ঢাকা, বুধবার, ৭ ভাদ্র ১৪২৫, ২২ আগস্ট ২০১৮
Risingbd
শোকাবহ অগাস্ট
সর্বশেষ:

বলিউড অভিনেত্রী-ক্রিকেটারদের প্রেমময় জুটি (পর্ব-১)

নুহিয়াতুল ইসলাম লাবিব : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৭-১২-০৭ ৮:২২:০১ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১২-০৭ ১১:৪২:১২ এএম

নুহিয়াতুল ইসলাম লাবিব : বলিউডের অভিনেত্রী ও ক্রিকেটারদের প্রেম নতুন কিছু নয়। যুগে যুগে এই প্রেম আলোচিত হয়েছে। কারণে-অকারণে সংবাদমাধ্যমের শিরোনাম হয়েছে। কিছু প্রেম পরিনতি পাবার আগেই মুখ থুবড়ে পরেছে। আবার কিছু প্রেম সফলতার মুখ দেখে। কিছু প্রেম পরিনতি পাওয়ার পরও বিচ্ছেদের করুণ সুরকে সঙ্গী করে ভিন্ন পথে চলতে শুরু করেছে। এ যেন কাছে এসেও দূরে চলে যাওয়ার দোলাচল। তারপরও তারা প্রেমময় জুটি হিসেবে আলোচিত। চলুন তাহলে বলিউড অভিনেত্রী ও ক্রিকেটারদের মধ্যকার ১০টি প্রেমময় জুটির বিষয়ে জেনে নেওয়া যাক। আজ প্রকাশিত হল প্রথম পর্ব।

শর্মিলা ঠাকুর-মনসুর আলী খান পতৌদি : বলিউড অভিনেত্রী এবং ক্রিকেট তারকাদের মধ্যে সর্বপ্রথম স্বীকৃত জুটিটিই হলো সুন্দরী শর্মিলা ঠাকুর এবং মনসুর আলী খান পতৌদির। ১৯৬৫ সালে দিল্লীতে তাদের সর্বপ্রথম দেখা। মজার ব্যাপার হলো প্রথম দেখাতেই মনসুর আলী খান পতৌদি শর্মিলা ঠাকুরের প্রেমে পরে যান। অল্প কয়েক দিনের মাথায়ই ক্রিকেটার মনসুর আলী খান প্রেম নিবেদন করলেও শর্মিলা ঠাকুর চার বছর পর তাকে গ্রিন কার্ড দেখান।
 

সঙ্গীতা বিজলানি-মোহাম্মদ আজহারউদ্দীন : ১৯৯৬ সালে সাবেক মিস ইন্ডিয়া সঙ্গীতা বিজলানি ক্রিকেটার মোহাম্মদ আজহারউদ্দিনের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন। সে সময়ে এই জুটিটি এতোটাই আলোচিত হয়েছিল যে তাদের ভালোবাসা প্রায় সর্বত্রই বেশ কয়েকটি শিরোনামে জায়গা করে নিয়েছিল। স্পষ্টতই, দুজনের দুজনার প্রতি ভালোলাগা শুরু হয়েছিল ’৯০ এর দশকে। পরবর্তীতে এক পর্যায়ে তাদের ভালো লাগা ভালোবাসায় রুপ নেয় এবং তা এতোটাই তীব্র ছিল যে আজহার সঙ্গীতাকে বিয়ের পূর্বে তার প্রথম স্ত্রী নওরীনকে ডিভোর্স দিয়েছিলেন। যদিও পরবর্তীতে এই দম্পতি তাদের বিয়ের ১৪ বছর পরে ডিভোর্স নিয়ে আলাদা হয়ে যান।
 

রীনা রয়-মহসিন খান : ক্যারিয়ারের একেবারে তুঙ্গে থাকা অবস্থায় অভিনেত্রী রীনা রয় পাকিস্তানি ক্রিকেটার মহসিন খানের প্রেমে পরেন। অভিনেত্রী রীনা রায়ের সে সময়েই বেশকিছু বিখ্যাত চলচিত্র ছিল। যেমনঃ নাগিন, কালীচরণ, জানে দুশমন, নসীবসহ আরো অনেক। তবে চলচিত্রের জগতে উড়তে থাকা এই নায়িকা সবাইকে অবাক করে দিয়েই তার ক্যারিয়ারে ইতি টেনে ১৯৮৩ সালে মহসিন খানকে বিয়ে করে ফেলেন। যদিও সীমান্তের বাঁধা পেরুনো এই ভালোবাসার গল্প দীর্ঘদিন স্থায়ী হয়নি। অবশেষে ডিভোর্সের মাধ্যমে তাদের দাম্পত্য জীবনের সমাপ্তি ঘটে।
 

ভিব রিচার্ডস-নীনা গুপ্ত : আশির দশকে সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যান স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস এবং অভিনেত্রী নীনা গুপ্ত প্রেমে জড়িয়ে পরেন। রিচার্ড বিবাহিত হওয়া স্বত্তেও নীনার সঙ্গে গভীর প্রেমে মগ্ন ছিলেন। আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের বিবাহ না হলেও তাদের দুজনের ‘মাসাবা' নামে একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। তিনি বর্তমানে ফ্যাশান ইন্ডাসট্রিতে একটি পরিচিত মুখ।
 

জিনাত আমান-ইমরান খান : জিনাত আমান ও ইমরান খানের ভালোবাসার গল্পটি যেন ৭০ এর দশকে শহরের বেশিরভাগ মানুষেরই মুখে মুখে ছিল। এমনকি তাদের প্রেমের সম্পর্কটি বেশকিছু শিরোনাম তৈরি করেছিল। অবশেষে তাদের এই সম্পর্ক বিয়েতে পরিণত হতে পারেনি। জিনাত আমান শেষ পর্যন্ত অভিনেতা মাজহার খানের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন এবং অন্যদিকে ক্রিকেটার ইমরান জেমিমা গোল্ড স্মিথের সাথে সম্পর্ক স্থাপন করেন।


 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/৭ ডিসেম্বর ২০১৭/নুহিয়াতুল/আমিনুল

Walton Laptop
 
     
Walton