ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৭ চৈত্র ১৪২৫, ২১ মার্চ ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

সরকারি নির্মাণকাজে ফাঁপা ইট ব্যবহারের নির্দেশ

হাসান মাহামুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০২-১২ ৬:৩৪:৪১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০২-১২ ৬:৩৪:৪১ পিএম

সচিবালয় প্রতিবেদক : এখন থেকে সব ধরনের সরকারি নির্মাণকাজে ফাঁপা ইট ব্যবহারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সোমবার সরকারি এক তথ্য বিবরণীতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

তথ্য বিবরণীতে বলা হয়েছে, সরকারি নির্মাণকাজে ফাঁপা ইট ব্যবহারের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এইচবিআরআই উদ্ভাবিত এ ইট পরিবেশবান্ধব ও অর্থসাশ্রয়ী। তাই প্রধানমন্ত্রী সম্প্রতি এ ইট সরকারি নির্মাণকাজে ব্যবহারের জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন।

এদিকে, পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, ইটভাটা থেকে মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর কার্বন মনোঅক্সাইড নির্গত হয়। এই ধোঁয়ায় সর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্টসহ নানা রোগে মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে। তাছাড়া ইটভাটার কারণে কৃষিজমির ক্ষতি হচ্ছে। এসব ক্ষতি থেকে রক্ষা করতেই ২০১৩ সালে প্রণীত আইনটি সংশোধন করা হচ্ছে। প্রস্তাবিত আইনে ইটের কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহৃত মাটির ব্যবহার হ্রাস করতে আধুনিক প্রযুক্তির ইটভাটায় ২০২১ সালের জুনের মধ্যে উৎপাদিত ইটের কমপক্ষে ৫০ শতাংশ ফাঁপা ইট প্রস্তুত বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে।

বিশ্বব্যাংক ও ইউএনডিপির পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ইট প্রস্তুত খাত দেশের গ্রিনহাউস গ্যাসের সর্ববৃহৎ উৎসে পরিণত হয়েছে। ইটভাটায় বছরে ১২৭ কোটি সিএফটি মাটির প্রয়োজন হয়। প্রতিবছর ইটের চাহিদা বাড়ছেই। শতাংশের হিসাবে তা ২ থেকে ৩ শতাংশ। ইটভাটা খাতে বছরে ৩ দশমিক ৫ মেট্রিক টন কয়লা এবং ১ দশমিক ৯ মেট্রিক টন জ্বালানি কাঠ ব্যবহৃত হয়, যা থেকে প্রতিবছর ৯ দশমিক ৮ মেট্রিক টন গ্রিনহাউস গ্যাস নিঃসরণ হয়ে থাকে।

প্রতিবছর বাংলাদেশে কমপক্ষে ১ হাজার ৫০০ কোটি ইটের চাহিদা রয়েছে। বেশিরভাগ ইটভাটা জ্বালানিপ্রাপ্তির সুবিধার জন্য সাধারণত বনের পাশে গড়ে উঠেছে। নতুন নতুন ইটভাটা গড়ে উঠছে ফসলি জমিতে। ফলে কৃষিজমি কমে যাচ্ছে। দেশে বর্তমানে প্রায় ৭ হাজার ইটভাটা রয়েছে।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/হাসান/রফিক

Walton Laptop
 
     
Walton AC