ঢাকা, শনিবার, ৯ চৈত্র ১৪২৫, ২৩ মার্চ ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

বিএনপির ৭১ পরাজিত প্রার্থীর হাইকোর্টে মামলা

মেহেদী হাসান ডালিম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৯-০২-১৪ ৯:৪৫:৪৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০২-১৫ ১০:৩৫:৫৭ এএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নির্বাচিত প্রার্থীর বিজয় চ্যালেঞ্জ করে এবং পুনরায় নির্বাচন চেয়ে হাইকোর্টের নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা করেছেন দেশের বিভিন্ন সংসদীয় আসনের ৭১ জন পরাজিত বিএনপির প্রার্থী। এছাড়া জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ৩ জন এবং প্রোগ্রেসিভ ডেমোক্রেটিক পার্টির (পিডিপি) ১ জন প্রার্থীও মামলা দায়ের করেছেন।

গত মঙ্গল, বুধ এবং আজ বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এসব মামলা দায়ের করা হয় বলে জানিয়েছেন মামলাকারীদের অন্যতম আইনজীবী নিতাই রায় চৌধুরী, ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল, ব্যারিস্টার বাগীব রউফ চৌধুরী, ব্যারিস্টার সানজিদ সিদ্দিকী ও ব্যারিস্টার এ কে এম এহসানুর রহমান। তারা বলেছেন, প্রত্যেক আবেদনকারী নিজ নির্বাচনী আসনের অন্য প্রার্থীদের বিবাদী করেছেন। আবেদনে বিবাদী বিজয়ী প্রার্থীদের সংসদ সদস্য পদ বাতিল চাওয়া হয়েছে। এছাড়া প্রত্যেক সংসদীয় আসনের নির্বাচনও বাতিল চাওয়া হয়েছে।

হাইকোর্টে মামলা দায়েরকারীদের মধ্যে রয়েছেন, ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন (নোয়াখালী-১), সুব্রত চৌধুরী (ঢাকা-৬), মফিজুল ইসলাম খান কামাল (মানিকগঞ্জ-৩), মেজর জেনারেল (অব.) আ আ ম স আমিন (কুড়িগ্রাম-২), আব্দুল মোমেন চৌধুরী (চট্টগ্রাম-১৫), সাইফুল ইসলাম ফিরোজ (ঝিনাইদাহ-৪), আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী (টাঙ্গাইল-৭), জয়নুল আবেদীন (বরিশাল-৩), রুমানা মাহমুদ (সিরাজগঞ্জ-২), জহির উদ্দিন স্বপন (বরিশাল-১), শাহ রিয়াজুল হান্নান (গাজীপুর-৪), নাসের রহমান (মৌলভিবাজার-৩), আব্দুল হাই (মুন্সিগঞ্জ-৩), হাফিজ ইব্রাহিম (ভোলা-২), রুহুল আমিন দুলাল (পিরোজপুর-৩), ডা. দেওয়ান মোহাম্মদ সালাহউদ্দিন (ঢাকা-১৯), হাফিজ উদ্দিন আহমেদ (ভোলা-৩), তাজভীর উল আলম (কুড়িগ্রাম-৩), মো. সাইফুল ইসলাম (রংপুর-৬), মো. সাদেক রিয়াজ (দিনাজপুর-২), মোস্তফা মহসীন মন্টু (ঢাকা-৭), নজরুল ইসলাম আজাদ (নারায়ণগঞ্জ-২), মইনুল ইসলাম খান শান্ত (মানিকগঞ্জ-২), ইরফান ইবনে আমান অমি (ঢাকা-২), নবিউল্লাহ নবী (ঢাকা-৫), আশরাফ উদ্দিন (নরসিংদী-৫), মো. আমিরুল ইসলাম খান (সিরাজগঞ্জ-৫), শহিদুল ইসলাম (টাঙ্গাইল-১), ফরহাদ হোসেন আজাদ (পঞ্চগড়-২), মো. হাসান রাজিব প্রধান (লালমনিরহাট-১), মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী (চট্টগ্রাম-১৬), মো. আখতারুজ্জামান মিয়া (দিনাজপুর-৪), মো. শাহজাহান মিয়া (চাঁপাইনবাবগঞ্চ-১), মিজানুর রহমান (সুনামগঞ্জ-৫), মো. জি কে গউছ (হবিগঞ্জ-৩), মজিবুর রহমান চৌধুরী (মৌলভিবাজার-৪), ফারুখ আলম সরকার (গাইবান্ধা-৫), শফি আহমেদ চৌধুরী (সিলেট-৩), মো. আনোয়ারুল হক (নেত্রকোনা-২), শাহ মো. ওয়ারেস আলী (জামালপুর-৫), নিতাই রায় চৌধুরী (মাগুরা-২), অনিন্দ্য ইসলাম অমিত (যশোর-৩), মো. আবু সুফিয়ান (চট্টগ্রাম-৮), মাসুদ অরুণ (মেহেরপুর-১), আমিন উর রশিদ (কুমিল্লা-৬), ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন (নোয়াখালী-১), শহিদুল ইসলাম ভূঁইয়া (খাগড়াছড়ি), সাব্বির আহমদে (রংপুর-৩), মুন্সী রফিকুল আলম (ফেনী-১), জয়নাল আবদীন ফারুক (নোয়াখালী-২), সা চিং প্রো (বান্দরবান), শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক (চাঁদপুর-৩), আবুল খায়ের ভূঁইয়া (লক্ষ্মীপুর-২), জাকির হোসেন সরকার (কুষ্টিয়া-৩), রকিবুল ইসলাম (খুলনা-৩), শামা ওবায়েদ ইসলাম (ফরিদপুর-২), আনিসুর রহমান (মাদারীপুর-৩), আজিজুল বারি হেলাল (খুলনা-৪), শাহ মো. আবু জাফর (ফরিদপুর-১), মো. শরিফুজ্জামান (চুয়াডাঙ্গা-১), হাবিবুল ইসলাম হাবিব (সাতক্ষীরা-১) এবং আলী নেওয়াজ মাহমুদ খৈয়াম (রাজবাড়ী-১)। এছাড়া আরও ১৩ জন প্রার্থী একই শাখায় মামলা দায়ের করলেও তাদের নাম পাওয়া সম্ভব হয়নি।  

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ৯ ফেব্রুয়ারি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বিষয়ে সারাদেশের ৬৪ জেলা থেকে হাইকোর্টের নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা করার সিদ্ধান্ত নেয় বিএনপি।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯/মেহেদী/শাহনেওয়াজ

Walton Laptop
 
     
Walton AC