।

নিখোঁজ বৃষ্টির সহপাঠী একই স্কুলের শিক্ষার্থী রুপা ও মুন্নী জানায়, তারা এক সঙ্গে প্রাইভেট পড়ত ও স্কুলে যেত। ঈদের আগের দিন থেকে প্রাইভেট বন্ধ ছিল। বৃষ্টির সঙ্গে দেখা হয়নি।

বৃষ্টির বাবা অরুন কুমার বাড়ই বলেন, ‘২২দিন পার হচ্ছে মেয়ের কোনো খোঁজ নেই। চেয়ারম্যান, র‌্যাব পুলিশ সবাইকে জানিয়েছি। মেয়ের চিন্তায় রাতে ঘুম হয় না।’

দীঘা ইন্তাজ মোল্যা  মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইউনুস আলী জানান, স্কুলের শিক্ষার্থী বৃষ্টিকে পাওয়া যাচ্ছে না বলে তার পরিবার জানিয়েছে।

এ বিষয়ে মহম্মদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. তরীকুল ইসলাম বলেন, ‘নিখোঁজ  ছাত্রী স্কুলের শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়তে গিয়ে নিখোঁজ হয়েছে। এ ঘটনায় ছাত্রীর মা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। আমরা বিষয়টি জানার পর ছাত্রীর সন্ধানে চেষ্টা চালাচ্ছি।’



রাইজিংবিডি /মাগুরা/১৭ জুলাই ২০১৭/ মো. আনোয়ার হোসেন শাহীন/রুহুল

Walton
 
   
Marcel