ঢাকা, শুক্রবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

গাজীপুরে উদ্ধার হওয়া লাশ পুলিশ কর্মকর্তার

মাকসুদুর রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৭-১০ ৭:৩১:৪১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৭-১০ ৯:০৩:০৭ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : গাজীপুরে উদ্ধার হওয়া লাশ পুলিশ ইন্সপেক্টর মামুন ইমরান খানের। দুদিন ধরে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। মামুন পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) একটি ট্রেনিং স্কুলে কর্মরত ছিলেন বলে গাজীপুরের পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার বিকেলে গাজীপুরের পুলিশ সুপার (এসপি) হারুনুর রশিদ রাইজিংবিডিকে জানান, মঙ্গলবার দুপুরে কালীগঞ্জের নাগরী এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয় লাশটি। প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে হত্যাকা- ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় সংঘটিত হয়েছে। এ কারণে লাশ ডিএমপির গোয়েন্দা পুলিশের কাছে দেওয়া হবে। লাশটি ইন্সপেক্টর মামুন ইমরান খানের বলে শনাক্ত করা হয়েছে। তার চেহারা ক্ষত-বিক্ষত এবং পোড়ানো। পরিবারের লোকজন লাশ শনাক্ত করেছেন।  এর আগে কালীগঞ্জের উলুখোলা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসআই) মো. গোলাম মাওলা গণমাধ্যমকে জানান, উপজেলার রায়েরদিয়া সড়কের পাশে একটি জঙ্গলে বস্তাবন্দি মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা। পরে তারা উলুখোলা পুলিশ ফাঁড়িতে খবর দেয়। দুতিন দিন আগে পুলিশের (ঢাকা) বিশেষ শাখার পরিদর্শক মামুন ইমরান খান নিখোঁজ হয়েছেন। মরদেহটি ওই পুলিশ কর্মকর্তার।

মামুনের পরিবারের সদস্যরা বলছেন, দু’দিন আগে গাজীপুরে একটি মামলায় সাক্ষ্য দিয়ে ফেরার পথে তিনি নিখোঁজ হন। শান্তিনগরে পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) একটি ট্রেনিং স্কুলে কর্মরত ছিলেন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি অবিবাহিত। ২০০৫ সালে সাব-ইন্সপেক্টর হিসেবে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশে (সিএমপি) যোগদান করেন তিনি। এরপর জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী মিশনে যোগ দেন। সেখান থেকে ফেরার আগেই ইন্সপেক্টর পদে পদোন্নতি লাভ করেন। রাজধানীর সবুজবাগ এলাকায় তার ভাইয়ের সঙ্গে থাকতেন। চলতি বছরের শেষ দিকে তিনি আবারও মিশনে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। তার সঙ্গে কারো শত্রুতা আছে- এমন কিছু কখনো বলেননি। তিনি সদালাপী ছিলেন।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১০ জুলাই ২০১৮/মাকসুদ/শাহনেওয়াজ

Walton Laptop
 
     
Walton