ঢাকা, সোমবার, ৩ পৌষ ১৪২৫, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

পোল্যান্ডকে বিদায় দিল মিনা-ফ্যালকাওরা

আমিনুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৬-২৫ ৯:৩৯:১৭ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৬-২৫ ২:১৩:৫৬ পিএম
পোল্যান্ডের বিপক্ষে কলম্বিয়ার প্রথম গোলের দৃশ্য

ক্রীড়া ডেস্ক : রাশিয়া বিশ্বকাপের ‘এইচ’ গ্রুপে প্রায় সমশক্তির চারটি দল পড়ে। তাতে এটা এক প্রকার ডেথ গ্রুপই হয়ে যায়। ইউরোপের দল হিসেবে সেখানে ফেভারিট ছিল পোল্যান্ড। তাদের পরেই ছিল কলম্বিয়া। তারপরে সেনেগাল ও জাপান।

মজার ব্যাপার হল প্রথম দেখায় নিচের সারির দুটো দল হারিয়ে দেয় উপরের সারির দুটো দলকে। প্রথম ম্যাচে কলম্বিয়া ১-২ গোলে হেরে যায় জাপানের কাছে। আর পোল্যান্ড একই ব্যবধানে হেরে যায় সেনেগালের কাছে। টিকে থাকার লড়াইয়ে রোববার রাতে মুখোমুখি হয় পোল্যান্ড-কলম্বিয়া। যে জিতবে পরের রাউন্ডে যাওয়ার আশা টিকে থাকবে তাদের। যে হারবে তার বিদায় এক প্রকার নিশ্চিত হয়ে যাবে। প্রথম ম্যাচে জাপানের কাছে হেরে গেলেও রোববার খোলস ছেড়ে বেড়িয়ে আসে কলম্বিয়া।
 


রোববার রাতে তারা পোল্যান্ডকে হারিয়ে দিয়েছে ৩-০ ব্যবধানে! এই জয়ের ফলে পরের রাউন্ডে যাওয়ার স্বপ্ন বেঁচে থাকল কলম্বিয়ার। আর বিদায় এক প্রকার নিশ্চিত হয়ে গেল পোল্যান্ডের। প্রথম দুই ম্যাচই হেরে  পোল্যান্ড নামের পাশে কোনো পয়েন্ট যুক্ত করতে পারেনি। অন্যদিকে প্রথম ম্যাচ জয় তুলে নেওয়ার পর দ্বিতীয় ম্যাচ ড্র করে জাপান ও সেনেগাল। তাতে ৪ পয়েন্ট করে সংগ্রহ করে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দুইয়ে অবস্থান করছে তারা। ৩ পয়েন্ট নিয়ে কলম্বিয়া আছে তৃতীয় স্থানে।

শেষ ম্যাচে কলম্বিয়া মুখোমুখি হবে সেনেগালের। পরের রাউন্ডে যেতে হলে এই ম্যাচে জিততে হবে তাদেরকে। অবশ্য না জিতে ড্র করলেও চলবে। সেক্ষেত্রে শেষ ম্যাচে পোল্যান্ডের কাছে ভালো ব্যবধানে হারতে হবে জাপানকে। যেহেতু ড্র করলেই জাপান ও সেনেগাল পরের রাউন্ডে চলে যাচ্ছে সেহেতু ডিপ ডিফেন্স করে তারা শেষ ম্যাচটি যেকোন মূল্যে ড্র করতে চাইবে। আর পাল্টা আক্রমণে সুযোগ পেয়ে গেলে জেতার চেষ্টা করবে।

রোববার রাতে পোল্যান্ডের জালের নাগাল পেতে কলম্বিয়াকে অপেক্ষা করতে হয় ৪০ মিনিট পর্যন্ত। অবশ্য শুরু থেকেই তার পোল্যান্ডের উপর চড়াও হয়ে খেলছিল। একের পর এক আক্রমণ শানিয়ে ব্যতিব্যস্ত করে তুলেছিল পোল্যান্ডের রক্ষণভাগকে। কিন্তু গোলমুখে শট নিতে পারেনি। ৪০ মিনিটের সময় কর্নার পায় কলম্বিয়া। হামেস রদ্রিগে কর্নার থেকে সরাসরি ডি বক্সের মধ্যে বল না পাঠিয়ে বাড়িয়ে দেন হুয়ান কুয়াদ্রাদোকে। তিনি বল বাড়িয়ে দেন হুয়ান কুইনতেরোকে। কুইনতেরো দেন ডি বক্সের বাইরে অবস্থান নেওয়া হামেসকে। হামেস বল উঁচু করে দেন ডি বক্সের মধ্যে। সেখানে লাফিয়ে উঠে শট নেন ইয়েরি মিনা। বল জালে জড়ায় (১-০)।
 


৭০ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রাদামেল ফ্যালকাও। এ সময় লম্বা পাসে ডি বক্সের বাইরে থাকা ফ্যালকাওকে বল বাড়িয়ে দেন হামেস রদ্রিগেজ। বল পেয়েই দ্রুততার সঙ্গে বক্সে ঢুকে পড়েন। গোলরক্ষক সামনে এগিয়ে আসেন। তাকে একা পেয়ে বামদিকে শট নেন ফ্যালকাও। গোলরক্ষক ঝাপিয়ে পড়েও শেষ রক্ষা করতে পারেননি (২-০)। এর ৫ মিনিট পরেই গোলের দেখা পান হুয়ান কুয়াদ্রাদো। এ সময় মাঝমাঠের একটু সামনে থেকে বাঁকানো লম্বা পাসে কুয়াদ্রাদোকে বল বাড়িয়ে দেন হামেস। বল পেয়েই দ্রুতবেগে ছুটে যান তিনি। তার সামনে ছিল কেবল পোল্যান্ডের গোলরক্ষক। তাকে পরাস্ত করতে বেগ পেতে হয়নি কুয়াদ্রাদোর। বল জালে পাঠিয়ে দিয়েই ভো দৌড় দেন তিনি (৩-০)।

বাকি সময়ে অবশ্য আর গোল হয়নি। তাতে ৩-০ গোলে পোল্যান্ডকে হারিয়ে শেষ ষোলোতে যাওয়ার আশা বাঁচিয়ে রেখে মাঠ ছাড়ে কলম্বিয়ানরা।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৫ জুন ২০১৮/আমিনুল

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC