ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬, ২৭ জুন ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

অ্যানফিল্ডে লিভারপুল-বায়ার্ন গোলশূন্য ড্র

আবু হোসেন পরাগ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০২-২০ ১১:৫৯:৪২ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০২-২০ ১২:৩৫:১৩ পিএম
Walton AC 10% Discount

ক্রীড়া ডেস্ক : বায়ার্ন মিউনিখ অ্যানফিল্ডে লিভারপুলের সঙ্গে ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতার ম্যাচ খেলবে এবং সেটা গোলশূন্য ড্র হবে না তা কি হয়!

১৯৭১ সালের মার্চে অ্যানফিল্ডে ইউরোপিয়ান কাপ উইনার্স কাপে মুখোমুখি হয়েছিল লিভারপুল-বায়ার্ন। ম্যাচ শেষ হয়েছিল গোলশূন্য ড্রয়ে। ১৯৮১ সালের এপ্রিলে এই মাঠে দুই দলের ইউরোপিয়ান কাপের ম্যাচও একই স্কোরলাইন দেখেছিল।

অতীত ইতিহাস ধরে রেখে মঙ্গলবার রাতে অ্যানফিল্ডে দুই দলের চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগের ম্যাচও গোলশূন্য ড্র হয়েছে। তাতে অবশ্য লাভ হয়েছে বায়ার্নের।

চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাস বলছে, ৩১টি দল নকআউট পর্বে ঘরের মাঠে প্রথম লেগে গোলশূন্য ড্র করেছে। এর মধ্যে মাত্র ১০ দল পরের রাউন্ডে উঠেছে।

বায়ার্ন ঘরের মাঠে শেষ ২৬ চ্যাম্পিয়নস লিগ ম্যাচের মাত্র দুটি হেরেছে। লিভারপুল এই মৌসুমে ইউরোপ সেরার প্রতিযোগিতায় এখন পর্যন্ত তিনটি অ্যাওয়ে ম্যাচেই হেরেছে। বায়ার্ন ঘরে-বাইরে কোথাও এখনো হারেনি। সবদিক থেকে তাই লিভারপুলের চেয়ে বায়ার্নই এগিয়ে থেকে ১৩ মার্চ ফিরতি লেগে নামবে।

অ্যানফিল্ডে বল দখলের লড়াইয়ে দুই দলই ছিল সমানে সমান। বায়ার্নের জমাট রক্ষণের মাঝেও লিভারপুল গোলমুখে শট নিয়েছে ১৫টি। অবশ্য এর মাত্র ২টি লক্ষ্যে রাখতে পেরেছে তারা। অন্যদিকে বায়ার্নের ৯ শটের একটিও লক্ষ্যে ছিল না।

প্রথমার্ধের ৩৩ মিনিটে প্রথম ভালো সুযোগটি পেয়েছিল লিভারপুল। পেনাল্টি স্পটের কাছে ফাঁকায় বল পেয়েছিলেন সাদিও মানে। কিন্তু লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নেন সেনেগালের এই ফরোয়ার্ড।

৭৮ মিনিটে বায়ার্নের তিনজনকে কাটিয়ে ডি বক্সে ঢুকে গিয়েছিলেন মোহাম্মদ সালাহ। কিন্তু লক্ষ্যে শট রাখতে পারেননি এই মিসরীয় ফরোয়ার্ড। ৮৫ মিনিটে মানের হেড ঠেকিয়ে জাল অক্ষত রাখেন গোলরক্ষক ম্যানুয়েল নয়্যার।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯/পরাগ

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge