ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ আশ্বিন ১৪২৫, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

যেসব খাবারে কমবে ওজন

আফরিনা ফেরদৌস : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৭-১২-০৬ ১:০৪:৩৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১২-০৬ ২:২৮:১৩ পিএম
প্রতীকী ছবি

আফরিনা ফেরদৌস : অতিরিক্ত ওজন কমানোর জন্য আমরা অনেক পদ্ধতি অনুসরণ করি। কোনোটি না জেনে আবার কোনোটি ভুল উপায়ে।

রাতারাতি ওজন কমানোর কোনো ম্যাজিক্যাল পদ্ধতি নেই। ওজন কমানোর জন্য শারীরিক ব্যায়ামের পাশাপাশি খাবারের দিকেও খেয়াল রাখা দরকার। গবেষকরা এমন বেশ কিছু খাবারের ব্যাপারে প্রমাণ দিয়েছেন, যেগুলো ওজন কমাতে সহায়ক। এ নিয়ে দুই পর্বের প্রতিবেদনের আজ প্রথম পর্বে কয়েকটি খাবার তুলে ধরা হলো।

দুধ, দই ও পনির
দুধ আমাদের শরীরের জন্য ভালো তা আমরা সবাই জানি। হলুদ রঙের পনির এবং দইও সেই একই রকম উপকারী। ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল অব ওবেসিটিতে প্রকাশিত একটি গবেষণায় বলা হয়, যারা নিয়মিত ডেইরি খাবার খান না তাদের তুলনার যারা নিয়মিত ডেইরি খাবার খান তাদের ১.৬ পাউন্ড মেদ হ্রাস পায়। যার মূল কারণ দুধে প্রচুর পরিমাণ ক্যালসিয়াম থাকে যা ফ্যাট সেল উৎপন্নকারী ভিটামিনের লেভেল কমিয়ে দেয় এবং ওজন কমাতে সাহায্য করে।

ওটস এবং বার্লি
সঠিক সময়ে, সঠিক ধরনের খাবার খেলে কার্বোহাইড্রেডও আপানার জন্য ভালো। আমেরিকান জার্নাল অব ক্লিনিক্যাল নিউট্রিশনের মতে, ওজন কমাতে চাইলে রাতে সাদা ভাতের পরিবর্তে বার্লি খেতে পারেন। শস্য দানা ক্ষুধা মেটানোর সঙ্গে সঙ্গে অধিক খাওয়ার চাহিদা নিবারণ করে। বার্লি মূলত স্বল্প মাত্রায় রক্তে সুগার বাড়ায় যা আপনাকে খাওয়ার পর পরই আবার খাবার গ্রহণের চাহিদা থেকে মুক্তি দেয়।

গ্রীন টি
ওজন কমাতে সাহায্য করা গ্রীন টির একটি স্বাস্থ্য সুবিধা। প্রতিদিন ৪ থেকে ৬ কাপ গ্রীন টি সপ্তাহে ১৮০ মিনিট ব্যায়ামের সমান। এটিকে আরো স্বাস্থ্যকর করে তুলতে সামান্য লেবুর রস যোগ করতে পারেন।

ডিম
প্রোটিন অনেক ভাবেই ওজন কমাতে সাহায্য করে। আমাদের শরীর অন্যান্য খাবারের তুলনায় প্রোটিনযুক্ত খাবার ভাঙার জন্য অনেক শক্তি ব্যয় করে যেমন ক্যালরি। প্রোটিন ওজন কমাতে সহায়তা করে মাংসপেশী তৈরি করতে সাহায্য করে। এছাড়া প্রোটিন কার্বোহাইড্রেডের তুলনার বেশি খাবার চাহিদা নীরস করে।

(আগামী পর্বে সমাপ্য)



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৬ ডিসেম্বর ২০১৭/ফিরোজ

Walton Laptop
 
     
Walton