ঢাকা, সোমবার, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৭ মে ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

নদীর তীর ধ্বংসের অভিযোগে অভিযান, গ্রেপ্তার ১০

এম এ রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০২-১৯ ৬:২৩:১০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০২-১৯ ৬:৪২:৫৩ পিএম
Walton AC

নিজস্ব প্রতিবেদক: নদীর মাটি কেটে নদীর তীর ধ্বংস করে এবং পরিবেশের বিপর্যয় ঘটিয়ে কোটি কোটি টাকার অবৈধ বাণিজ্য করার অভিযোগে কুমিল্লা, ঝিনাইদহ ও বগুড়ায় অভিযান চালিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

অভিযানে ১০ জনকে গ্রেপ্তার করে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেওয়া হয় এবং ট্রাক্টর ও ড্রেজার জব্দ করা হয়।

গোমতী, নাগর ও কালিগঞ্জ নদীর মাটি কেটে নদীর তীর ধ্বংস করে এবং পরিবেশের বিপর্যয় ঘটিয়ে কোটি কোটি টাকার অবৈধ বাণিজ্য করা হচ্ছে- এমন অভিযোগের ভিত্তিতে দুদক টিম, স্থানীয় প্রশাসন ও পুলিশের সমন্বয়ে গঠিত যুগপৎ টিম মঙ্গলবার এই অভিযান চালায়।

দুদক মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী মঙ্গলবার এ তথ্য জানিয়েছেন।

দুদক জানায়, কুমিল্লার উপ-পরিচালক মোঃ হেলাল উদ্দিন শরীফের নেতৃত্বে একটি টিম কুমিল্লার দেবিদ্বারে গোমতী নদীর তীরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন প্রতিরোধে অভিযান চালায়। অভিযানে ৫ জনকে গ্রেপ্তার করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এছাড়া ২টি ট্রাক্টর ও ২টি ড্রেজার মেশিন ধ্বংস করে ফেলা হয়।

এদিকে ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলার ত্রিবেনী ও দিগনগর ইউনিয়নে দুদকের যশোর অফিসের উপপরিচালক মোঃ নাজমুচ্ছায়াদাতের নেতৃত্বে দুদক টিম অভিযান চালায়। অভিযানে কালিগঞ্জ নদীতে বালু উত্তোলনকালে ১ জনকে হাতেনাতে ধরে গ্রেপ্তার করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার নাগর নদের তলা খুঁড়ে অবৈধভাবে মাটি উত্তোলনের বিরুদ্ধে উপপরিচালক মোঃ মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বে দুদক টিম সাঁড়াশি অভিযান চালায়। অভিযানে তাৎক্ষণিক ৪ জন ম্যানেজারকে ৬ মাস করে কারাদণ্ড দেওয়া হয় এবং মোট ৮ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়াও বিপুল সংখ্যক ড্রেজার মেশিন ও পাইপ ধ্বংস করা হয়। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে পরিবেশ আইনেও মামলা করা হবে বলে দুদক জানিয়েছে।

অভিযান প্রসঙ্গে দুদক এনফোর্সমেন্ট ইউনিটের প্রধান মহাপরিচালক (প্রশাসন) মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেন, ‘পরিবেশ ধ্বংসী অপরাধ থেকে যারা অবৈধ অর্থ উপার্জন করছে তাদের সম্পদের হিসেব বের করে দুদক শিগগিরই আইনি ব্যবস্থা নেবে। পরিবেশ, প্রতিবেশ এবং প্রাকৃতিক সম্পদ সুরক্ষায় এ অভিযান আরো চলবে।’



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯/এম এ রহমান/শাহনেওয়াজ

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge