ঢাকা, রবিবার, ৮ আশ্বিন ১৪২৫, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

বিশ্বকাপে ভিএআর যুগের যাত্রা শুরু হচ্ছে আজ

আমিনুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৬-১৪ ১:০৪:৫৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৬-১৪ ৫:৫৯:৪৯ পিএম

ক্রীড়া ডেস্ক : অনেক সময় নিশ্চিত গোলও অফসাইডের এক পতাকা তুলে বাতিল করে দেওয়া হয়। কখনো কখনো নির্দোষ খেলোয়াড়ও লাল কার্ড দেখে মাঠ ছেড়ে যান। কখনো কখনো ডি বক্সের লাইনের বাইরে ফাউল হলেও পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়ে প্রতিপক্ষের সর্বনাশ ডেকে আনেন রেফারিরা। খালি চোখে দেখে দেওয়া সিদ্ধান্ত কখনো কখনো সঠিক হয় না। সেক্ষেত্রে একটি দল অন্যায়ের শিকার হতে পারে। এসব ক্ষেত্রে বিতর্ক এড়িয়ে সঠিক ও নিখুঁত সিদ্ধান্ত দিতে রাশিয়া বিশ্বকাপ প্রবেশ করতে যাচ্ছে ‘ভিএআর’ তথা ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির যুগে।

বিশ্বকাপকে সামনে রেখে ১৩ জন রেফারিকে ভিএআরের উপর প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। তাদের মধ্য থেকে একটি ম্যাচের জন্য ভিএআর রেফারি নির্বাচন করা হবে। তাকে সহায়তা করার জন্য থাকবেন আরো তিনজন। ম্যাচ যেখানেই হোক তারা একটি নির্দিষ্ট স্থানে বসবেন। সেখানে বসে তারা সবগুলো ক্যামেরার ভিউ দেখতে পাবেন। স্লো মোশন থেকে শুরু করে আলাদা আলাদা করে সবগুলো ক্যামেরায় ধারণ করা দৃশ্যগুলো তারা দেখতে পাবেন।

এই সময়ে মাঠে যদি কোনো বিতর্কিত সিদ্ধান্ত কিংবা এমন অবস্থার সৃষ্টি হয় যেটার সিদ্ধান্ত দেওয়া মাঠের রেফারির জন্য কঠিন হয়ে যায়, তখন তিনি ভিডিও রেফারির সহায়তা নিতে পারবেন। যা ঘটেছে সেটা দেখে ভিএআর রেফারি সিদ্ধান্তটি জানিয়ে দেবেন মাঠের রেফারিকে। তিনি সঠিক সিদ্ধান্ত দিবেন। তবে ভিএআর রেফারির দেওয়া সব সিদ্ধান্ত মানতে তিনি বাধ্য থাকবেন না। ভিএআর পদ্ধতি কেবল রেফারির উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করবে।

২০১৪ বিশ্বকাপে ব্যবহার করা হয়েছিল গোললাইন প্রযুক্তি। সেটার সফলতার পর এবার বিশ্বকাপে ফুটবলপ্রেমীরা দেখতে যাচ্ছে ভিএআর প্রযুক্তি। অর্থাৎ ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি। গোল, পেনাল্টি, লাল কার্ড ও জটিল কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে মাঠের রেফারি সহায়তা নিতে পারবেন ভিএআর পদ্ধতির।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৪ জুন ২০১৮/আমিনুল

Walton Laptop
 
     
Walton