ঢাকা, বুধবার, ৪ মাঘ ১৪২৪, ১৭ জানুয়ারি ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

জঙ্গি আস্তানায় বিস্ফোরণ : প্রতিবেদন ১৭ ডিসেম্বর

মামুন খান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-১১-১৪ ৫:৩৩:০৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১১-১৪ ৫:৩৩:০৬ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর মিরপুরের বর্ধনবাড়ি এলাকার জঙ্গি আস্তানায় বিস্ফোরণের পর লাশ উদ্ধারের ঘটনায় করা অপমৃত্যুর মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ পিছিয়ে আগামী ১৭ ডিসেম্বর  ধার্য করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিন ধার্য ছিল। কিন্তু এদিন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা প্রতিবেদন দাখিল করেননি। এজন্য ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম  জসিম উদ্দিন প্রতিবেদন দাখিলের নতুন এ তারিখ ঠিক করেন।

প্রসঙ্গত, টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গা পৌরসভার মসিন্দা এলাকায় জঙ্গি আস্তানা থেকে গত ৪ সেপ্টেম্বর রাতে দুই জঙ্গিকে আটক করে র‌্যাব। আটককৃত দুই সহোদর হলেন মাসুদ ও খোকন। ওই দুই সহোদরের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য ও গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে মিরপুরের দারুস সালামের ওই বাড়িতে অভিযান চালায় র‌্যাব। ৬ সেপ্টেম্বর দিনভর আহ্বানের পর সন্ধ্যা নাগাদ জঙ্গিরা আত্মসমর্পণে রাজি হয়। পরে তারা রাত পৌনে ১০টার দিকে আত্মঘাতী বিস্ফোরণ ঘটায়। এতে আস্তানায় আগুন ধরে যায়। ওই দিন অভিযান স্থগিত রাখে র‌্যাব। পরে রাতে গোলাগুলির আওয়াজ শোনা যায়। পরদিন ৬ সেপ্টেম্বর সকালে র‌্যাব জঙ্গি আস্তানায় অভিযান শুরু করলে সাতটি মরদেহ পাওয়া যায়। জঙ্গি আস্তানায় প্রায় ১০০ ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে ৮ সেপ্টেম্বর সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়।

জঙ্গি আস্তানা থেকে ১৭টি শক্তিশালী বোমা, ৩০টি ইম্প্রোভাইজড হ্যান্ড গ্রেনেড, ৫০টি কেমিক্যাল বোমা, ১৫ কেজির মতো স্প্লিন্টার, ১০ কেজি গান পাউডার, আনুমানিক তিন কেজি সালফার, নয়টি খালি কেস, আনুমানিক ১৫ থেকে ২০ কেজি চারকোল, অসংখ্য সার্কিট, এক কন্টেইনার এসিড, তরল দাহ্য পদার্থ ১১ কন্টেইনার, ধারালো অস্ত্র ৬১টি ও দুটি মাস্ক উদ্ধার করে র‌্যাব।

ওই ঘটনায় গত ৬ সেপ্টেম্বর র‌্যাব-৪ এর উপ-সহকারী পরিচালক হারুন অর রশিদ বাদী হয়ে দারুস সালাম থানায় মামলাটি দায়ের করেন। এরপর আদালত মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৪ নভেম্বে ২০১৭/মামুন খান/রফিক

Walton